ছেলের বিয়ের আসরে হবু পুত্রবধূর হাতের জন্মদাগের ওপর চোখ আটকে গিয়েছিল চীনের এক নারীর। এর পরই ওই নারীর মনে পড়ে যায়, তার হারিয়ে যাওয়া একটা ছোট্ট মেয়ের হাতের কথা, যার হাতে এমনই দাগ ছিল। কালক্ষেপণ না করেই ছুটে যান মেয়েটির মা-বাবার কাছে। জানতে চান, মেয়েটি কি আদৌ তাদের নিজেদের সন্তান নাকি দত্তক নেওয়া।

৩১ মার্চ চীনের চিয়াংসু প্রদেশের সুচোউ শহরের এ ঘটনা সিনেমার কাহিনির চেয়ে কম রোমাঞ্চকর নয়। দুই দশক আগে কোনো এক দুর্ঘটনায় নিজের তিন বছরের মেয়েকে হারিয়ে ফেলেছিলেন ওই নারী।

সম্প্রতি ওই নারীর ছেলের বিয়ে ঠিক হয়। হবু পুত্রবধূর হাতের জন্মদাগ দেখে তার মা-বাবার কাছে তিনি জিজ্ঞেস করলেন, 'আপনাদের মেয়েকে কি দত্তক নিয়েছিলেন?' এতে অবাক হন সেই দম্পতি। কুড়ি বছর আগে রাস্তা থেকে একটি শিশুকে তুলে এনে নিজেদের মেয়ের মতো লালন-পালন করেছেন তারা। তবে সে কথা কেউ জানত না, এমনকি ওই মেয়েও না।

তাদের উত্তরে ছেলের মা বুঝতে পারেন, ওই মেয়েই তাদের হারিয়ে যাওয়া সেই মেয়ে। আর হারানো মাকে ফিরে পেয়ে হাউমাউ করে কাঁদছেন মেয়েটি। কয়েক মিনিট পর কনের হুঁশ ফেরে। এ বিয়ে তো তাহলে অসম্ভব। বর যে তার আপন ভাই! তবে ছেলেটি তার গর্ভজাত সন্তান নয়। মেয়েকে খুঁজে না পেয়ে এই ছেলেকে দত্তক নিয়েছিলেন তিনি। যেহেতু দু'জনের মধ্যে কোনো রক্তের সম্পর্ক নেই, তাই এই বিয়ে হতেও বাধা নেই। এরপর তাদের বিয়ে হয়। খবর দ্য ডেইলি মেইলের।

মন্তব্য করুন