সারাবেলা

সারাবেলা

ছোট্ট রোবট ওয়াল-ই

প্রকাশ: ০৪ অক্টোবর ২০১৯

আমরা বুঝে না বুঝে প্রতিনিয়ত পরিবেশ নষ্ট করছি। চিপসের প্যাকেট বা জুসের ক্যান যেখানে সেখানে ফেলে দিই। আমরা না বুঝলে বিষয়টি ঠিকই বুঝেছে ওয়াল-ই। আর সিনেমাটি বানানো হয়েছে এ বিষয়টিকে কেন্দ্র করেই। দূরবর্তী ভবিষ্যতের এই রোবটটি তৈরি হয়েছে পৃথিবীর ময়লা-আবর্জনা পরিস্কার করার জন্য। প্রযুক্তিতে এগিয়ে যাওয়া দেশটিকে ধ্বংস করতে বোমা নিক্ষেপ করা হয়। সবই ধ্বংস হয়। শুধু থেকে যায় ছোট এই রোবট আর পোকামাকড়। ওয়াল-ইকে যেহেতু তৈরি করা হয়েছে পরিবেশ পরিস্কার রাখার জন্য। তাই সে নিজের মতো করে সেই কাজ শুরু করে। নিজের মতো করে ঘুরে বেড়ায়, খেলে, টিভি দেখে, আরও কত কী! সামনে যা পায় তাই ভালো করে পর্যবেক্ষণ করে। যেটি অপ্রয়োজনীয় মনে হয় শুধু সেটিকেই নষ্ট করে পরিস্কার করে রাখে।

রোবট হলেও তার রয়েছে জীবের প্রতি মায়া এবং ভালোবাসা। একবার তার চলার পথে তেলাপোকা চাপা পড়ে। খুব কষ্ট পাচ্ছিল, কী করবে ঠিক বুঝে উঠতে পারছিল না। পরে যখন দেখল তেলাপোকাটি বেঁচে আছে, কিছুটা স্বস্তি পেল। কড়া শাসন করে নিজের জায়গায় যেতে বলল। এভাবেই তার দিন চলছিল। এবার মানুষবিহীন ও ময়লা-আবর্জনায় পূর্ণ পৃথিবীতে হাজির হয় আরেক রোবট 'ইভ'। মানুষরা তাকে আরেক পৃথিবী থেকে পাঠিয়েছে প্রাণের অনুসন্ধান করার জন্য। তাকে দেখে প্রথমে কিছুটা ভয় পায় ওয়াল-ই। কারণ, ইভের কার্যক্রম ছিল খুবই ভয়ানক। যে কোনো কিছুর শব্দ পেলেই গুলি করে বা বোমা মেরে উড়িয়ে দেয়। ধীরে ধীরে ওয়াল-ই ও ইভের মধ্যে বন্ধুত্ব গড়ে ওঠে। তারপর থেকে নানাবিধ ঘটনার মধ্যে শুরু হয় দু'জনের রোমাঞ্চকর অ্যাডভেঞ্চার।

সবশেষে ইভকে তার পৃথিবীতে ফিরে আসতে বলা হয়। আর ইভ যেহেতু রোবট তা সে কাজে বাধ্য। কিন্তু ওয়াল-ই কীভাবে থাকবে ইভকে ছাড়া। ইভকে রক্ষার প্রাণপণ চেষ্টা করে ওয়াল-ই। সে কি ইভকে রক্ষা করতে পারে। জানতে হলে দেখতে হবে ওয়াল-ই।

ওয়াল-ই ২০০৮-এ মুক্তি পাওয়া যুক্তরাষ্ট্রের সিজিআই সায়েন্স ফিকশন হাস্যকৌতুকমূলক অ্যানিমেশন চলচ্চিত্র। এটির প্রযোজনা করেছে পিকচার অ্যানিমেশন স্টুডিও এবং পরিচালনা করেছেন এন্ড্রু স্টান্টন। ওয়াল-ইকে ওয়াল্ট ডিজনি পিকচার্স ২০০৮-এর ২৭ জুন যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডায় যৌথভাবে মুক্তি দেয়। এটি প্রথম দিনেই ২.৩২ কোটি ডলার এবং প্রথম সপ্তাহে ৬.৩১ কোটি ডলার আয় করে, যা একে বক্স অফিসের র‌্যাঙ্কে ১ নম্বরে নিয়ে যায়। এটি বক্স অফিসের পঞ্চম চলচ্চিত্র, যা মুক্তির প্রথম সপ্তাহেই এত আয় করে। ওয়াল-ইকেও পিকচারের অন্যান্য চলচ্চিত্রের মতো একটি স্বল্পদৈর্ঘ্যের চলচ্চিত্রের সঙ্গে যুগ্মভাবে মুক্তি দেওয়া হয়।

লেখা : তাবাসসুম রহমান