গণমাধ্যমে পঞ্চাশ হাজারের বেশি সাক্ষাৎকার গ্রহণকারী যুক্তরাষ্ট্রের জনপ্রিয় উপস্থাপক ল্যারি কিংয়ের কণ্ঠ থেমে গেল। গতকাল শনিবার লস অ্যাঞ্জেলেসের সিডারস-সিনাই মেডিকেল সেন্টারে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন বিশ্বখ্যাত এই উপস্থাপক। ৮৭ বছর বয়সের মধ্যে প্রায় ৬৩ বছর গণমাধ্যমের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন তিনি। খবর বিবিসি ও সিএনএনের।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ল্যারি কিংয়ের অফিসিয়াল অ্যাকাউন্ট থেকে তার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করা হয়। এক বিবৃতিতে বলা হয়, দীর্ঘ ৬৩ বছর ধরে রেডিও, টেলিভিশন, ডিজিটাল মিডিয়াসহ বিভিন্ন প্ল্যাটফর্মে ল্যারি কিং হাজারো সাক্ষাৎকার নিয়েছেন। পেয়েছেন অসংখ্য পুরস্কার। ল্যারির অনন্য অর্জন তাকে সম্প্রচার মাধ্যমের দিকপাল হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে। তার উল্লেখযোগ্য পুরস্কারের মধ্যে রয়েছে পিবডি ও এমি অ্যাওয়ার্ড।

সত্তরের দশকে ল্যারি কিং বাণিজ্যিক নেটওয়ার্ক 'মিউচুয়াল ব্রডকাস্টিং সিস্টেম'-এ রেডিও অনুষ্ঠান 'দ্য ল্যারি কিং শো' করে জনপ্রিয়তা অর্জন করেন। এরপর ১৯৮৫ থেকে ২০১০ সালের মধ্যে 'ল্যারি কিং লাইভ অন সিএনএন' নামের অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করেন। রাজনীতিবিদ, ক্রীড়াবিদ, বিনোদন জগতের তারকা, ষড়যন্ত্রতত্ত্বের প্রবক্তাসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার বিশিষ্টজনের সাক্ষাৎকার নিয়েছেন তিনি।

মন্তব্য করুন