করোনা মহামারি ঠেকাতে দেশে দেশে টিকার জন্য হাহাকার অবস্থা। অথচ যুক্তরাষ্ট্রে উল্লেখযোগ্য পরিমাণে জীবনরক্ষাকারী এই টিকা নষ্ট হচ্ছে। দেশটির ১০টি রাজ্যের তথ্য-উপাত্ত বিশ্নেষণ করে গত রোববার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে নিউইয়র্ক টাইমস।

যুক্তরাষ্ট্রে গত ডিসেম্বর থেকে গণটিকাদান কর্মসূচি শুরু হওয়ার পর থেকে জুলাই পর্যন্ত নিউজার্সি, ওহাইও, ম্যারিল্যান্ডসহ ১০টি রাজ্যে ১০ লাখের বেশি করোনার টিকার ডোজ নষ্ট হয়েছে। এর মধ্যে কিছুসংখ্যক নষ্ট হয়েছে পরিবহন ও সংরক্ষণের সময়। বাকি টিকা নষ্ট হয়েছে অব্যবহূত অবস্থায় পড়ে থাকায়।

নিউইয়র্ক টামইস বিভিন্ন রাজ্য প্রশাসন থেকে পাওয়া তথ্য বিশ্নেষণ করে দেখিয়েছে, নিউজার্সিতে ৫৩ হাজারের বেশি ডোজ নষ্ট হয়েছে। ওহাইওতে তিন লাখ ৭০ হাজার ডোজ, ম্যারিল্যান্ডে ৫০ হাজার ডোজ অব্যবহূত অবস্থায় পড়ে আছে। এগুলোর মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা।

১০ রাজ্যের তথ্য-উপাত্ত বিশ্নেষণ করে নিউইয়র্ক টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বেশ উল্লেখযোগ্য পরিমাণ টিকা নষ্ট হয়েছে। নর্থ ক্যারোলাইনা ও সাউথ ক্যারোলাইনার রাজ্য সরকারের কাছে তথ্য চেয়েও পাওয়া যায়নি। হয়তো সেখানে আরও বেশি ডোজ টিকা নষ্ট হয়েছে। এ ছাড়া কেন্দ্র সরকার সরাসরি ওষুধ কোম্পানিগুলোর কাছে টিকা পাঠানোয় সব হিসাব রাজ্য সরকারের কাছে থাকে না। ফলে নষ্ট হওয়া ডোজের পরিমাণ ঠিক কত, তা নিশ্চিত করে বলা যায় না। যুক্তরাষ্ট্রের সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন (সিডিসি) কেন্দ্রীয়ভাবে নষ্ট হওয়া ডোজের হিসাব রাখে। তবে আবেদন করেও নিউইয়র্ক টাইমস তাদের কাছ থেকে তথ্য পায়নি। সিডিসির তথ্য পেলে যুক্তরাষ্ট্রে নষ্ট হওয়া টিকার ডোজের সার্বিক চিত্র উঠে আসত। তবে নষ্ট হওয়া ডোজ দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের স্বাস্থ্য খাত যে ঝুঁকি মোকাবিলা করছে, তা স্পষ্ট হবে না। কারণ টিকা নেওয়া ব্যক্তিও অতিসংক্রামক ডেলটা ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্ত হচ্ছে। যে কারণে সম্প্রতি টিকা নেওয়া ব্যক্তিদেরও ভিড়ের মধ্যে গেলে মাস্ক পরার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

মন্তব্য করুন