নন্দন

নন্দন

আরেক পরিচয়ে

প্রকাশ: ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

আল নাহিয়ান

আরেক পরিচয়ে

আজমেরী হক বাঁধন

কোনো মন্ত্র নয়, আত্মবিশ্বাস আর মনের সঙ্গে লড়াই করে নিজেকে বদলে ফেলেছেন বাঁধন। কঠিন সময়কে পেছনে ফেলে জীবনকে সাজিয়েছেন নতুনভাবে। প্রমাণ করেছেন তিনি শুধু অভিনেতী নন, একজন সচেতন নারী, আত্মজার জন্য এক নিবেদিত মা। সবকিছুর পর এটাই আরেক পরিচয় বাঁধনের। তাই বলে ভক্তদের সঙ্গে সম্পর্কচ্ছেদ করেছেন- এটা ভাবলে ভুল হবে। বাঁধন বলতে বাঁকাচাহনি আর মুখে এক চিলতে মিষ্টি হাসির অবয়ব ভেসে ওঠে চোখের সামনে- এখনও তেমনই আছেন এই অভিনেত্রী। বরং সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে তিনি যেন আরও তরুণ হয়ে উঠেছেন। কেবল রূপলাবণ্যে নয়, অসংখ্য দর্শকের নজর কেড়েছেন তিনি নিজ অভিনয়গুণে। চিকিৎসাশাস্ত্রের সনদ পাওয়া বাঁধন অভিনয়ের পাশাপাশি উপস্থাপনা করেও ভালোবাসা কুড়িয়েছেন অনেকের। মডেল হিসেবেও তার কাজের প্রশংসা শোনা গেছে অনেকের মুখে।

তারচেয়েও বেশি আলোচনায় ছিলেন নিয়মানুবর্তিতা নিয়ে। একসময় তার বন্ধুরা বলত, 'বাঁধন তুই যেভাবে নিয়ম মেনে চলিস, তাতে পড়াশোনাটা ভালো হবে। কিন্তু মিডিয়ায় তোকে দিয়ে কিচ্ছু হবে না।' বন্ধুদের এই বলা কথা সত্য না মিথ্য তা নিয়ে খুব একটা ভাবতেন না বাঁধন। কারণ তিনি বিশ্বাস করতেন, সব কিছুর আগে পড়াশোনা। ভালোভাবে তা শেষ করতে পারলে জীবনের চলার পথটা মসৃণ হবে। তারপর কী হবে-না হবে তা ভবিষ্যৎই বলে দেবে। এই হলেন বাঁধন। যার চিন্তাচেতনা অনেকের চেয়ে আলাদা। জনপ্রিয়তাকে পুঁজি করে যে কোনো কাজ করতে নারাজ তিনি। স্রোতের জোয়ারেও গা ভাসান না। তারপরও কখনও তাকে থমকে যেতে হয়নি।

অনিন্দ্য অভিনয় দিয়েই ভালোবাসা কুড়িয়েছেন তিনি অগণিত দর্শকের। বাঁধন বলেন, 'কাজের প্রতি ভালোবাসা আর প্রতিনিয়ত নতুন করে নিজেকে উপস্থাপনের চেষ্টায় ভালো কিছু হয়। যখন থেকে মিডিয়ায় কাজ করে যাচ্ছি, এ কথাটাই মেনে চলার চেষ্টা করে গেছি। যশ-খ্যাতি সবসময় একই রকম থাকবে- এ ধারণা ভুল। সময়ের সঙ্গে প্রেক্ষাপট বদলায়। নিজেকেও তাই সময়ের সঙ্গে মানিয়ে নিতে হয়। সৎ থাকতে হয় কাজের প্রতি। তাহলেই দীর্ঘ পথ পাড়ি দেওয়া সম্ভব। লাক্স তারকা হওয়ার পর এতটা পথ পাড়ি দিতে পেরেছি এই বিশ্বাস থেকে। আগামী দিনগুলোয় এই বিশ্বাস নিয়েই কাজ করে যাব।' বাঁধনের এ কথায় স্পষ্ট, ভালো কাজের জন্য নিবেদিত না হলে ভালো কিছু আশা করাও বৃথা। শুধু অভিনয়, মডেলিং, উপস্থাপনায় নয়, ব্যক্তিজীবনেও এই বিশ্বাস ধরে রেখেছেন বাঁধন। তার কথায়, 'জীবনে সবাইকে অনেক চড়াই-উতরাই পেরোতে হয়। যারা ভয় পেয়ে পিছিয়ে আসেন, তারা নির্দিষ্ট গন্তব্যে যেতে পারেন না। আমাকেও ঝড়-ঝাপটার মুখোমুখি হতে হয়েছে। কিন্তু দমে যাইনি। লড়াই করে গেছি। নতুন করে গড়ে নিয়েছি আজকের বাঁধনকে।' তার এ কথায় সহজেই অনুমান করা যায়, কেন বাঁধন এখন তরুণ।

মনের শক্তিতে জ্বলে উঠতে পারেন বলে নন্দিত এই অভিনেত্রীকে আরও ভিন্ন ভিন্ন রূপে পর্দায় দেখার সুযোগ পাব। আমরা তাই সেই দিনগুলোর অপেক্ষায় থাকলাম।'