সারাবেলা

সারাবেলা

প্রকাশের অপেক্ষায় অনেক বই

প্রকাশ: ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৬

পাঠক, লেখক এবং প্রকাশকদের সবচেয়ে বড় মিলন মেলা পরিণত হয়েছে উৎসবে। প্রতিদিন বিকেল হলেই স্টলে স্টলে দেখা যায় ভিড়। তবে অনেকেই আবার আশাহত হচ্ছেন মেলায় এসে। মেলার ১৯ দিন পার হলেও, প্রিয় লেখকের অনেক বই পাচ্ছেন না পাঠকরা। অন্যদিকে প্রকাশকরা বলছেন, লেখকদের সব বই চলে এসেছে। যে বইগুলো বাজারে এখনও আনতে পারেননি, তার কারণ হিসেবে বলছেন পাণ্ডুলিপি পরে জমা দেওয়া। মেলার ১৮তম দিনেও দেখা গেল, এখনও অনেক বই আসতে বাকি। এর মধ্যে বড় বড় প্রকাশনীও রয়েছে। উত্তরার নিকুঞ্জ থেকে আসা তৌফিক আহম্মেদ বলেন, 'অনেক স্টল ঘুরে দেখা গেল নতুন বইয়ের তুলনায় পুরনো বইয়ের সংখ্যা বেশি। আমি প্রতি বছর মেলায় আসছি। আর আমার আগ্রহটাও নতুন বইয়ের। তাই প্রকাশকদের এ ব্যাপারে আরও বেশি সতর্ক থাকতে হবে। ১৮ দিন পার হলেও এখনও অনেক লেখকের বই আসেনি।'
এ বছর অন্যপ্রকাশ থেকে ৫৭টি নতুন বই আসার কথা থাকলেও, এসেছে ৪৬টি। ঐতিহ্য থেকে মোট ৭৭টি বই এ বছর আসার কথা। এসেছে ৪০টি। সময় প্রকাশনী থেকে বই আসার কথা ৫০টি। এখন পর্যন্ত এসেছে ৩২টি। অনন্যা প্রকাশনী থেকে ১৫০টি বই বের হওয়ার কথা। এসেছে ১২৮টি। আগামী প্রকাশনী থেকে ৭৮টি বই প্রকাশিত হওয়ার কথা থাকলেও, এসেছে ৩৮টি। অনুপম থেকে ৫৪টি আসবে, এসেছে ৩১টি। মাওলা ব্রাদার্স থেকে ৪০টি বই আসবে, এসেছে ২৫টি। আহমদ পাবলিশিং হাউস থেকে ১৬টি আসবে, বাকি আছে ছয়টি। বাংলাপ্রকাশ বই করছে ৩৫টি। বাকি এখনও ২৫টি। পার্ল পাবলিকেশন্স থেকে এসেছে ৩০টি। বাকি আছে ১৪টি। অবসর থেকে ৫০টি আসার কথা। এ পর্যন্ত এসেছে ২০টি। অন্বেষা প্রকাশনী থেকে ৫৬টি বই বের হচ্ছে। এসেছে ৩০টি। এবার তাম্রলিপি করছে ৪৫টি বই। এখনও আসা বাকি ১০-১২টি। শব্দশৈলী থেকে এ বছর প্রকাশ হচ্ছে ৪০টি বই। এসেছে ১৭টি। আরও ২৩টি বই আসার অপেক্ষায়। শোভা প্রকাশের মোট বই ১০০টি। এসেছে ৬৭টি। শিখা প্রকাশনী থেকে ৩০টি বই এবার মেলায় আসছে। তবে এ পর্যন্ত এসেছে মাত্র ১২টি।
হতৌহিদুল ইসলাম তুষার