শৈলী

শৈলী

টি-শার্টে বিশ্বকাপ

প্রকাশ: ১২ জুন ২০১৯

শুরু হয়েছে আইসিসি বিশ্বকাপ ক্রিকেটের ১৩তম আসর। ক্রিকেট উন্মাদনায় কাঁপছে গোটা বিশ্ব। বাংলার টাইগাররা লাল-সবুজ পতাকার প্রতিনিধিত্ব করছে এ আসরে। মাশরাফি বাহিনী এবার সেমিফাইনাল খেলবে- এই আশায় বুক বেঁধে আছে বাঙালি ক্রিকেটবোদ্ধারা। প্রথম ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকাকে ২১ রানে হারিয়ে সেই আশার অনেকাংশই পূরণ করছে সাকিবরা। দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে জয় বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের আত্মবিশ্বাস অনেক বাড়িয়ে দিয়েছে। তারা প্রমাণ করে দিয়েছে বোলিং ও ব্যাটিং দুই বিভাগেই যদি ভালো করা যায়

তাহলে সবকিছুই করা সম্ভব। বাঙালির নানা সমস্যার মধ্যেও ক্রিকেটে বাঙালির আজকের সাফল্য উল্লেখ করার মতোই। বিশেষ করে সাকিব, মাশরাফি, মুশফিক ও তামিমের কথা উল্লেখ না করলেই নয়। ওদের ধারাবাহিক সাফল্য আজ বাংলাদেশকে এ পর্যায়ে নিয়ে এসেছে। তাই ওদের কাছে জাতির প্রত্যাশাটাও অনেক।

বিশ্বকাপে আমাদের সাফল্য থাকলেও এর প্রচারণা কোথায়! বিশ্বকাপ ক্রিকেট নিয়ে প্রত্যেকবার বাংলাদেশের ক্রিকেটপ্রেমীদের মধ্যে যে রকম আগ্রহ ও উদ্দীপনা দেখা যায়, এবার সে রকম কিছু চোখে পড়ছে না।

ফুটবল বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনা-ব্রাজিলের জন্য আমাদের এত প্রেম, যা আমরা নিজ দেশের জন্য দেখাতে পারি না। বিশ্বকাপ ফুটবলে আমরা অংশগ্রহণ না করেও যে পরিমাণ মাতামাতি করি, তার ছিটেফোঁটাও করি না ক্রিকেট বিশ্বকাপে, যেখানে আমরা দাপটের সঙ্গে খেলছি; বাংলার টাইগাররা এগিয়ে যাচ্ছে বীরদর্পে।

ফুটবল বিশ্বকাপে আমরা অত্যন্ত দুঃখ করে বলি, 'আমরা অন্য দেশের পতাকা ওড়াই কিন্তু নিজ দেশের পতাকা ওড়াতে পারি না! ইস্‌, আমরা যদি বিশ্বকাপ ফুটবল খেলতে পারতাম।'

আমাদের দেশ বিশ্বকাপ ক্রিকেট খেলছে। এটা গর্বের বিষয়, অহঙ্কারের বিষয়। যে ক'টি দেশ ক্রিকেট বিশ্বকাপে অংশ নিয়েছে তার মধ্যে বাংলাদেশ অন্যতম। অথচ বিশ্বকাপ এলে আমরা নিজেদের পতাকাটাই ওড়াই না কেন?

দেশি ফ্যাশন বাজারে দেখা যাচ্ছে বিশ্বকাপের ছোঁয়া। নিজ দেশের প্রতি ভালোবাসা থেকে টি-শার্টের বুকে দেখা যাচ্ছে নকশা। খেলার দিন জার্সি পরে টিভির সামনে বসার ধারা তো আছেই। তা ছাড়াও বিশ্বকাপের সময়জুড়ে পোশাকে সময়টাকে তুলে ধরা চাই-ই চাই। বিশেষ করে তারুণ্যে ঝলমল যারা তাদের ফ্যাশনে বিশ্বকাপের জোয়ার চোখে পড়ে সব থেকে বেশি।

প্রতিবারের মতো এবারও দেশীয় ফ্যাশন হাউস কে কদ্ধ্যাফট তাদের ক্রিকেট উন্মাদনা প্রকাশ করেছে। এবারের বিশ্বকাপে ফ্যাশন হাউস কে কদ্ধ্যাফট বাজারে এনেছে ব্যতিক্রমী ধরনের টি-শার্ট। বিশ্বকাপের আমেজকে ভক্তদের মধ্যে আরও ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে দিতেই ফ্যাশন হাউস কে কদ্ধ্যাফটের এ আয়োজন। টি-শার্টের ক্যানভাসে ছিল 'পারলে ঠ্যাকা' ও লাল-সবুজ পতাকা হাতে গর্জে ওঠা টাইগার সমর্থক, যা বাংলাদেশের ক্রিকেটপ্রেমীদের হৃদয়ে দাগ কেটে যায়।

টি-শার্টেও ক্যানভাসে লাল-সবুজের নকশা দারুণভাবে ফুটে উঠেছে। বিশ্বকাপে অনুপ্রাণিত মোটিফ ব্যবহারের সঙ্গে সঙ্গে নজর দেওয়া হয়েছে আরামের প্রতি। সুতি ও গোল গলার টি-শার্ট এই গরমে স্বাচ্ছন্দ্যে পরতে পারবে তরুণ-তরুণীরা।

বিশ্বকাপ উপলক্ষে টি-শার্ট ডিজাইন সম্পর্কে কে কদ্ধ্যাফট ফ্যাশন হাউসের ডিজাইনার শায়লা নূর বলেন, এই বিশ্বকাপে দর্শকের আবেগ, চিন্তা-চেতনা ও তরুণ-তরুণীদের কথা মাথায় রেখেই আমরা ডিজাইন করেছি। টি-শার্টটি বাজারে আনার পর আমরা দর্শকদের ব্যাপক সাড়া পাচ্ছি। টি-শার্ট দর্শক গ্রহণ করেছে বলে আমাদের ধারণা।

মনের গভীরে দেশপ্রেম ধারণ করে তা পোশাকেও ফুটিয়ে তুলতে চায় ডিজাইনাররা। এ চিন্তাধারা তারা টি-শার্টের ক্যানভাসে প্রকাশ করতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করে। টি-শার্টে দেশের পতাকা, লাল-সবুজ রঙ, জনপ্রিয় কবিতা কিংবা গানের লাইন দিয়ে ডিজাইন করতে ভালোবাসে। অনেকে মহান মুক্তিযুদ্ধের খণ্ডচিত্র টি-শার্টে ফুটিয়ে তোলেন। দেশের ইতিহাস, ঐতিহ্য, ভাস্কর্য, শিল্পকর্ম স্থান পায় টি-শার্টের ক্যানভাসে।

দেশীয় কাপড়, দেশীয় নকশার মেলবন্ধনে তৈরি হচ্ছে বিচিত্র ধরনের পোশাক, যার মাঝে টি-শার্ট অন্যতম। দেশের তরুণ সমাজ বেশিরভাগ টি-শার্টের ক্রেতা। তাদের কথা মাথায় রেখেই এই বিশ্বকাপে কে কদ্ধ্যাফট বাজারে এনেছে 'পারলে ঠ্যাকা' এই টি-শার্টটি। ছেলেমেয়ে উভয়ের জন্যই দারুণ পছন্দ এই টি-শার্ট। কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শুরু করে চায়ের আড্ডা সব ক্ষেত্রেই তরুণ-তরুণী টি-শার্ট মানিয়ে যায় বেশ। টি-শার্ট সব সময়ের ট্রেন্ডি হলেও বিভিন্ন সময় নকশাতে বদল এসেছে। গঠনগত নকশাতে তেমন কোনো পরিবর্তন না এলেও আলঙ্কারিক দিকে অনেক পরিবর্তন আমরা লক্ষ্য করেছি।

বর্তমান সময়ের ক্রেতাদের চাহিদাকে গুরুত্ব দিয়েই নকশা করা হয় টি-শার্টের। ব্র্যান্ডগুলোতে অনেক ধরনের টি-শার্টে পাওয়া যায়। এর মধ্যে বিভিন্ন ক্যারেক্টারের গ্রাফিক ও বিভিন্ন রকম ডিজাইনের টি-শার্ট খুব জনপ্রিয়তা পেয়েছে ফ্যাশন সচেতন তরুণ-তরুণীর কাছে। লাল আর সবুজ রঙের টি-শার্ট এ সময় বেশি পছন্দ তাদের। এর বাইরেও সবুজের বিভিন্ন শেড, লালের বিভিন্ন শেড, নীল, বাসন্তী, নীল ইত্যাদি রঙের টি-শার্ট ক্রেতার নজর কাড়ছে। এসব উজ্জ্বল রঙ ছাড়াও কিছু হালকা রঙ আছে, যা সব বয়স আর সবার পছন্দের শীর্ষে থাকে। এত বৈচিত্র্যের মধ্যে ব্যক্তিত্বের সঙ্গে মানানসই টি-শার্টটি আপনাকেই বেছে নিতে হবে। বিশ্বকাপ উপলক্ষে 'পারলে ঠ্যাকা' টি-শার্টটি কে কদ্ধাফটের সব আউটলেটে পাওয়া যাচ্ছে। এর দাম ধরা হয়েছে ৪৫০ টাকা।