তুই আর ভালো হসনাই, এখন আবার কবিতা লিখস।

যার দ্বারা কিছুই হয় না শুধু তারাই কবিতা লেখে।

কবিরা ভাত পায় না, বিরিয়ানি খায়।

কবিদের চারিত্রিক ত্রুটি থাকতে পারে জানতাম, তোমার তো বন্ধু মাথায়ও কিঞ্চিৎ গণ্ডগোল আছে।

দোস্ত, তোর সৌজন্য কপিগুলো আমারে দিস। আমি বিক্রি করে তোরে ৫ শতাংশ দিব, এতেও যদি তোর কিছু লাভ হয় আরকি!

তুই যে একটা কবি এটা তোর বউ কি জানে?

কবি হইছোস ভালো কথা, আমার পাওনা টাকাগুলো দেস না কেন?

কবিরা ভাতেও মরে, শীতেও মরে।

খবরদার, বিয়ের বায়োডাটায় কবি কথাটা লিখিস না, তাহলে হয়েছে আর মেয়ে পাবি না।

আচ্ছা তোর ৮নং কবিতা জুঁইকে নিয়ে, ৯নং আঁখিকে নিয়ে, তাহলে ১০নং কাকে নিয়ে?

তুই যদি আজকে আমাকে কাচ্চি বিরিয়ানি খাওয়াস তাহলে তোর অটোগ্রাফ আমি নিতে পারি।

মানুষ বয়স হইলে বিয়ে করে, ছ্যাঁকা খাইলে কবিতা লিখে।

দোস্ত, তোর শেষের কবিতার আগের কবিতাটা অনেক জোশ হয়েছে। যদিও সময়ের অভাবে পড়তে পারিনি।

শোন, এই কবিতা-টবিতা ভালো জিনিস না, চল আইএলটিএস করে বিদেশ যাই।

তুই শুধু আমার বন্ধু বলে, না হলে তোর এই খ্যাত মার্কা কবিতা লেখার জন্য তোকে আমি ফেসবুকে আনফ্রেন্ড করে দিতাম।

আচ্ছা, কবিতা লেখে কত টাকা পাছ রে? আমার আরেক বন্ধু টিউশনি করে মাসে ১০ হাজার টাকা ইনকাম করে।

রাস্তা-ঘাটে পুলিশ ধরলে ভুলেও বলিস না তুই একজন কবি, তাহলে মাইর আরও দুই ঘা বেশিই খাবি।

কবিদের বউরা কবিতাকে হিংসা করে।

কবিরা সর্বভোগ প্রাণী, তাদের গায়ের চামড়া সাধারণত মোটা হয়।

অবলা কবিদের নিয়ে অহেতুক কৌতুক বন্ধ করুন। তাদের সাহায্যে এগিয়ে আসুন। মনে রাখবেন, কবিরাও মানুষ। হ

মন্তব্য করুন