শৈলী

শৈলী


এভারেস্টজয়ী সজল খালেদ স্মরণে

আজিজের তৃতীয় একক ম্যারাথন

প্রকাশ: ০৬ নভেম্বর ২০১৯      

শৈলী ডেস্ক

এভারেস্টজয়ী প্রয়াত সজল খালেদ স্মরণে তৃতীয়বারের মতো একক ম্যারাথন করেছেন তারই বন্ধু গাজী মুনছুর আজিজ। কক্সবাজারের মেরিন ড্রাইভে ২৯ অক্টোবর এ ম্যারাথন করেন। ভোর ৬টা ৭ মিনিটে লাবণী সৈকত পয়েন্ট থেকে ম্যারাথন শুরু করেন। ইনানী সেতুর কাছ থেকে আবার লাবণী পয়েন্ট এসে বিকেল ৪টা ২১ মিনিটে সম্পন্ন করেন ম্যারাথনের ৪২ দশমিক ১৯৫ কিলোমিটার পথ। এর আগে ২০১৭ ও ২০১৮ সালেও এ পথে একক ম্যারাথন করেছেন গাজী মুনছুর আজিজ।

বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্রসৈকত আর মেরিন ড্রাইভের সৌন্দর্য সত্যিই দারুণ। এ সৌন্দর্য বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে দিতে ও দেশের পর্যটনে আকর্ষণ বাড়াতে সজল খালেদ বাংলা মাউন্টেইনিয়ারিং অ্যান্ড ট্রেকিং ক্লাবের ব্যানারে এ পথে ২০০৮ সালে প্রথমবার 'বাংলা ম্যারাথন' প্রতিযোগিতা করেন। সেই লক্ষ্যে ২০০৯ ও ২০১০ সালে তার উদ্যোগে ও এক্সট্রিমিস্টের আয়োজনে এ পথে ম্যারাথন হয়। তিনবারের ম্যারাথনেই গাজী মুনছুর আজিজ অংশ নেন ও সফলভাবে তা সম্পন্ন করেন। ২০১৩ সালে এভারেস্ট জয় করে সজল খালেদ এভারেস্টের কোলেই থেকে যান অনন্তকালের জন্য। এরপর আর মেরিন ড্রাইভে বাংলা ম্যারাথন হয়নি।

গাজী মুনছুর আজিজ বলেন, আমার ম্যারাথনের উদ্দেশ্য- মেরিন ড্রাইভে ম্যারাথন প্রতিযোগিতার মাধ্যমে দেশি-বিদেশি পর্যটকদের আকর্ষণ, পর্যটনের উন্নয়ন এবং সৈকত ও সৈকতপাড়ের জীববৈচিত্র্য রক্ষায় প্রচারণা। পাশাপাশি এ ম্যারাথনের মাধ্যমে মেরিন ড্রাইভকে সজল খালেদের নামে নামকরণের আহ্বান জানাই।