একটি ঘুণপোকা আমার ভেতরে বহাল
তবিয়তে কেটে যাচ্ছে অস্থিমজ্জা-হাড়
বাহিরে কাঠামো ঠিকঠাক, সাদা-কালো-লাল
সুদৃশ্য জামা জড়িয়ে অবিরাম ভাঙছি পাহাড়

শরীরের কলকব্জা নড়বড়ে অথচ নিপুণ
মোড়কে ঢাকা ক্ষয়িষ্ণু মানবীয় সাজ
আড়চোখে কেউ দেখে কেউ হেসে খুন
কারো-বা ঠোঁটের নিচে পড়ে যায় ভাঁজ

অথচ আমি জানি কতটা বিলীনপ্রবণ
চরের কিনারে জলাত্মার মোহন মিছিল
নিত্য চেয়ে দেখে আরাধ্য শঙ্খিনী মন
মানবীর কান নিয়ে ওড়ে শুধু ধূর্ত জাগতিক চিল...

মন্তব্য করুন