ক্যাম্পাস

ক্যাম্পাস


জমজমাট বিতর্ক উৎসব

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়

প্রকাশ: ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০      

আবদুল্লাহ আল মাছুম

জমজমাট বিতর্ক উৎসব

প্রতিযোগিতার বিজয়ী শিক্ষার্থীরা ৩ ছবি :সংগ্রহ

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের মুক্তমঞ্চে চলছে আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় বিতর্ক প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত পর্ব। 'একজন উচ্চবিত্তের পরিবারের শিক্ষার্থীর পক্ষে দেশের বিভিন্ন প্রান্তের বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা দেওয়া সম্ভব। কিন্তু একজন সুবিধাবঞ্চিত শিক্ষার্থীর পক্ষে সেটি সম্ভব নয়। সুতরাং বৈষম্য রুখতে বিশ্ববিদ্যালয়ের সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষাকে সমর্থন করি'- সংসদীয় বিতর্কের চূড়ান্ত পর্বে এমন যুক্তি দিচ্ছেন সরকারি দলের শিক্ষামন্ত্রী ওমর রাদ। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ডিবেটিং সোসাইটির বিতার্কিক। বিতর্কের বিষয় বিষয় ছিল- 'এ সংসদ, বিশ্ববিদ্যালয়ের সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষাকে সমর্থন করে'। বিলের বিপক্ষে পাল্টা যুক্তি উপস্থাপন করে খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ডিবেটিং সোসাইটি। এভাবে যুক্তি, পাল্টা যুক্তি ও খণ্ডনের লড়াইয়ে হেরে যায় 'কেডিএস'। চ্যাম্পিয়ন হয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ডিবেটিং সোসাইটির বিতার্কিক দল 'অপরাজেয় বাংলা'।

'তফাৎ হোক শিরদাঁড়ায়'- এ স্লোগানকে ধারণ করে গত ৩১ জানুয়ারি থেকে ১৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত 'জাতীয় বিতর্ক উৎসব-২০২০'-এর আয়োজন করে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ডিবেট অর্গানাইজেশন। আয়োজনে ছিল ১৫তম আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় বিতর্ক প্রতিযোগিতা, নবম আন্তঃকলেজ বিতর্ক প্রতিযোগিতা, নবম আন্তঃস্কুল বিতর্ক প্রতিযোগিতা। প্রতিযোগিতায় কলেজ পর্যায়ে মোট ২২টি কলেজের বিতর্ক দল এবং বিশ্ববিদ্যালয় ও স্কুলের ৩২টি করে দল অংশগ্রহণ করে। প্রতিযোগিতায় বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে চ্যাম্পিয়ন হয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ডিবেটিং সোসাইটি। চ্যাম্পিয়ন দলের হয়ে বিতর্কে অংশ নেন ওমর রাদ, আরিফুল হাসান পার্থ, শাহরিয়ার আহমেদ। প্রতিযোগিতায় সেরা বিতার্কিক নির্বাচিত হয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শাহরিয়ার আহমেদ। 'ডিবেটার অব দ্য ফাইনাল' হন একই বিশ্ববিদ্যালয়ের ওমর রাদ। ওমর বলেন, 'জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ডিবেট অর্গানাইজেশন' ঐতিহ্যবাহী সংগঠন। তাদের আয়োজনে এই জাতীয় টুর্নামেন্টের খ্যাতি বিতার্কিকদের মধ্যে রয়েছে। 'কলেজ পর্যায়ে চূড়ান্ত পর্বে বিতর্ক করে শহীদ আনোয়ার গার্লস ডিবেটিং ক্লাব ও ঢাকা কমার্স কলেজ ডিবেটিং সোসাইটি। যুক্তির লড়াইয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় ঢাকা কমার্স কলেজের বিতার্কিক দল। 'ডিবেটার অব দ্য ফাইনাল' হয়েছেন চ্যাম্পিয়ন দলের বিতার্কিক ফয়সাল মাহী। বিজয়ের অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে মাহী বলেন, 'বিতর্ক হয়েছে সংসদীয় ধারায়। আমরা সেমিফাইনালে রাজউক উত্তরা মডেল কলেজকে হারিয়ে ফাইনালের সুযোগ পাই। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো জায়গায় চ্যাম্পিয়ন হওয়ার অনুভূতি ভিন্নরকম।' প্রতিযোগিতা স্কুল পর্যায়ে চ্যাম্পিয়ন হয় আদমজী ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল ডিবেটিং ক্লাবের ৪নং বিতার্কিক দল। রানার্সআপ হয় একই স্কুলের ৩নং বিতার্কিক দল। মুহাইমিন বিন আশরাফ 'ডিবেটার অব দ্য ফাইনাল' ও আবরার হাসিন 'ডিবেটার অব দ্য টুর্নামেন্ট' নির্বাচিত হয়েছেন। তারা দু'জনই আদমজী ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুলের শিক্ষার্থী।

চূড়ান্ত পর্বের অনুষ্ঠানে অতিথিদের মধ্যে ছিলেন ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের (টিআইবি) নির্বাহী পরিচালক ইফতেখারুজ্জামান।

এ ছাড়া আয়োজনের মধ্যে জাতীয় পাবলিক স্পিকিং প্রতিযোগিতায় রোকেয়া আশা ও বারোয়ারি বিতর্ক প্রতিযোগিতায় হাসান মাহমুদ সম্রাট চ্যাম্পিয়ন হয়। আয়োজনের সমাপনী অনুষ্ঠানের আকর্ষণ ছিল আঞ্চলিক রম্য বিতর্ক প্রদর্শনী। আয়োজনের আহ্বায়ক ও সংগঠনটির সভাপতি তাজরীন ইসলাম তন্বী বলেন, 'জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ডিবেট অর্গানাইজেশন-এর ৮০ জনের বেশি সদস্য অক্লান্ত পরিশ্রমের মাধ্যমে সফল আয়োজন সম্পন্ন করেছে। সারাদেশ থেকে স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় অংশ নেওয়ায় এবারের আয়োজন অন্যবারের আয়োজনকে ছাড়িয়ে গেছে।'া