শৈলী

শৈলী

প্রিয় বাবার জন্য

প্রকাশ: ১২ জুন ২০১৯

পৃথিবীতে মানুষের শ্রেষ্ঠ আপনজনের মধ্যে অন্যতম ব্যক্তি হলেন বাবা। তাকে কোনো একটি দিনে স্মরণ, ভালোবাসা, শ্রদ্ধা জানানো যথেষ্ট নয়। বরং প্রতিটি দিনই যেন আমাদের বাবা দিবস। তবুও বিশ্ববাসীর সঙ্গে তাল মিলিয়ে বাংলাদেশেও উদযাপিত হয়ে আসছে আন্তর্জাতিক বাবা দিবস। জুন মাসের ১৬ তারিখ আমরাও তাই বাবাকে প্রতিদিনের চেয়ে বেশি করে মনে করব। নতুন পরিচয়ে আবির্ভূত হওয়া রঙ বাংলাদেশও প্রথম এই দিনটিকে বিশেষভাবে উদযাপন করতে সাজিয়েছে বিশেষ কালেকশন। এই সংগ্রহে রয়েছে যে কোনো বয়সী বাবাদের উপযোগী পোশাক। রঙ বাংলাদেশের মূল কালেকশন ছাড়া শ্রদ্ধাঞ্জলিতেও রয়েছে বাবা দিবসের বিশেষ আয়োজন, যা রঙ বাংলাদেশ এবং শ্রদ্ধাঞ্জলির অনুরাগীদের পছন্দকে নিঃসন্দেহ ছুঁতে পারবে।

বিংশ শতাব্দীর প্রথমদিক থেকে পিতৃদিবস পালন শুরু হয়। মায়েদের পাশাপাশি বাবারাও যে তাদের সন্তানের প্রতি দায়িত্বশীল- এটা বোঝানোর জন্যই এই দিবসটি পালন করা হয়ে থাকে। পৃথিবীর সব বাবার প্রতি শ্রদ্ধা আর ভালোবাসা প্রকাশের ইচ্ছা থেকে যার শুরু। ধারণা করা হয়, ১৯০৮ সালের ৫ জুলাই আমেরিকার পশ্চিম ভার্জিনিয়ার ফেয়ারমন্টের এক গির্জায় এই দিনটি প্রথম পালিত হয়। আবার সনোরা স্মার্ট ডড নামের ওয়াশিংটনের এক ভদ্রমহিলার মাথাতেও বাবা দিবসের আইডিয়া আসে। যদিও তিনি ১৯০৯ সালে ভার্জিনিয়ার বাবা দিবসের কথা একেবারেই জানতেন না। ডড এই আইডিয়াটা পান গির্জার এক পুরোহিতের বক্তব্য থেকে। সেই পুরোহিত আবার মাকে নিয়ে অনেক ভালো ভালো কথা বলছিলেন। তার মনে হয়, তাহলে বাবাদের নিয়েও তো কিছু করা দরকার। ডড তার বাবাকে খুব ভালোবাসতেন। তিনি সম্পূর্ণ নিজ উদ্যোগেই পরের বছর, অর্থাৎ ১৯ জুন, ১৯১০ সাল থেকে বাবা দিবস পালন করা শুরু করেন।

বাবা দিবসে বাবাকে ভালোবাসা জানাতে উপহার দিতে পারেন প্রিয় পোশাক। এখন প্রচণ্ড দাবদাহ চলছে। ফলে আবহাওয়াকে মাথায় রেখেই বাবা দিবসের কালেকশন তৈরি করা হয়েছে আরামদায়ক সুতি কাপড়ে। ডিজাইন, কাট এবং প্যাটার্নে রঙ বাংলাদেশের ধারা বজায় রাখা হয়েছে সচেতনভাবেই। ভোক্তাদের চাহিদা অনুসারে এই কালেকশনে থাকছে পাঞ্জাবি, শার্ট, টি-শার্ট, ফতুয়া।

উপহারসামগ্রী হিসেবে রয়েছে নানা ডিজাইনের মগ। ক্রেতাদের সাধ্যের মধ্যেই রাখা হয়েছে এই কালেকশনের পোশাক এবং উপহারসামগ্রীর দাম।

রঙ বাংলাদেশের ঢাকা ও ঢাকার বাইরের সব আউটলেটেই পাবেন চমৎকার এই বাবা দিবস সংগ্রহ। তাই আজই কিনুন বাবাদের জন্য পোশাক। আর চমকে দিন।

তবে ভিড়-বাট্টা সামলে শপে গিয়ে কিনতে অনাগ্রহী হলে সমস্যা নেই। বাসায় বসেই অর্ডার করতে পারেন পছন্দের পোশাক। এ জন্য সব ডিজিটাল মাধ্যম ছাড়াও রয়েছে ক্যাশ অন ডেলিভারির বিশেষ সুযোগ।



লেখা : মেহজাবীন স্বর্ণা; মডেল : কমরউদ্দিন আহমেদ

পোশাক : রঙ বাংলাদেশ; ছবি : মুন্তাকিম