চলতি সপ্তাহে বিশ্বে খবরের শিরোনামে এসেছে দু'জন নারীর নাম। তাদের অর্জনের কারণে তারা হয়ে গেলেন ইতিহাসের অংশ। প্রথমজন সংবাদমাধ্যমে নিজেকে প্রতিষ্ঠা করলেন অনন্য উচ্চতায়। দ্বিতীয়জন মহাকাশে গমনের জন্য আরব নারীদের মধ্যে প্রথম হিসেবে নাম লিখিয়েছেন।

সবচেয়ে আলোচিত ঘটনা হলো, আন্তর্জাতিক বার্তা সংস্থা রয়টার্স তাদের ১৭০ বছরের ইতিহাসে প্রথম নারী প্রধান সম্পাদক নিয়োগ দিয়েছে। গত এক দশক ধরে রয়টার্সের বার্তাকক্ষকে নেতৃত্ব দেওয়া স্টিফেন জে. অ্যাডলারের স্থলাভিষিক্ত হবেন রোমের বাসিন্দা ৪৭ বছর বয়সী আলেসান্দ্রা গ্যালোনি। চারটি ভাষায় পারদর্শী গ্যালোনি বাণিজ্য ও রাজনীতিবিষয়ক সংবাদ কাভারে ব্যাপক অভিজ্ঞতাসম্পন্নম্ন। বর্তমানে রয়টার্সের শীর্ষস্থানীয় সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন গ্যালোনি। রয়টার্সের বৈশ্বিক ব্যবস্থাপনা সম্পাদকের দায়িত্বও পালন করেছেন এক সময়। তার ক্যারিয়ার শুরু হয়েছিল রয়টার্সের ইতালিয়ান ভাষার নিউজ সার্ভিসে। হার্ভার্ড ও লন্ডন স্কুল অব ইকোনমিকস থেকে ডিগ্রি নেওয়া এ নারী ওয়াল স্ট্রিট জার্নালেও প্রায় ১৩ বছর কাজ করেছেন। ২০১৩ সালে তিনি রয়টার্সে ফেরেন। রয়টার্স পরবর্তী প্রধান সম্পাদকের নাম ঘোষণার পর প্রতিক্রিয়ায় গ্যালোনি বলেন, '১৭০ বছর ধরে রয়টার্স স্বতন্ত্র, বিশ্বস্ত বৈশ্বিক প্রতিবেদনের মান নির্ধারণ করেছে। প্রতিভাবান, নিবেদিত ও অনুপ্রেরণাদায়ী সাংবাদিকদের নিয়ে গঠিত এর বিশ্বমানের বার্তাকক্ষের নেতৃত্ব দেওয়ার সুযোগ পেয়ে আমি সম্মানিত।'

দ্বিতীয় ঘটনা হলো, প্রথম আরব নারী হিসেবে মহাকাশে গমনের জন্য নির্বাচিত হয়েছেন ২৭ বছর বয়সী নোরা আল-মাতরুশি। সংযুক্ত আরব আমিরাত মহাকাশচারী হিসেবে প্রশিক্ষণ দেওয়ার জন্য তাকে নির্বাচিত করেছে। নোরা মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে স্নাতক শেষে বর্তমানে আবুধাবির জাতীয় পেট্রোলিয়াম নির্মাণ কোম্পানিতে কর্মরত। তিনি নাসার ২০২১ সালের 'অ্যাস্ট্রোনট ক্যান্ডিডেট' ক্লাসে অংশগ্রহণ করবেন।

মাতরুশির পর যোগ দেবেন আরেক আমিরাতি নাগরিক মোহাম্মাদ আল-মুল্লা। সংযুক্ত আরব আমিরাতের মহাকাশচারী প্রকল্পে মোট চারজন থাকবেন। এতে হাজা আল-মানসুরিও রয়েছেন, যিনি প্রথম আমিরাতি হিসেবে ২০১৯ সালে মহাকাশ ভ্রমণে যান এবং আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশনে পৌঁছেন। দুবাইয়ের মোহাম্মদ বিন রশিদ মহাকাশ কেন্দ্র (এমবিআরএসসি) জানিয়েছে, বৈজ্ঞানিক দক্ষতা, শিক্ষা ও ব্যবহারিক অভিজ্ঞতা; তারপর শারীরিক, মানসিক এবং স্বাস্থ্যগত মূল্যায়ন করা ৪ হাজার ৩০০ আবেদনকারীর মধ্যে নোরা একজন। গত ফেব্রুয়ারিতে আমিরাতের একটি মহাকাশযান মঙ্গল গ্রহের কক্ষপথে পৌঁছে। এটি আরব বিশ্বের কোনো দেশের সৌরজগতে চালানো প্রথম অভিযান। ২০২৪ সালে চাঁদে মহাকাশযান পাঠানোর পরিকল্পনা করেছে সংযুক্ত আরব আমিরাত।

মন্তব্য করুন