ক্যাম্পাস

ক্যাম্পাস

সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে পড়াশোনা

প্রকাশ: ২৮ জানুয়ারি ২০২০

তারিক হাসান

পৃথিবীর প্রাচীনতম ইঞ্জিনিয়ারিং বলতে গেলে যে বিষয়টি আসে, তা হলো সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বা পুরকৌশল। সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং সভ্যতার শুরু থেকেই বিস্তার লাভ করে আসছে। এমন কোনো জায়গা নেই যেখানে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারদের ছোঁয়া লাগেনি। সবচেয়ে পুরাতন, বড় এবং সব প্রকৌশল জ্ঞানের সমন্বয় এই ইঞ্জিনিয়ারিং। ুউচ্চ ভবন, হাইওয়ে, ব্রিজ, পানি প্রকল্প, পাওয়ার প্লান্ট ইত্যাদি পরিকল্পনা, ডিজাইন, গঠন এবং রক্ষণাবেক্ষণ করার কাজ করেন সিভিল ইঞ্জিনিয়ার। তারা জরিপের কাজ করে থাকেন, প্রযুক্তিগত প্রতিবেদন দেন, এমনকি প্রকল্প ব্যবস্থাপকের কাজও করে থাকেন। এ চাহিদার কথা মাথায় রেখে এই প্রোগ্রাম চালু করেছে ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি। ১৯৯৫ সালে এই ইউনিভার্সিটি প্রতিষ্ঠিত হয়। বর্তমানে এ ইউনিভার্সিটির ছাত্রছাত্রীর সংখ্যা ৭ সহস্রাধিক। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ৪ শতাধিক শিক্ষার্থী এখানে পড়াশোনা করছেন। প্রোগ্রামটির তত্ত্বাবধানে রয়েছেন অধ্যাপক গণেশচন্দ্র রায়। তিনি জানান, এ কোর্সের জন্য উন্নত গ্রন্থাগার ম্যাটেরিয়ালস ল্যাব, সার্ভেইং ল্যাব, কম্পিউটার ল্যাব, এনভায়রনমেন্ট ল্যাব চালু করা হয়েছে, ছাত্রছাত্রীরা যাতে একজন পেশাদার প্রকৌশলী হিসেবে গড়ে উঠতে পারেন, তার জন্য এখানে সব ধরনের শিক্ষা দেওয়া হবে, যাতে তারা বর্তমান কর্মক্ষেত্রে প্রতিযোগিতার বাজারে টিকে থাকতে পারেন।

প্রোগ্রামটির ফি ধরা হয়েছে মাত্র ৩ লাখ ২০ হাজার টাকা। সান্ধ্যকালীন কোর্সের জন্য ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা। ইউনিভার্সিটিতে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ২০১০-এর আইন অনুযায়ী, দরিদ্র, মেধাবী ও মুক্তিযোদ্ধা সন্তানদের বৃত্তি দেওয়া হয়। এ ছাড়া যারা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষায় সর্বোচ্চ নম্বরপ্রাপ্ত, তাদের বিনা বেতনে অধ্যয়নের সুযোগ রয়েছে। সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে ভর্তিকৃত ছাত্র আমিনুল ইসলাম বলেন, এখানে ভর্তি হয়ে খুবই ভালো লাগছে। আরও ভালো লাগছে, স্থায়ী ক্যাম্পাস ও মনোরম পরিবেশ।

যোগাযোগ :সাঁতারকুল, বাড্ডা, ঢাকা। ফোন :০১৯৩৯৮৫১০৬০৬৬। গ্রিন রোড, ঢাকা। ফোন:০১৬১১৩৪৮৩৪৪-৮। বাড়ি-০৪, সড়ক-০১, ব্লক-এফ, বনানী, ঢাকা। ফোন : ০১৯৩৯৮৫১০৬১-৪।  www.diu.ac