ক্যাম্পাস

ক্যাম্পাস

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়

লাল বাসকে মিস করছি

প্রকাশ: ১৯ অক্টোবর ২০২০

তোফায়েল পাঠান শান্ত

'লাল বাসের গেটের সেই পুরোনো জটলা। একঝাঁক বেসুরা গলায় সুর তোলার প্রাণান্ত চেষ্টা। ক্যাম্পাস লাইফ নিয়ে কথা বলতে গেলে সর্বপ্রথম যে নস্টালজিয়া কাজ করে, তা হচ্ছে প্রাণপ্রিয় লাল বাস! করোনা মহামারিতে জীবনযাত্রা স্থবির হয়েছে সত্য, কিন্তু এখনও প্রায়ই মনে হয় একবারের জন্য হলেও যদি ওই পরিবেশে ফিরে যেতে পারতাম! বাসের সময়গুলো আসলেই মিস করছি খুব!' কথাগুলো অকপটে বলছিলেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজ বিভাগের শিক্ষার্থী রাকিবুল হুদা রনি।

ভার্সিটি বাসকেন্দ্রিক সময়গুলো কেমন ছিল এবং কতটা মিস করছে?- এমন প্রশ্নে একই বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেটিং বিভাগের ওয়াহেদ প্রিতম বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় জীবনের অন্যতম ভালোবাসা হলো লাল বাস। সারাদিন ক্লাস, পরীক্ষা শেষে যখন ক্লান্ত-শ্রান্ত দেহে দুর্জয় বাসে উঠে বাসার উদ্দেশে রওনা দিতাম, সব ক্লান্তি বেমালুম উবে যেত। গান-বাজনা, হৈহুল্লোড়, সিনিয়র-জুনিয়র খুনসুটি করতে করতে কখন যে নেমে যাওয়ার সময় চলে আসত, টেরই পেতাম না!

খুব মিস করি বাসের সময়গুলো, আড্ডা এবং 'দুর্জয়ের' পাইলট মকবুল মামাকে!

এদিকে, বাংলা ভাষা এবং সাহিত্য বিভাগের সুমাইয়া তাসনিন নিহার মতে, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে চান্স পাওয়ার পর প্রথম যে বিষয়টি আমার হৃদয় ছুঁয়েছিল, তা হলো ভার্সিটির 'অনির্বাণ' বাসে করে ক্যাম্পাসে যাওয়া-আসা। সেই উদ্যম ছুটে চলা, দরজায় দাঁড়িয়ে বন্ধুদের গান শোনা, মাঝে মাঝে নিজে গিয়ে গান ধরা, আড্ডা ও জুনিয়র-সিনিয়রদের মধ্যে বন্ধুত্বপূর্ণ সবকিছুই যেন আমাকে খুব তাড়া করছে। ভীষণ মিস করছি লাল বাসকে।

নাট্যকলা বিভাগের মৌমিতা মিষ্টি তমা বলেন, বাসের গেটে সিনিয়র-জুনিয়র ভাইদের গান শুনতে শুনতে বাসায় ফেরা ও আমাদের বাসের চালক মকবুল মামার কথা খুব মনে পড়ে। মোটকথা, বাসের আড্ডা, বন্ধুবান্ধব, লাল বাস- সবকিছুই এই ঘরবন্দি জীবনে মিস করছি। একই বিভাগের সুকন্যা হূদি আরও যোগ করে বলেন, জবির ভার্সিটি ডেতে সকালবেলা সবাই সেজেগুজে লাল বাসে করে আনন্দ করতে করতে ক্যাম্পাস যেতাম, এবার তা খুবই মনে পড়ছে। ইংরেজি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের সুমন রহমান মনে করেন, ক্যাম্পাস লাইফের এই চার বছরে ডিপার্টমেন্টের পর আমি সবচেয়ে বেশি মিস করি আমার জগন্নাথের 'স্বপ্নিল' নামের দোতলা লাল বাসটি। জবির লাল বাসগুলোতে একসঙ্গে গান গাওয়া, আড্ডা দেওয়া, সিনিয়র-জুনিয়রদের মধ্যে আন্তরিকতা এবং ভালোবাসার সম্পর্কগুলো সত্যি খুবই মিস করছি।

তাড়াতাড়ি সবকিছু ঠিক হোক- সেটাই প্রত্যাশা এবং আবার একসঙ্গে সবাই গান গাইতে গাইতে জবির লাল বাস মাতাব, সুদিনের প্রতীক্ষায় ...। া