মঞ্চের বাইরে

মঞ্চের বাইরে

'মা তুমি আছ আমাকে ঘিরে'

প্রকাশ: ২৬ আগস্ট ২০১৪

মেহের আফরোজ চুমকিমহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী

'মধুর আমার মায়ের হাসি, মাকে মনে পড়ে'_ এ কথাগুলোর সঙ্গে 'মা' শব্দটির গভীরতা আরও বেশি অনুভব করছি মা , তুমি এ পৃথিবী থেকে আমাদের ছেড়ে চলে যাওয়ার পর। মৃত্যু তো আছেই। তারপরও তোমার মৃত্যুটা স্বাভাবিকভাবে নিতে পারছি না 'মা'। প্রতি মুহূর্তে তোমাকে অনুভব করি। বাবাকে হারানোর পর বাবা, মা এই দুই সত্তায় তোমাকে পেয়েছি। বেড়ে ওঠা, লেখাপড়া, নিজের ক্যারিয়ার, সংসার জীবন, রাজনীতিসহ জীবনে চলার পথে সব জায়গায় তোমার অনুপ্রেরণার ছোঁয়া ছিল । বর্তমান পর্যায়ে আসা এবং এ অবস্থানে থেকে যখন-যেখানে সভা সমিতি, মিটিং-মিছিলসহ যে কোনো কাজে তোমার পরামর্শ ও দোয়া নিয়ে এগিয়েছি। এমনকি কোন অনুষ্ঠানে কোন শাড়িটা পরব, বিভিন্ন অনুষ্ঠানে আমার বক্তব্য কেমন ছিল_ সেই মতামতটা তোমার মুখ থেকে শুনেছি। এতে আনন্দিত হওয়ার পাশাপাশি নিজের ত্রুটিগুলো শুধরে নেওয়ার চেষ্টা করেছি। তুমি ছাড়া খুব অসহায় লাগছে 'মা'।
আমি জানি সবার মা সবার কাছে সেরা। তবে আমার কাছে আমার মাকে সবচেয়ে সেরা 'মা' মনে হয়। আমার মা খুবই মেধাবী, ধার্মিক, কর্মঠ, নেতৃত্বশীল এবং মায়াবী ছিলেন। সেই মাকে ছেড়ে সময় কাটছে এটা ভেবে খুবই কষ্ট পাই। এখন ভাবি , পৃথিবীর যে কোনো জায়গার সন্তানরা মাকে নিয়ে কেন এত অবহেলা করে? এতদিন 'মা' শব্দটির প্রতি অনুভূতি ছিল একরকম; কিন্তু মাকে হারানোর পর সেই অনুভূতি যে কত গভীর এবং তীব্র কষ্টের তা ভাষায় প্রকাশ করতে পারব না। 'মা' শব্দটির অবহেলার কথা শুনলে মনটা খুবই খারাপ হয়ে যায়। বর্তমানে আমার ওপর গুরুদায়িত্ব এ দেশের মা জাতি ও শিশুর কল্যাণ সাধনের। আমি সেই দায়িত্ব নিষ্ঠার সঙ্গে পালন করার চেষ্টা করছি এবং করব। তারপরও দেশের সব মায়ের সন্তানদের উদ্দেশে বলব, মায়া-মমতার বন্ধনে গড়া এ দেশে একটি সন্তানও যেন মাকে অবহেলা না করে। কারণ মায়ের দায়িত্ব নিলে, সেবা-যত্ন করলে কোনো সন্তান সমস্যায় পড়বে না, বরং মায়ের দোয়া সন্তানের জীবনে সুখ, শান্তি ও সমৃদ্ধি এনে দেবে। আর একটি কথা, 'মা দিবস'টি বিদেশের মতো আমরা পালন করছি বা করব; কিন্তু আমাদের প্রতিটি দিন যেন মায়ের জন্য ভালোবাসা এবং শ্রদ্ধায় কাটে । প্রত্যেক মা দিবসে যেন আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হই যে, মাকে কোনো কষ্ট দেব না। তার প্রতি সেবা, ভালোবাসা ও নির্ভরশীলতার আশ্রয় হব। আমাদের দেশে যেসব মা অবহেলায় আছেন, বৃদ্ধাশ্রমে আছেন, সেসব মায়ের সব সন্তানকে বলব, মায়ের মতো আপন পৃথিবীতে আর কেউ হয় না। মায়ের প্রকৃত মর্যাদা মাকে দিতে হবে। তবেই সন্তান হিসেবে, মানুষ হিসেবে আমাদের জন্ম ও বেঁচে থাকা সার্থক হবে।
অনুলিখন :মাশরেখা মনা