নন্দন

নন্দন

শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ-২

শুটিং স্পট

প্রকাশ: ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

অনিন্দ্য মামুন

শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ-২

'শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ-২' চলচ্চিত্রের গানের দৃশ্যে অপু বিশ্বাস ও বাপ্পী চৌধুরী

নরসিংদীর মাধবদীতে অবস্থিত হেরিটেজ রিসোর্ট। সচরাচর এখানে শুটিং করতে তেমন কোনো টিম আসে না। অনেকে তো খবরই জানেন না এখানে এত সুন্দর একটি রিসোর্ট আছে। এ খবর জানা ছিল পরিচালক দেবাশীষ বিশ্বাসের। তার ছবির গানের শুটিংয়ের জন্য এমন একটি লোকেশনই নাকি খুঁজছিলেন তিনি। পেয়েও গেলেন। তাই এখানেই শুরু করেছেন তার নতুন ছবি 'শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ-২' এর একটি গানের চিত্রায়ন। গ্রামীণ পরিবেশ। দেখতেও ছবির মতো। রিসোর্টটির পাশেই সবুজে ঘেরা গ্রাম। মনে হয়, সদ্য বানানো কোনো ছবির শুটিং সেট। ঢাকা থেকে দেড় ঘণ্টার পথ। এই পথ পেরিয়েই শাঁ শাঁ করে গাড়ি ছুটিয়ে রিসোর্টে আসেন ছবির নায়ক বাপ্পি চৌধুরী। উনিই শ্বশুরবাড়ির এই সিক্যুয়েলের জামাই।

শুটিংয়ের শেষ দিন পরিচালক আর নায়কের আহ্বানেই যাওয়া হয় স্পটে। গিয়েই অবাক! এত সুন্দর জায়গা! ঢাকার এত কাছে! রিসোর্টে ঢুকেই চোখে পড়ে, রিসোর্টে রোমান্টিক সময় পার করেছেন চিত্রনায়ক বাপ্পি চৌধুরী ও অপু বিশ্বাস। তবে বাস্তবে নয়, শুটিংয়ের প্রয়োজনে। অপু বিশ্বাসের পরনে নীল রঙের গাউন। অপুকে দেখেই চোখ চড়ক গাছ! আরে, এত শুকিয়ে গেছেন তিনি! নায়িকা শেপে প্রায় নিয়ে এসেছেন নিজের ফিগার। নায়িকার চোখ এদিকে পড়তেই মুচকি হাসি দিয়ে অভ্যর্থনা জানালেন। সঙ্গে নায়কও। পরিচালক তখনও তাকিয়ে মনিটরের দিকে। পরিচালকের পাশেই বসে ড্যান্স কোরিওগ্রাফার হাবিব। এগিয়ে এলেন তিনি। ততক্ষণে শুটিংয়ে বিরতি। নায়ক-নায়িকার ড্রেস চেঞ্জ করতে হবে। এর বিরতির মাঝেই হলো আলাপ। নায়ক এসে প্রথম কথাটিই বললেন, জায়গা সুন্দর না? সবাই সম্মতিসূচক মাথা নেড়েন। তারা প্রশ্ন ছুড়ে দেন, কেমন লাগছে এখানে শুটিং করতে? বাপ্পি বলেন, 'শুটিং করতে ভালো লাগছে। আর যে গানটি করছি; আমার কেন যেন মনে হয়, নতুন এ আয়োজনে গানটি দর্শকরা গ্রহণ করবেন।'