অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি কলেজের শিক্ষার্থীরা তাদের কমনরুম থেকে ব্রিটেনের রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথের প্রতিকৃতি সরিয়ে দেওয়ার পক্ষে ভোট দিয়েছেন। ম্যাগডালেন কলেজের মিডল কমনরুমের (এমসিআর) সদস্যরা এই ছবিটিকে 'ব্রিটেনের ঔপনিবেশিক ইতিহাসের' প্রতীক বলে মনে করেন। এরপর উত্থাপিত প্রস্তাবে ছবিটি সরানোর পক্ষে মত দেন তারা। তবে শিক্ষামন্ত্রী গ্যাভিন উইলিয়ামসন ছবি সরানোর এই পদক্ষেপকে 'পুরোপুরি উদ্ভট' বলে মন্তব্য করেছেন। খবর নিউজউইক ও গার্ডিয়ানের।

সোমবারের এমসিআর কমিটির বৈঠকের পর একটি প্রস্তাব উত্থাপন করা হয়। এতে শিক্ষার্থীদের প্রতিনিধিদের মধ্যে প্রতিকৃতি সরিয়ে দেওয়ার পক্ষে ভোট দেন ১০ জন। বিপক্ষে ভোট পড়ে দুটি। আর ভোটদানে বিরত ছিলেন পাঁচজন।

প্রস্তাবে বলা হয়, ব্রিটিশ উপনিবেশভুক্ত ছিল এমন সব দেশের শিক্ষার্থীদের কাছে কমনরুমের গ্রহণযোগ্যতা বাড়ানোর জন্য এমন পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। কোনো কোনো শিক্ষার্থীর কাছে রানীর এমন প্রতিকৃতি ব্রিটিশ ঔপনিবেশিক শাসনব্যবস্থাকে স্মরণ করিয়ে দেয়। ম্যাগডালেন কলেজের প্রেসিডেন্ট ব্যারিস্টার দিনাহ রোজ বলেন, ভোটে অংশ নেওয়া শিক্ষার্থীরা কলেজের প্রতিনিধি ছিলেন না। এ সিদ্ধান্তটি কলেজ কর্তৃপক্ষের নয়, শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে নেওয়া। তবে তাদের 'বাকস্বাধীনতা' এবং 'রাজনৈতিক বিতর্কে'র অধিকারকে আমরা সমর্থন করি। টুইট বার্তায় তিনি বলেন, 'কয়েক বছর আগে, আনুমানিক ২০১৩ সালে আমরা কমনরুমটি সাজানোর জন্য রানীর একটি ছবি সেখানে টাঙিয়ে দিই।'

মন্তব্য করুন