ক্যাম্পাস

ক্যাম্পাস


সেরাদের সেরা বিইউপি

প্রকাশ: ১৪ জানুয়ারি ২০২০      

গোলাম কিবরিয়া

সেরাদের সেরা বিইউপি

অতিথিদের সঙ্গে সেরা তিন বিজয়ী দল ছবি :সংগ্রহ

দেশের বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে অনেক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়; যা একই সঙ্গে শিক্ষার্থীদের শিক্ষাজীবন ও ভবিষ্যতের পেশাগত জীবনে সাফল্য পেতে সহায়ক ভূমিকা পালন করে থাকে। এমনই একটি আয়োজন নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির এইচআর ক্লাবের এইচআর ক্যালিব্রেশন ৩.০

দেশের শিক্ষার্থীরা প্রতিনিয়ত সাফল্য নিয়ে আসে দেশের জন্য। বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে বিশ্বদরবারে দেশের সম্মানজনক অবস্থান তৈরি করে। বৈশ্বিক চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করার আগে সবাইকে প্রস্তুতি নিতে হয়। আর সেই প্রস্তুতি প্রয়োজন ঘর থেকেই। আর তার জন্যই দেশের বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে অনেক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়; যা একই সঙ্গে শিক্ষার্থীদের শিক্ষাজীবন ও ভবিষ্যতের পেশাগত জীবনে সাফল্য পেতে সহায়ক ভূমিকা পালন করে থাকে। এমনই একটি আয়োজন নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির এইচআর ক্লাবের এইচআর ক্যালিব্রেশন ৩.০। নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের এইচআর ক্লাবের উদ্যোগে তৃতীয়বারের মতো আয়োজিত হলো ক্লাবটির প্রধান ইভেন্ট, এইচআর ক্যালিব্রেশন ৩.০। এখন পর্যন্ত এটিই বাংলাদেশের অন্যতম এইচআর মডেল মেকিং প্রতিযোগিতা।

এই প্রতিযোগিতার এবারের পর্বটি গত দু'বারের তুলনায় এ বছরে আরও বড় পরিসরে আয়োজন করা হয়েছে। ২৪ নভেম্বর থেকে ৭ ডিসেম্বর পর্যন্ত অনলাইন ও অফলাইন উভয় মাধ্যমেই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারীদের নিবন্ধন কার্যক্রম অব্যাহত ছিল। ঢাকা ও ঢাকার বাইরের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রতিযোগিতাটিতে অংশগ্রহণের জন্য আগ্রহী শিক্ষার্থীদের সংখ্যা ছিল অপ্রত্যাশিত এবং অসাধারণ।

সর্বমোট ৩৮৬টি টিম অংশগ্রহণকারী হিসেবে নিবন্ধন করেছে। প্রতিযোগিতাটির প্রথম পর্ব সুষ্ঠু ও সফলভাবে ৮ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হয়েছে। অংশগ্রহণকারী প্রতিটি টিমকে প্রথম রাউন্ডের কেইস অনলাইনে (ই-মেইলের মাধ্যমে) পাঠানো হয়েছে। তারা ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সমাধান করে অনলাইনে জমা দিয়েছে।

প্রতিযোগিতাটির দ্বিতীয় পর্ব আয়োজিত হয়েছে ১৩ ডিসেম্বর। দ্বিতীয় রাউন্ডে প্রতিযোগীদের কেস প্রদান করার আগে তাদের জন্য একটি কর্মশালা আয়োজিত হয়। বিভিন্ন করপোরেট কর্মক্ষেত্রের বিশেষত্বধারী অভিজ্ঞ ব্যক্তিরা এটি পরিচালনা করেন।

কর্মশালায় তারা উত্তীর্ণ প্রতিযোগীদের সঙ্গে তাদের নিজেদের জ্ঞান এবং অভিজ্ঞতা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন। দ্বিতীয় ধাপে প্রথম পর্ব থেকে নির্বাচিত ৩৫টি দল অংশ নেয়। তাদের পুনরায় একটি কেস সমাধান করতে দেওয়া হয়। উভয় ধাপের প্রতিবন্ধকতা কাটিয়ে ওঠার পরে মাত্র নয়টি দল ফাইনাল রাউন্ডে জায়গা করে নিয়েছিল, যেখানে তাদের বাংলালিংকের জন্য কৌশলগত এইচআর মডেল তৈরি করতে বলা হয়েছিল। এরপর এই কেসের সমাধান প্রতিযোগীরা ফাইনাল রাউন্ডে বিচারকদের সামনে উপস্থাপন করেন।

চূড়ান্ত লড়াইয়ের পর তিনটি দল বিজয়ের মুকুট পরে। দ্বিতীয় রানারআপ হয় বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি প্রফেশনালসের টিম কোয়ার্টারব্যাক; তারা ৪০ হাজার টাকা জিতেছে। নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির টিম জারগন প্রথম রানারআপ পজিশনটি পেয়েছে এবং ৬০ হাজার টাকার পুরস্কার জিতেছে। গৌরবময় চ্যাম্পিয়ন হয় বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের টিম থ্রেডবার। যারা এক লাখ টাকা পুরস্কার অর্জন করে। টিম থ্রেডবারের টিম লিডার বলেন, 'এমন একটি আয়োজনের জন্য এনএসইউ এইচআর ক্লাবকে অনেক ধন্যবাদ। আমরা আমাদের অর্জনের জন্য অত্যন্ত আনন্দিত। অনেক চেষ্টা আর পরিশ্রমের ফসল আজকের এই অর্জন। এ ধরনের আয়োজন শিক্ষার্থীদের পেশাগত জীবনে সাফল্য পেতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে।'

প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়া তরুণ ইমন বলেন, 'অনেক শিক্ষার্থীদের সাথে আলাপ হয়েছে। অনেক নতুন বিষয় জেনেছি। সর্বশেষ আমার কাছে এই প্রোগ্রামের প্রতিটা দিন মনে হয়েছে নতুনভাবে নিজেকে আবিস্কার করতে শিখেছি।' অংশ নেওয়া আরেক শিক্ষার্থী সাদিয়া বলেন, প্রতিযোগিতামূলক এই বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে চলতে হলে নিজেকে অনেক দক্ষ হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। তাই এই ধরণের আয়োজনের বিকল্প নেই। এই প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে আমি অনেক কিছু জানতে ও শিখতে পেরেছি। ধন্যবাদ আয়োজকদের।'

এ প্রতিযোগিতা শিক্ষার্থীদের দায়িত্ব সম্পর্কে সচেতন করে তুলবে এবং সৃজনশীলতা বৃদ্ধির মাধ্যমে তাদের বিশ্বমানের নাগরিক হিসেবে গড়ে তুলতে ভূমিকা রাখবে বলে প্রত্যাশা আয়োজকদের।