শৈলী

শৈলী


ওজন কমাতে চুজ টু লুজ

প্রকাশ: ০৬ নভেম্বর ২০১৯      

শফিকুর রহমান

হুট করে ওজন কমানো সম্ভব? উপযুক্ত দিকনির্দেশনা কোথায় পাবেন? কীভাবে, কখন, কী করতে হবে- অনেকেই তা বুঝে উঠতে পারেন না। এ জন্য রয়েছে ফেসবুক গ্রুপ 'চুজ টু লুজ'। মানুষের কল্যাণে গ্রুপটি কাজ করছে। সাদিয়া আফরোজের গল্পটা শুনুন। তার ওজন বেশি ছিল। সে কী দুশ্চিন্তা তার। একজন বলল, ফেসবুকে যাও। ওখানে চুজ টু লুজ নামে গ্রুপ আছে। সদস্য হলে সাহায্য পাবে। মিলবে গাইডলাইনও। তিনি সদস্য হলেন। ডক ফাইলগুলো পড়লেন। কী নেই সেখানে! দরকারি সবই খুঁজে পেলেন। যেমন ডায়েট চার্ট, কোন খাবারে কত ক্যালরি, হাঁটাহাঁটির উপকারিতা, দড়ির লাফ, অন্তঃসত্ত্বা নারীর রোজা, রমজানে ডায়েট, ফিটনেসের মূল কথা ইত্যাদি। ডায়েটের জন্য যা দরকারি সবই আছে ওই গ্রুপে। শুধু সাদিয়াই নয়, এমন অসংখ্য মানুষ চুজ টু লুজ থেকে সহায়তা পেয়েছেন। বাড়তি মেদ ঝেঁটিয়ে বিদায় করেছেন।

চুজ টু লুজ গ্রুপের সদস্য সংখ্যা ৬৮ হাজার ৯৫৬। প্রধান অ্যাডমিন হলেন তানভীর হায়দার রনি। এ ছাড়া আরও অ্যাডমিন আছেন রওশন আরা লিলি, মডারেটরের দায়িত্ব পালন করছেন জাকিয়া সিদ্দিকা মুনা, এমডি সাইদ সিদ্দিক, সেগুফা কামরুল, তুষি, জামি রওশন, ফারহাত বাশার। তারা সবাই প্রায় তরুণ উদ্যোগী। বিভিন্ন সময়ে অ্যাডমিন রনি চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেন। চ্যালেঞ্জে যারা অংশ নেন, নিয়মিত তাদের ওজন আপডেট পোস্ট দিতে হয়। দিনে ও রাতে কী খেলেন তাও বলতে হয়। ফলে ওজন কমানোর চেষ্টা নিয়মিত ধরে রাখা সম্ভব হয়। খেই হারানোর সুযোগ নেই। ভুল হলে তাও শুধরাতে পারেন। কখন, কীভাবে কোন খাবার খেলে ক্ষুধা মিটবে। মেদ বাড়বে না। কতটুকু হাঁটলে কত ক্যালরি পুড়বে, তাও বলে দেওয়া হয়। হুড়মুড়িয়ে ব্যায়াম করলেই হবে না। ব্যায়ামেরও কিছু নিয়মকানুন আছে। সেটিও এখান থেকে জানা সম্ভব। ওজন কমে, আবার বাড়ে। বাড়লে মনোবল হারিয়ে ফেলেন অনেকে। তাদের জন্য গ্রুপে মোটিভেশনাল পোস্ট দেওয়া হয়। যাতে উৎসাহ বজায় থাকে। কোন সদস্য ওজন কমিয়ে টার্গেট পূরণ করলেন। তিনি আগে ও পরের ছবি পোস্ট দেন। তার ওজন কমানোর নেপথ্যের গল্পটা শেয়ার করেন। অন্যদের জন্য যা অনুপ্রেরণা, সহায়ক হয়ে দাঁড়ায়। কোনো বাধা নেই। গ্রুপ সদস্যরা যে কোনো পোস্ট দিতে পারেন। অনুমোদন পেলেই তা প্রকাশ হয়। কারও কোনো সমস্যা হলে পোস্ট দিলেই হয়। কেউ না কেউ সাহায্যের হাত বাড়ান। অভিজ্ঞরা তাদের অভিজ্ঞতা শেয়ার করেন। কারণ ওজন কমানোর পথ অনেক দীর্ঘ ও কণ্টকময়। চারদিকে, চোখের সামনে লোভনীয় খাবারের ছড়াছড়ি। নিজেকে কন্ট্রোল করা কঠিন। সেক্ষেত্রে এই গ্রুপ অধিক কার্যকর। অনুপ্রেরণা, সাহস দিয়ে টিকিয়ে রাখে। সঠিক পথটা বাতলে দেয়। যেন হতাশ হয়ে কেউ পথ না হারায়- বললেন ফিটনেস বিশেষজ্ঞ জামিল আহমেদ। তিনি এই গ্রুপের পোস্টগুলো খুব কার্যকর বলে মনে করেন।