ক্যাম্পাস

ক্যাম্পাস

কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ

মেধাবীদের জন্য বিভিন্ন সুযোগ

প্রকাশ: ২৬ অক্টোবর ২০২০

জাভেদ ইকবাল

কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ বিশ্বমানের নিজস্ব আধুনিক ক্যাম্পাস নিয়ে রাজধানীর প্রগতি সরণিতে নতুনভাবে যাত্রা শুরু করেছে। নর্থ আমেরিকান শিক্ষাব্যবস্থার আদলে এখানে শিক্ষার প্রতিটি ধাপেই সর্বোচ্চ মান নিশ্চিত করা হচ্ছে। অসাধারণ শিক্ষার পরিবেশ, দেশসেরা ফ্যাকাল্টি মেম্বার এবং সৃজনশীল শিক্ষার্থীরা মিলে বাংলাদেশের উচ্চশিক্ষায় নতুন দিগন্ত তৈরি করেছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যানের দায়িত্বে আছেন বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী ড. চৌধুরী নাফিজ শারাফাত। 'ইন্সপায়ারিং অ্যাপ্লায়েড নলেজ' বা 'প্রায়োগিক শিক্ষায় উজ্জীবিতকরণ'- এই স্লোগান নিয়ে সাফল্যের সঙ্গেই প্রতিষ্ঠাকালের চার বছর অতিক্রম করেছে এ বিশ্ববিদ্যালয়। রাজধানীর পূর্বাচল আবাসিক শহরের কেন্দ্রবিন্দুতে ১০ বিঘা জমির ওপর এ বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থায়ী ক্যাম্পাস স্থাপনের কাজ চলছে। বর্তমানে ঢাকার প্রগতি সরণির প্রাইম লোকেশনে নিজস্ব অত্যাধুনিক ক্যাম্পাসে মনোরম পরিবেশে শিক্ষা ও প্রশাসনিক কর্মকাণ্ড পরিচালিত হচ্ছে। বিশাল আয়তনের লবি, অত্যাধুনিক ফায়ার অ্যালার্ম ও প্রটেকশন, প্রতিটি ক্লাসরুমে ওয়াই-ফাইসহ মাল্টিমিডিয়া সেটআপ, অটোমেটিক অ্যাটেনডেন্স সুবিধা, স্কাইভিউ রুপটপ ক্যাফেটেরিয়া, সুবিশাল অডিটোরিয়াম এবং ইনডোর গেমের সুবিধা রয়েছে এ ক্যাম্পাসে। আরও রয়েছে দেশি-বিদেশি বই সংবলিত একটি অত্যাধুনিক লাইব্রেরি। এ ছাড়া অনলাইন লাইব্রেরিতে রয়েছে ভার্চুয়াল বই পড়ার সুবিধা। ক্যাম্পাসটির অবস্থানগত সুবিধা হলো, শিক্ষার্থীরা ঢাকার যে কোনো প্রান্ত থেকেই অল্প সময়ে এবং নিরাপদে যাতায়াত করতে পারবে, আর আবাসিক শিক্ষার্থীদের জন্য ক্যাম্পাসের কাছে রয়েছে অনেক আধুনিক হোস্টেল। কানাডার টরেন্টোতেও এ বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি নিজস্ব অফিস রয়েছে। নর্থ আমেরিকান কারিকুলামে অভিজ্ঞ শিক্ষকবৃন্দ এই ইউনিভার্সিটিতে আন্তরিকতার সঙ্গে পাঠদান করছেন। উপাচার্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সাবেক বিভাগীয় প্রধান শিক্ষাবিদ প্রফেসর ড. মুহাম্মদ মাহফুজুল ইসলাম। বিশ্বের প্রথিতযশা বিদেশি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে উচ্চতর ডিগ্রি নিয়ে আসা অভিজ্ঞ শিক্ষাকবৃন্দ কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটিকে আন্তর্জাতিককরণে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছেন।এ ইউনিভার্সিটিতে বর্তমানে ৩টি অনুষদের অধীনে ৯টি প্রোগ্রামে শিক্ষাদান করা হচ্ছে। সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং স্টু্কলের অধীন কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং, ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং, শিপিং অ্যান্ড মেরিটাইম সায়েন্স; বিজনেস স্টু্কলের অধীন ব্যাচেলর অব বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (বিবিএ), মাস্টার অব বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (এমবিএ), এক্সিকিউটিভ মাস্টার অব বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (ইএমবিএ); স্টু্কল অব লিবারেল আর্টস অ্যান্ড সোশ্যাল সায়েন্সের অধীন ব্যাচেলর অব ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন, ব্যাচেলর অব ল' এবং ব্যাচেলর অব ইংলিশ প্রোগ্রামে শিক্ষাদান করা হয়। ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীরা মালয়েশিয়া-কানাডাসহ বিশ্বের নামধারী বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ক্রেডিট ট্রান্সফার করতে পারবে। ক্যামব্রিয়ান কলেজ-কানাডা, ল্যাম্বটন কলেজ-কানাডা, লরেন্সিয়ান ইউনিভার্সিটি-কানাডা, ইউনিভার্সিটি অব পেট্রনাস-মালয়েশিয়াসহ আরও বহু শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সঙ্গে সমঝোতা চুক্তি রয়েছে। এর মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা দেশের পাশাপাশি বিদেশেও উচ্চশিক্ষার সুযোগ পাচ্ছে। বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্যের জন্য কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশের ওয়েবসাইটwww.cub.edu.bd ভিজিট করা যাবে, অথবা ০১৭০৭০৭০২৮০-৪ নম্বরে যোগাযোগ করে ভর্তিসহ আনুষঙ্গিক তথ্যাদি পাওয়া যাবে।া