শিল্প

বুনন শিল্পী ইলোরা

প্রকাশ: ০১ সেপ্টেম্বর ২০১৮      

মশিউল হক মিটু

এসএম সুলতানের অনুপ্রেরণায় ছবি আঁকার প্রতি ঝুঁকে পড়েন। সেই থেকেই তিনি চিত্রশিল্পের জগতে নতুন কিছু সৃষ্টির স্বপ্ন দেখতে থাকেন

বিশ্ববরেণ্য চিত্রশিল্পী এসএস সুলতানের জন্মভূমি নড়াইলে এবার রঙতুলির পরিবর্তে সুচ দিয়ে সুতার নিপুণ গাঁথুনিতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর পরিবারের সদস্যসহ বিশ্ববরেণ্যদের দৃষ্টিনন্দন ছবি তৈরি করে মানুষের নজর কেড়েছেন ইলোরা পারভীন। সেলাই করা ছবিতেই তিনি জীবন্ত মানুষের প্রতিচ্ছবি ফুটিয়ে তুলেছেন। রঙতুলির পরিবর্তে তিনি সুই-সুতা দিয়ে তিনি আঁকছেন ছবি। সবার সহযোগিতা পেলে একদিন বিশ্বকে জয় করতে পারবেন বলে তার প্রত্যাশা।

বিশ্ববরেণ্য চিত্রশিল্পী এসএম সুলতানের পৈতৃক নিবাস নড়াইলের মাছিমদিয়া গ্রামেই তার জন্ম। বাবা মরহুম আলহাজ হাবিবুর রহমান ছিলেন এসএম সুলতানের বাল্যবন্ধু। শৈশবকাল থেকে ইলোরার ছবি আঁকার প্রতি আগ্রহ ছিল। সঙ্গত কারণেই তিনি এসএম সুলতানের অনুপ্রেরণায় ছবি আঁকার প্রতি ঝুঁকে পড়েন। সেই থেকেই তিনি চিত্রশিল্পের জগতে নতুন কিছু সৃষ্টির স্বপ্ন দেখতে থাকেন। ২০ বছরের সাধনায় তিনি তার লালিত স্বপ্নকে বাস্তবে রূপদান করে সবাইকে অবাক করে দিয়েছেন। একটি বইয়ের কভারের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছবি দেখে দেখে ১৯৯৮ সালে সুই-সুতা দিয়ে বুননের মাধ্যমে ছবি আঁকার পথে হাঁটতে শুরু করেন। এক অসম্ভব বাস্তবতায় সুচ-সুতা দিয়ে সেলাইয়ের মাধ্যমে অবিকল রূপে বঙ্গবন্ধুর ছবিটি জীবন্ত করে তৈরির সাফলতায় তার স্বপ্নকে এগিয়ে নিতে শুরু করে। ছবিটি পরিবারের লোকজন আত্মীয়স্বজনসহ সবার প্রশংসা কুড়ালে তার উৎসাহ শতগুণে বেড়ে যায়। শুরু থেকে বর্তমানে তিনি মোট ৩৫টি শিল্পকর্ম শেষ করতে সক্ষম হয়েছেন। তার শিল্পকর্মগুলোর মধ্যে বেশি প্রাধান্য পেয়েছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, তার পরিবার ও বিশ্ববরেণ্যদের ছবি। এগুলোর মধ্যে বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারে ১৭টি চিত্রকর্ম রয়েছে। তার মধ্যে বঙ্গবন্ধু, ফজিলাতুন্নেছা মুজিব, বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বঙ্গবন্ধুর বাবা-মা, শেখ রাসেল, শেখ হাসিনা ও জয়ের হাস্যোজ্জ্বল মুখ, সুলতানা কামাল, শেখ হাসিনার পাঁচ ভাইবোনের গ্রুপ ছবি। বঙ্গবন্ধু ও তার কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে তৈরি চিত্রকর্মটির আকার হয়েছে ৩০ ইঞ্চি দৈর্ঘ্য ও ২১ ইঞ্চি প্রস্থ বিশিষ্ট।

সুই-সুতায় তৈরি শেখ রাসেলের একটি ছবি গত বছর রাসেলের জন্মদিনে ধানমণ্ডি-৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘরের অনুষ্ঠানে প্রদর্শিত হয়েছে। বঙ্গবন্ধু পরিষদের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা নিপুণ হাতে তৈরি সেই ছবি দেখে প্রশংসাও করেছেন বলে জানা গেছে।

প্রচারবিমুখ ইলোরা পারভীন সাত ভাইবোনের মধ্যে পঞ্চম। ১৯৯৮ সালে ইডেন মহিলা বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ থেকে দর্শন বিষয়ে এমএ পাস করার পর জন্মভূমি নড়াইলের মাছিমদিয়ায় ফেরেন তিনি। ১৯৯৯ সালে তিনি কালিয়া উপজেলার খড়রিয়া গ্রামের মো. ফয়জুল্লাহ বিশ্বাসের সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। পারিবারিক জীবনে দুই কন্যাসন্তানের জননী ইলোরা। তিনি তার শিল্পকর্মগুলো দর্শক তথা দেশের মানুষের সামনে আনুষ্ঠানিকভাবে তুলে ধরার ব্যবস্থা করতে পারেননি। ভবিষ্যতে এটাই তার স্বপ্ন।

ইলোরা বলেন, 'বঙ্গবন্ধুর ছবি দিয়ে আমার শিল্পকর্মের হাতেখড়ি। পারিবারিকভাবে আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত থাকার কারণে বঙ্গবন্ধু ও তার কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে চিত্রকর্মের পাশাপাশি ভাষা আন্দোলন, রায়েরবাজারের বধ্যভূমি, ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী, বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ছবি আঁকার মধ্য দিয়ে তিনি তার স্বপ্নের যাত্রা শুরু করে ছিলেন। ইলোরা বলেন, 'আমি চারুকলার ছাত্রী নই। যে ছবিগুলো আঁকছি তা আমার শখ আর সাধনা দিয়েই সম্ভব হয়েছে। এ পর্যন্ত ৪০টির বেশি ছবি আঁকার কাজ শেষ করেছি। কিন্তু সহযোগিতার অভাবে আমি তা প্রদর্শন করতে পারছি না। কেউ কেউ আমার ছবির প্রদর্শনীর সহযোগিতার আশ্বাস দিলেও তা আলোর মুখ দেখেনি। কবে পাবেন সেই সহযোগিতা তারই অপেক্ষায় আছেন। বর্তমানে তিনি '৭৫-এর ১৫ আগস্টের সব শহীদের ছবি আঁকার কাজ করছেন বলে জানিয়েছেন।

কালিয়া, নড়াইল প্রতিনিধি, সমকাল

পরবর্তী খবর পড়ুন : জন্মদিনের কেক

বদির তিন ভাই 'সেফহোমে'

বদির তিন ভাই 'সেফহোমে'

স্বেচ্ছায় আত্মসমর্পণে ইচ্ছুক ইয়াবাকারবারিরা এখন কক্সবাজারে পুলিশ হেফাজতে এক ধরনের ...

প্রবৃদ্ধির প্রথম সারিতে থাকবে বাংলাদেশ

প্রবৃদ্ধির প্রথম সারিতে থাকবে বাংলাদেশ

চলতি বছর বিশ্বের যেসব দেশে ৭ শতাংশ বা এর বেশি ...

পেশা পাল্টাচ্ছে পাঁচুপুরের কামার কুমার জেলেরা

পেশা পাল্টাচ্ছে পাঁচুপুরের কামার কুমার জেলেরা

কামারপাড়া। ভেবেছিলাম পাড়ায় ঢুকতেই হাঁপর আর লোহা পেটানোর শব্দ শোনা ...

স্বেচ্ছাশ্রমে ১০ কিলোমিটার রাস্তা

স্বেচ্ছাশ্রমে ১০ কিলোমিটার রাস্তা

'দশে মিলে করি কাজ, হারি জিতি নাহি লাজ'- এ প্রবাদটিকে ...

এমএম কলেজে নির্বাচনে বাধা গঠনতন্ত্র

এমএম কলেজে নির্বাচনে বাধা গঠনতন্ত্র

গঠনতন্ত্রের 'সামান্য বাধা'য় দেয়াল উঠেছে যশোর সরকারি মাইকেল মধুসূদন কলেজ ...

ক্রমেই বড় হচ্ছে একুশে বইমেলা

ক্রমেই বড় হচ্ছে একুশে বইমেলা

ক্রমে বিকশিত হচ্ছে প্রকাশনা শিল্প। সেইসঙ্গে প্রকাশকের সংখ্যাও বাড়ছে প্রতিবছর। ...

এক কেজি চালের দামে এক মণ ফুলকপি

এক কেজি চালের দামে এক মণ ফুলকপি

বগুড়ায় শীতকালীন সবজির বাম্পার ফলন হলেও দাম পাচ্ছেন না চাষিরা। ...

চট্টগ্রাম বন্দরের ৪ কোটি টাকাই পানিতে

চট্টগ্রাম বন্দরের ৪ কোটি টাকাই পানিতে

সাগরে ভাসমান কনটেইনার টার্মিনাল নির্মাণের সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের কাজ অনভিজ্ঞ প্রতিষ্ঠানকে ...