বিশ্ব ফ্যাশন শিল্পে কৃষ্ণাঙ্গ নারী ডিজাইনারের সংখ্যা কম হলেও এই শিল্পকে প্রতিষ্ঠিত করতে তাদের অবদান অবিস্মরণীয়। কিছু কৃষ্ণাঙ্গ নারী ডিজাইনার শুধু ফ্যাশন শিল্পকেই পরিবর্তন করেননি বরং অন্যান্য ডিজাইনারের অনুপ্রেরণা হিসেবেও কাজ করেছেন। কৃষ্ণাঙ্গ ডিজাইনারদের মধ্যে ফ্যাশনের ইতিহাস পরিবর্তন করেছেন এবং উদ্ভাবনী ডিজাইনের মাধ্যমে এই শিল্পের সৃজনশীলতার পথ প্রশস্ত করেছেন এমন পাঁচজন নারীকে নিয়ে লিখেছেন আব্দুর রাজ্জাক সরকার

এলিজাবেথ কেকলে

১৮৬০-এর দশকে ভার্জিনিয়ার বংশোদ্ভূত ক্রীতদাস এলিজাবেথ কেকলি যুক্তরাষ্ট্রের তৎকালীন প্রেসিডেন্ট আব্রাহাম লিংকনের স্ত্রী মেরি টড লিংকনের ব্যক্তিগত পোশাক প্রস্তুতকারক ছিলেন। এলিজাবেথ তার একনিষ্ঠ এবং উদ্ভাবনী মেধার কারণে খুব সহজেই টড লিংকনের খুব কাছের একজন হয়ে ওঠেন। প্রেসিডেন্টের স্ত্রীর কাছের মানুষ হওয়া সত্ত্বেও হোয়াইট হাউসে তার যাত্রা বেশ কষ্টকর ছিল। অনেক সংগ্রামের পর কেকলি তার সেন্ট লুইসের মালিকদের কাছ থেকে স্বাধীনতা পেয়েছিলেন। এরপর ওয়াশিংটন ডিসির সবচেয়ে প্রভাবশালী নারী, অ্যাক্টিভিস্ট ও লেখক হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেন।



জেলদা ভেন ভ্যাল্ডেস

১৯০৫ সালে পেনসিলভেনিয়ায় জন্মগ্রহণকারী জেলদা ভেন ভ্যাল্ডেস এমন এক যুগে বাস করেছিলেন, যখন জাতিগত বিচ্ছিন্নতা দৈনন্দিন জীবনের অংশ ছিল। তিনি বুটিকের স্টোররুমের কর্মী হিসেবে তার ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন। ক্যারিয়ারের শীর্ষে ভ্যাল্ডেস নাট কিং কোলের স্ত্রী এলা ফিৎসগেরাল্ড ও মারিয়া কোলের জন্য পোশাক তৈরি করেছিলেন। তিনি ১৯৪৮ সালে কোলের বিখ্যাত 'অফ শোল্ডার' বিয়ের পোশাকের ডিজাইন করেছিলেন। একই বছর তিনি নিজের বুটিক খোলেন।



রুবি বেলে

জেলদা ভেন ভ্যাল্ডেসের সময়ের প্রতিভাবান ডিজাইনার রুবি বেলে। ভ্যাল্ডেস এবং রুবি দু'জনই যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল অ্যাসোসিয়েশন অব ফ্যাশন অ্যান্ড অ্যাক্সেসরিজ ডিজাইনারস (নাফাদ) সম্মেলনে অংশগ্রহণ করেছিলেন। নিউইয়র্ক সিটির জাদুঘরের তথ্যানুসারে, বারমুডায় জন্মগ্রহণকারী এই শিল্পী উচ্চবিত্ত হারলেম সমাজে একজন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিত্ব ছিলেন। ফ্যাশন ডিজাইনে তার শৈল্পিক জ্ঞান এখনও সমাদৃত। পোশাকের ডিজাইনে মুদ্রণ, রং এবং শোভাকরণের জন্য তিনি ছিলেন অপ্রতিদ্বন্দ্বী।


অ্যান লো

অ্যান লো প্রথম আফ্রিকান-আমেরিকান যিনি খ্যাতিমান ফ্যাশন ডিজাইনার হয়ে উঠেছিলেন। ১৯২০-১৯৬০-এর দশক পর্যন্ত তার নকশা করা পোশাক উচ্চবিত্ত নারীদের প্রথম পছন্দ ছিল। জন এফ কেনেডি ও জ্যাকলিন বোভিয়ার বিয়ের বিখ্যাত পোশাকের নকশা করেছিলেন অ্যান লো। দুর্ভাগ্যক্রমে অ্যান লো তার প্রাপ্য স্বীকৃতি পাননি; কারণ তিনি কৃষ্ণাঙ্গ ছিলেন। সে সময় অ্যান লো স্বীকৃতি না পেলেও এখন তার নকশা করা পোশাক মেট্রোপলিটন মিউজিয়াম অব আর্টে প্রদর্শিত হয়।



ট্রেসি রেসি

আমেরিকান খ্যাতনামা কৃষ্ণাঙ্গ ফ্যাশন ডিজাইনার ট্রেসি রেসি। হোপ ফর ফ্লাওয়ার নামে নিজস্ব ফ্যাশন ব্র্যান্ডের মাধ্যমে টেকসই ও পরিবেশবান্ধব ডিজাইনিংয়ের মাধ্যমে তিনি আলোচনায় আসেন। দৈনন্দিন জীবনে ঘরে-বাইরে হালকা ও ভারী পোশাকের ডিজাইনের জন্য তিনি বিখ্যাত। নারীর ক্ষমতায়ন, কৃষ্ণাঙ্গদের অধিকারসহ বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী কাজ ও ইতিবাচক পৃথিবীর জন্য সর্বদা কাজ করে যাচ্ছেন ট্রেসি। ২০০৭ সাল থেকেই ট্রেসি রেসি কাউন্সিল অব ফ্যাশন ডিজাইনারস অব আমেরিকার অন্যতম প্রধান বোর্ড মেম্বার হিসেবে যুক্ত আছেন।

মন্তব্য করুন