ভূমিকম্প ও সুনামিতে ধ্বংস হওয়া ফুকুশিমা পারমাণবিক কেন্দ্র থেকে ১০ লাখ টনেরও বেশি দূষিত পানি শোধন করে সাগরে ছাড়বে জাপান। গতকাল মঙ্গলবার দেশটির সরকার এ ঘোষণা দেওয়ার পর বিষয়টি নিয়ে কড়া প্রতিক্রিয়া পাওয়া গেছে। চীন বলছে, জাপানের এমন সিদ্ধান্ত অত্যন্ত দায়িত্বজ্ঞানহীন। খবর এএফপির।

ফুকুশিমার দূষিত পানি শোধন ও অপসারণের কাজ কয়েক বছরেও শুরু করতে পারেনি জাপান। এখন এটি শুরু করলে তা শেষ করতেও কয়েক দশক লেগে যেতে পারে। তবে এরই মধ্যে জাপানের এই পদক্ষেপে বিতর্ক উঠেছে। এর বিপক্ষে আছে স্থানীয় জেলে সম্প্রদায়। তাদের বক্তব্য- এর ফলে তাদের ব্যবসা ক্ষতিগ্রস্ত হবে। জাপান সরকার বলছে, ফুকুশিমার তেজস্ট্ক্রিয় পানি শোধন করা হচ্ছে এবং সেই পানি সম্পূর্ণ নিরাপদ। তা থেকে তেজস্ট্ক্রিয় সব পদার্থ সরিয়ে ফেলা হয়েছে। জাপানের প্রধানমন্ত্রী ইয়োশিহিদে সুগা বলেছেন, শোধিত পানি সাগরে ছাড়ার বিষয়টি অনিবার্য ছিল। পানি নিরাপদ কিনা, সেটি নিশ্চিত হয়েই তা সাগরে ছাড়া হবে।

মন্তব্য করুন