ক্যাম্পাস

ক্যাম্পাস

এগিয়ে নিয়ে যেতে কো-লার্নিং

প্রকাশ: ২৭ জুলাই ২০২০

সানজিদা ইমু

করোনা-পরবর্তী চাকরি বাজারের চ্যালেঞ্জ অনুযায়ী শিক্ষার্থী এবং তরুণ পেশাদারদের নিজেদের দক্ষ হিসেবে গড়ে তোলার লক্ষ্যে ইন্টারেক্টিভ কেয়ারস ১৫টি সিরিজ ওয়েবিনারের আয়োজন করেছে।

বর্তমান মহামারি, কভিড-১৯ প্রাদুর্ভাব, চাকরির বাজারে নিজের জন্য জায়গা তৈরি করার বিশেষ দক্ষতার দিক দিয়ে নিজেকে আরও উন্নত করার জন্য, নিজেকে অনন্য উচ্চতায় উপস্থাপন করার জন্য, শিক্ষার্থী এবং তরুণ পেশাদারদের মধ্যে একরকম আগ্রহ কাজ করছে। মহামারি-পরবর্তী চাকরির বাজারটিতে নিয়োগের ক্ষেত্র অনেক প্রতিযোগিতামূলক হবে। এই কথাটি মাথায় রেখে, ইন্টারেক্টিভ কেয়ারস কো-লার্নিং নামক বিভিন্ন দক্ষতার ওপর একাধিক ওয়েবিনার পরিচালনা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

ইন্টারেক্টিভ কেয়ারস হলো দেশের প্রথম প্রতিষ্ঠান, যা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা বা এআই এবং ক্লাউড প্ল্যাটফরম নিয়ে কাজ করছে। সঠিক সময়ে যোগাযোগের মাধ্যমে গ্রাহকদের ই-লার্নিং, স্বাস্থ্য, মানসিক স্বাস্থ্য এবং আইনি সেবাভিত্তিক প্ল্যাটফরম হলো ইন্টারেক্টিভ কেয়ারস। এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে গ্রাহকরা চারটি উল্লিখিত সেবার জন্য সহজেই নিবন্ধন করতে এবং অনুসন্ধান করতে পারবেন। তারা সরাসরি তাদের সঙ্গে চ্যাট, ভয়েস কল এবং ভিডিও কল করতে পারবেন।

এ ছাড়া গ্রাহকদের জন্য ভার্চুয়াল হোয়াইট বোর্ড, অটোমেটেড প্রেসক্রিপশন সিস্টেম থাকবে। এটি আমাদের দেশে সম্পূর্ণ নতুন। এর মাধ্যমে বিশেষজ্ঞরা অবস্থান বা সময় নির্বিশেষে সবাইকে সেবা প্রদান করতে পারবেন। ভার্চুয়াল হোয়াইট বোর্ড ব্যবহারের মাধ্যমে বিশেষজ্ঞরা সহজেই স্ট্ক্রিনে হোয়াইট বোর্ড ব্যবহার করে ব্যবহারকারীর কাছে জিনিসগুলো সহজে বুঝতে পারবেন। সেশনটি আরও সহজ করার জন্য তারা সেখানে লিখতে পারবেন- বলেন প্রতিষ্ঠানটির সিইও রেয়ার আল সামির।

তিনি আরও বলেন, অটোমেটেড প্রেসক্রিপশন চিকিৎসক এবং রোগীদের জন্য সেবা সহজ করে তুলবে। উন্মুক্ত প্রশ্ন জিজ্ঞাসার প্ল্যাটফরম ইজি আস্ক থাকবে যেখানে ব্যবহারকারীরা তাদের প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করতে এবং বিশেষজ্ঞদের কাছ থেকে উত্তর পেতে পারবেন। এ ছাড়া বই, সমাধান, নোট, লেকচার বিনামূল্যে ডাউনলোড করতে পারবেন। অফিসিয়াল ওয়েবসাইটটি হলোwww.interactivecares.com ইন্টারেকটিভ কেয়ারস আয়োজিত কো-লার্নের ওয়েবিনারগুলো বিশেষজ্ঞরা নেবেন, যারা তাদের কঠোর পরিশ্রম এবং দক্ষতার মাধ্যমে নিজেদের জন্য জায়গা তৈরি করেছেন এবং এখন তাদের দক্ষতা বর্তমান তরুণ পেশাদার এবং শিক্ষার্থীদের কাছে পৌঁছে দিতে চান। সেশনগুলো জুমে পরিচালনা করা হবে এবং এটি ফেসবুক লাইভের মাধ্যমেও করা হবে। ওয়েবিনারের সব অংশগ্রহণকারী সার্টিফিকেট পাবেন।

জাভাস্ট্ক্রিপ্টের পরিচিতি, পারসোনাল ব্র্যান্ডিং, কেস সলিউশন, ইন্টারভিউ স্কিলস, ফটোগ্রাফি, ক্রিয়েটিভ রাইটিং, কমিউনিকেশন ও নেটওয়ার্কিং, উদ্যোক্তা, উপস্থাপনা, ইউটিউবিং, প্রেজেনটেশন স্কিলস, লিডারশিপ ইত্যাদির মতো

বিভিন্ন দক্ষতার ওপরে ১৫টি ওয়েবিনার থাকবে।