হংকং-তাইওয়ান ইস্যু

যুক্তরাষ্ট্রকে হস্তক্ষেপ বন্ধের আহ্বান চীনের

প্রকাশ: ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১

সমকাল ডেস্ক

হংকং, তাইওয়ান ও জিনজিয়াংয়ের বিষয়ে হস্তক্ষেপ বন্ধ করতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই। বেইজিংয়ের ওপর জারি করা অন্যায্য নিষেধাজ্ঞাও প্রত্যাহারের দাবি জানান তিনি। গতকাল সোমবার বেইজিংয়ে এক আলোচনা সভায় এই আহ্বান জানান ওয়াং ই। খবর এএফপি ও রয়টার্সের।

প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন নেতৃত্বাধীন যুক্তরাষ্ট্রের নতুন প্রশাসনের সঙ্গে সম্পর্ক নবরূপে ঢেলে সাজাতে চায় চীন। এ লক্ষ্যে বাইডেন প্রশাসনকে বেইজিংয়ের সঙ্গে আলোচনা শুরু করার আহ্বান জানিয়ে ওয়াং ই বলেছেন, 'যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের অধীনে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের যে ক্ষতি হয়েছে সেখান থেকে বেরিয়ে আসতে এবং সম্পর্ক পুনঃস্থাপনে আলোচনায় আগ্রহী বেইজিং।'

গতকাল চীনের প্রযুক্তিবিষয়ক খাতের ওপর জারি করা নিষেধাজ্ঞাও প্রত্যাহারের দাবি জানান তিনি। ওয়াং ই বলেন, ট্রাম্প প্রশাসনের দমননীতির অংশ হিসেবে চীনের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছিল। এতে বেইজিংয়ের অপূরণীয় ক্ষতি হয়েছে।' এ সময় তিনি চীনের পণ্যের ওপর থেকে ট্রাম্প আমলে আরোপিত শুল্ক্ক প্রত্যাহারের আহ্বান জানান।

চীনের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে ওয়াশিংটনের হস্তক্ষেপ বন্ধের আহ্বান জানিয়ে ওয়াং ই বলেছেন, 'কয়েক বছরে কার্যত সব পর্যায়ের দ্বিপক্ষীয় আলোচনা বন্ধ করে রেখেছে যুক্তরাষ্ট্র। আমরা ওয়াশিংটনের সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপন ও সমস্যা সমাধানে প্রস্তুত।'

ওয়াং বলেছেন, 'বিশ্ব বাস্তবতায় যুক্তরাষ্ট্রকে প্রতিস্থাপিত বা চ্যালেঞ্জ করার কোনো ইচ্ছা নেই চীনের। আমরা চাই যুক্তরাষ্ট্র চীনের সার্বভৌমত্ব, নিরাপত্তা এবং হংকং, তিব্বত ও জিনজিয়াংয়ের মতো অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ না করুক।'

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এবং চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের মধ্যে যে ফোনালাপ হয়েছে, তাকে ইতিবাচক পদক্ষেপ বলে উল্লেখ করেন ইয়াং ই।

এই প্রস্তাবগুলো এমন এক সময়ে এলো, যখন কয়েক দশকের মধ্যে দুই দেশের মধ্যকার সম্পর্ক একেবারে তলানিতে পৌঁছেছে। বাণিজ্যসহ বিভিন্ন ইস্যুতে তাদের মধ্যে বিরোধ সৃষ্টি হয়েছে। তার মধ্যে বাণিজ্য বাদেও শিনজিয়াং প্রদেশে মুসলিম সংখ্যালঘু উইঘুরদের বিরুদ্ধে মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগ, দক্ষিণ চীন সাগরে নিজেদের আধিপত্য বিস্তার, হংকং, তাইওয়ান ইস্যুর মতো বিষয়েও ব্যাপক বিরোধ রয়েছে।