শৈলী

শৈলী

ঈদে বই উপহার

প্রকাশ: ১২ জুন ২০১৯

ঈদের সালামি হিসেবে এবারও শিশুদের বই দিয়েছে চাঁদপুরের গাজী আবদুর রহমান পাঠাগার। ৫ জুন ঈদুল ফিতরের দিন দুপুরে চাঁদপুর সদর উপজেলার নানুপুর গ্রামের গাজী বাড়িতে এ বই দেওয়া হয়। এবার পাঠাগারটি ১৫ বারের মতো এ বই বিতরণ করল। প্রায় অর্ধশত শিশুর হাতে এ বই তুলে দেন পাঠাগারের উপদেষ্টা মরিয়ম বেগম, প্রতিষ্ঠাতা গাজী মুনছুর আজিজ, সদস্য গাজী আবদুল মান্নান, ফারহানা আক্তার আঁখি, সুমাইয়া আক্তার মুনিয়াসহ অন্য সদস্যরা। বিতরণ করা বইয়ের মধ্যে ছিল ছড়া, কবিতা, গল্প, মুক্তিযুদ্ধ, বিজ্ঞান, ফুল, পাখি, প্রকৃতি, সাধারণ জ্ঞান ও শিশুতোষ ম্যাগাজিন। এর আগেও এ পাঠাগারের উদ্যোগে একই স্থানে ও ইসলামপুর গাছতলা গ্রামে শিশুদের মাঝে ঈদের সালামি হিসেবে বই বিতরণ করা হয়। বই বিতরণ কার্যক্রমের সহযোগী ছিল দেশীয় পণ্যের উৎপাদক ও সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান মরিয়ম ক্র্যাফট।

সাধারণত ঈদের সালামি হিসেবে বড়রা শিশুদের নতুন টাকা, জামা, জুতা বা খেলনা দিয়ে থাকেন। কিন্তু ব্যতিক্রম হিসেবে বই উপহার পেয়ে শিশুরা বেশ উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে। ইসলামপুর গাছতলা গ্রামের শিক্ষার্থী মীম জানাল, বই পেয়ে তার খুব ভালো লাগছে। আর গল্প, ছড়া বা কবিতার বই পড়তে তার ভালো লাগে। অন্যরাও বই পেয়ে খুব খুশি।

পাঠাগারের সদস্য গাজী আবদুল মান্নান বলেন, পাঠ্যবইয়ের পাশাপাশি সৃজনশীল বই পড়লে শিশুদের জ্ঞান বৃদ্ধি পায়, তারা স্বাপ্নিক হয়। সে জন্য শিশুদের ঈদের সালামি হিসেবে বই উপহার দিই। এ ছাড়া উৎসব-আনন্দে শিশুদের বই উপহার দিলে তাদের পড়ার আগ্রহ বাড়ে।

বই বিতরণ ছাড়া ২০০১ সালে প্রতিষ্ঠিত এ পাঠাগারের উদ্যোগে শিক্ষাবৃত্তি প্রদান, গাছের চারা বিতরণ ও রোপণ, সাধারণ জ্ঞান ও বিভিন্ন খেলাধুলা প্রতিযোগিতা, ইলিশ আড্ডাসহ বিভিন্ন সামাজিক কার্যক্রমের আয়োজন ও 'ঈদ উৎসব' নামে ঈদের শুভেচ্ছাপত্র প্রকাশিত হয়ে আসছে।



লেখা : শৈলী ডেস্ক