শৈলী

শৈলী

পশ্চিমে রংধনু চুল

প্রকাশ: ২০ নভেম্বর ২০১৯

শৈলী ডেস্ক

সেই কবেই তো রবীন্দ্রনাথ লিখেছিলেন, 'রঙ যেন মোর মর্মে লাগে, আমার সকল কর্মে লাগে।' নিজেকে রাঙিয়ে তোলা তাই মানুষের সহজাত প্রবৃত্তি। সেটা হতে পারে শরীরে, পোশাকে কিংবা মাথা-সংশ্নিষ্ট চুলেও।

সম্প্রতি ব্রিটেনের ফ্যাশনিস্টরা চারপাশ মাতাচ্ছেন চুল রাঙিয়ে। ব্রেক্সিট নিয়ে বেশ উদ্বেগে আছেন বর্তমানে দেশটির জনগণ। ইউরোপীয় ইউনিয়ন ছাড়া কেমন হবে পথচলা, তা নিয়ে আছে শঙ্কা। আবার ইউরোপীয় ইউনিয়নকে নিয়েই ভবিষ্যতে থাকতে চান, এমন ব্রিটেনবাসীর সংখ্যাও কম নয়। তবে চুল রাঙানো নারীরা এতকিছু ভাবছেন না। একটি জীবন- সেটাই ভালোভাবে উদযাপনই তাদের পণ। মাথার সব চুল রাঙানো এই চুলের সাজ রেইনবো হেয়ার স্টাইল হিসেবে আখ্যায়িত হচ্ছে। কেটি পেরি বা জ্যামাইকান অ্যাথলেট শেলি অ্যান ফ্রেজারের রাঙানো চুলের কথা সবাই জানেন। কিন্তু রেইনবো হেয়ার বিশেষভাবে আকর্ষণ করছে সাধারণ নারীদের। তারকা জীবনে যারা অভ্যস্ত নন, খুব সাধারণ যাদের জীবনযাপন; তরুণী থেকে শুরু করে মাঝবয়সী নারীরা পর্যন্ত ঝুঁকে পড়ছেন এই নব্য হেয়ার কাটে।

৫৩ বছর বয়সী ফিওনা শার্প, যিনি ব্রাইটনে কমিউনিটি কনসালট্যান্ট হিসেবে কাজ করে থাকেন; তিনিও চুল রাঙিয়েছেন রেইনবো হেয়ার স্টাইলে। পেশাগত জীবনে এ নিয়ে তার কোনো সমস্যা হচ্ছে না।

তিনি বলেন, আমাকে অনেক ধূসর চুলের মানুষের সঙ্গে কাজ করতে হয়। এর মধ্যে আমাকে অনেক রঙিন দেখায়। এটা আমার ভালো লাগে।

রেইনবো হেয়ার স্টাইলের কারণে একজন হেয়ার ড্রেসারের সঙ্গে ফিওনার বন্ধুত্ব হয়ে গেছে। তিনি প্রায়ই তাকে ফোন করেন। বলেন, নতুন কিছু রং এসেছে। আপনি ট্রাই করবেন কি-না? এ ধরনের ফোনকলে ফিওনা উচ্ছ্বসিত হয়ে ওঠেন। তিনি আবার চুল রাঙানোর প্রস্তুতি নিয়ে থাকেন।

এই রঙিন কেশবিন্যাস আটলান্টিক পেরিয়ে যুক্তরাষ্ট্রেও পৌঁছেছে। লস অ্যাঞ্জেলেসের ডিজাইনার ও শিল্পী আমিনা মাচলাও এর প্রমাণ।

তিনি বলেন, আমার রং খুব পছন্দ। সেটা চুলে হলে আরও ভালো। কৃষ্ণাঙ্গ আমেরিকান হিসেবে আমার সঙ্গে এই হেয়ার স্টাইল খুব মানিয়ে যায়।

রেনইবো হেয়ার স্টাইল ঘরে বসে করারও কিছু উপায় বাতলে দিয়েছেন হেয়ার স্টাইলিশরা। তারা জানিয়েছেন, চুলে রং করার জন্য প্রথমে আপনাকে ব্লিচ করতে হবে। এরপর তা পরিস্কার করা দরকার। চুলে যদি কোনো রং বাকি থাকে, তবে রেইনবো হেয়ার স্টাইল কাজ করবে না।

চুলের ধরন বুঝে এই হেয়ার স্টাইল করতে হবে। স্বর্ণকেশী কাউকে নীল রঙে মানাবে না। এটি তখন সবুজ রং হয়ে যেতে পারে।

কিছু সতর্কতাও জানিয়েছেন হেয়ার এক্সপার্টরা। ঠিকমতো রং না বসলে এটি চুলের ক্ষতির কারণ হতে পারে বলে জানিয়েছেন তারা।

তবে নারীদের এই চুল রাঙিয়ে নেওয়ার প্রবণতাকে স্বাগতই জানাচ্ছেন অনেকে। তাদের মতে, রংধনুর আভা নারীর চুলে থাকলে ক্ষতি কী? া