ক্যাম্পাস

ক্যাম্পাস

আইইএলটিএস

এগিয়ে রাখবে একধাপ

প্রকাশ: ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২০

গোলাম কিবরিয়া/সানজিদা ইমু

এগিয়ে রাখবে একধাপ

রাইটিংয়ে সাধারণত যাচাই করা হয় আপনি কতটুকু কল্পনাশক্তি খাটাতে পারেন ৩ ছবি :সংগ্রহ

অ্যাকাডেমিক ও জেনারেল ট্রেনিং- দুই ধরনের হয় পরীক্ষাটি। পরীক্ষায় বসার আগে ভালোভাবে বুঝে নিন কোন মডিউলটি আপনার জন্য প্রযোজ্য। আইইএলটিএস পরীক্ষায় দুই ধরনের মডিউলেই চারটি অংশ থাকে- লিসেনিং, রিডিং, রাইটিং ও স্পিকিং। লিসেনিং ও স্পিকিং অংশটি দুটি মডিউলেই একইরকম। লিসেনিং, রাইটিং এবং রিডিং পরীক্ষা হবে একই দিনে কোনোরকম বিরতি ছাড়া

ইন্টারন্যাশনাল ইংলিশ ল্যাঙ্গুয়েজ টেস্টিং সিস্টেম (IELTS) বিশ্বের সব থেকে জনপ্রিয় ইংরেজি ভাষার পরীক্ষা। ভাষাগত মূল্যায়নে বিশ্বের কিছু অগ্রণী বিশেষজ্ঞ পরীক্ষাটি তৈরি করেছেন এবং এতে আপনার ইংরেজির সবক'টি দক্ষতা- রিডিং, রাইটিং, স্পিকিং ও লিসেনিং মূল্যায়ন করা হয়।

বিদেশে পড়াশোনা, কাজ করা এবং বাস করা

আইইএলটিএস ১৪০টির বেশি দেশে ১০ হাজারের বেশি সংগঠনের দ্বারা স্বীকৃত। এই সংগঠনগুলোর মধ্যে সরকারি, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এবং শুধু যুক্তরাষ্ট্রেই ৩ হাজার নিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান রয়েছে।

বেশিরভাগ দেশেই যেখানে ইংরেজিই প্রধান ভাষা, সেখানে আপনাকে চাকরি ও বিশ্ববিদ্যালয়ের কোর্সের জন্য আবেদন করতে ইংরেজি ভাষায় দক্ষতার প্রমাণ দেখাতে আইইএলটিএস আপনাকে সাহায্য করবে। আইইএলটিএস পরীক্ষা দিয়ে ইংরেজি ভাষার দক্ষতা প্রমাণ করা আপনাকে নিজের দেশেও আরও ভালো চাকরি বা পদোন্নতি পেতে সাহায্য করতে পারে।

পরীক্ষার পদ্ধতি :একাডেমিক ও জেনারেল ট্রেনিং- দুই ধরনের হয় পরীক্ষাটি। পরীক্ষায় বসার আগে ভালোভাবে বুঝে নিন কোন মডিউলটি আপনার জন্য প্রযোজ্য। আইইএলটিএস পরীক্ষায় দুই ধরনের মডিউলেই চারটি অংশ থাকে- লিসেনিং, রিডিং, রাইটিং ও স্পিকিং। লিসেনিং ও স্পিকিং অংশটি দুটি মডিউলেই একই রকম। লিসেনিং, রাইটিং এবং রিডিং পরীক্ষা হবে একই দিনে কোনোরকম বিরতি ছাড়া। তবে স্পিকিং পরীক্ষা হবে এক সপ্তাহ আগে অথবা পরে। পরীক্ষার আগে দিন-তারিখ জানিয়ে দেওয়া হবে। মানে আপনাকে দু'দিন পরীক্ষা দিতে হবে। পরীক্ষার সময়সীমা মোট ২ ঘণ্টা ৪৫ মিনিট।

রাইটিং

রাইটিংয়ে সাধারণত যাচাই করা হয় আপনি কতটুকু কল্পনাশক্তি খাটাতে পারেন। এক ঘণ্টার মাঝে আপনাকে দুটি প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে। প্রথম প্রশ্নে একটি গ্রাফ, চার্ট, ডায়াগ্রাম অথবা ম্যাপ দেওয়া থাকবে। সেটি দেখে আপনাকে বিশ্নেষণ করতে হবে। দ্বিতীয় প্রশ্নে একটি আর্গুমেন্ট অথবা স্টেটমেন্ট দেওয়া থাকে যেটির পক্ষে-বিপক্ষে আপনাকে যুক্তি উপস্থাপন করতে হবে। বলে রাখা ভালো, দ্বিতীয় প্রশ্নে প্রথম প্রশ্নের চেয়ে প্রায় দ্বিগুণ নম্বর থাকে। তাই এ প্রশ্নের উত্তর আগে দেওয়াই ভালো। প্রথম প্রশ্নের জন্য ২০ মিনিট সময় ব্যয় করতে পারেন। প্রথম প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে ১৫০ শব্দের মাঝে। অপরদিকে দ্বিতীয় প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে ২৫০ শব্দের ভেতরে। আপনি চাইলে শব্দসীমার বাইরেও কিছু লিখতে পারেন, তবে কোনোভাবেই কম লেখা যাবে না। তাহলে নাম্বার কাটা যাবে। অ্যাকাডেমিক এবং জেনারেল ট্রেনিংয়ের রাইটিংয়ে প্রথম প্রশ্নে একটু পার্থক্য আছে। জেনারেলের ক্ষেত্রে ডায়াগ্রাম, চার্ট ইত্যাদির জায়গায় একটি চিঠি লিখতে হয়; সেটি ফরমাল, ইনফরমাল অথবা পার্সোনাল হতে পারে। দ্বিতীয় প্রশ্ন দুই মডিউলে একই।

স্পিকিং -

আপনি কতটুকু গুছিয়ে আর কতটা সাবলীলভাবে

ইংরেজি বলতে পারেন, এই টেস্টের মাধ্যমে সেটিই যাচাই করা হয়। একজন ট্রেইনারের সঙ্গে আপনার কথোপকথন করতে হবে। এই পরীক্ষাটি ৩টি অংশে ভাগ করা যায়। প্রথম অংশে আপনার ব্যক্তিগত কিছু বিষয়ে জানতে চাইবে। যেমন- আপনি থাকেন কোথায়, আপনার পছন্দের রঙ কোনটি, আপনার শহরের বিবরণ অথবা কীভাবে আপনি বাসা থেকে পরীক্ষার হলে পৌঁছেছেন। অর্থাৎ খুব সাধারণ কিছু প্রশ্ন করবে। তারপর দ্বিতীয় অংশে আপনাকে কাগজ-কলম দেবে আর একটি টপিক ঠিক করে দেবে যেটি নিয়ে আপনাকে কিছু বলতে হবে। টপিক দেওয়ার পর আপনাকে এক-দেড় মিনিটের মতো সময় দেবে কাগজে নোট নেওয়ার জন্য। তারপর আপনাকে টপিকের ওপর মোটামুটি দুই মিনিটের মতো বলতে হবে। মনে রাখবেন, ২ মিনিট শেষ হয়ে গেলেও ট্রেইনার আপনাকে না থামতে বলার আগে না থামাই ভালো। এরপর তৃতীয় এপিসোডে আপনাকে যে টপিক দিয়েছিল, সেটির সঙ্গে সম্পর্কিত কিছু প্রশ্ন করবে আর সেগুলোর উত্তর দিতে হবে।