শৈলী

শৈলী


টি-শার্টের ক্যানভাসে একুশ

প্রকাশ: ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০      
আরামদায়ক আর স্বাচ্ছন্দ্যকর পোশাক হিসেবে টি-শার্ট বরাবরই এগিয়ে। চটজলদি পরে ফেলার মতো সহজ উপায় একমাত্র টি-শার্টই দিতে পারে। ফ্যাশন দুনিয়ায় এর চল বহু আগে থেকেই। পরিবর্তনের ধারাবাহিকতায় বহু পোশাক এসেছে। তবে টি-শার্টের ফ্যাশন সব সময়ের জন্যই বিদ্যমান। ছোট বাচ্চা থেকে শুরু করে সব বয়সের মানুষের পছন্দের তালিকায় এই পোশাক। কালক্রমে টি-শার্ট এসেছে বিভিন্ন মোটিফ আর ডিজাইনের আদলে। এখনকার ডিজাইনাররা এ ব্যাপারে বেশ মনোযোগী। বিশেষ দিবসগুলো কেন্দ্র করেও ফ্যাশন ব্র্যান্ডগুলো ভোক্তাদের জন্য নিয়ে আসছে টি-শার্ট। এবারের একুশে ফেব্রুয়ারি সামনে রেখে জনপ্রিয় ফ্যাশন ব্র্যান্ড নিত্যউপহার নিয়ে এসেছে বেশ কিছু টি-শার্টের কালেকশন



হ ফ্লোরিডা এস রোজারিও

বাঙালির যা কিছু অহংকার, একুশ তার মাঝে অন্যতম। একুশ দিয়েছে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ উপহার মাতৃভাষা। পৃথিবীর ইতিহাসে মাতৃভাষার জন্য আত্মত্যাগের নজির আর নেই। সেই থেকে প্রতি বছর শহীদ স্মরণে পুষ্পস্তবক অর্পণ করি শহীদ মিনারে। গভীর শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করি শহীদদের, যারা বাংলা ভাষাকে আমাদের মাতৃভাষা করার দাবিতে প্রাণ দিতেও পিছপা হয়নি। রক্ত ঝরিয়ে এনে দিয়েছে আমাদের মুখের বুলি।





কালক্রমে আমাদের সর্বজনীন জাতীয় উৎসবে পরিণত হয়েছে অমর একুশে ফেব্রুয়ারি। ফলে জাতীয় জীবনের ফ্যাশন ভাবনাতেও যুক্ত হয়ে গেছে একুশে ফেব্রুয়ারি। বরাবরই সাদা-কালো রংকে একুশের চেতনায় রাখা হয়েছে। আর সঙ্গে প্রিয় বর্ণমালা তো রয়েছেই।

যে বর্ণমালা আমাদের প্রাণের চেয়েও প্রিয়। তাই শহীদদের শ্রদ্ধার পাশাপাশি, সাজ-পোশাকেও থাকুক অমর একুশের আবহ।

একুশে ফেব্রুয়ারিতে সাদা-কালো পোশাকের চল বহু বছরের পুরোনো। এ দিনে শহীদদের শ্রদ্ধা জানাতে মেয়েরা পরে সাদা-কালো শাড়ি ছাড়াও কুর্তি, সালোয়ার-কামিজ। আর ছেলেরা এ দিনে পাঞ্জাবি, টি-শার্টে বেশ মানিয়ে নেয় নিজেকে। এ তো গেল বড়দের পোশাকের কথা। ছোটরা তাহলে কী পরছে এবার একুশের সাজে?

টি-শার্ট এখন আর শুধু তরুণের পোশাকে আটকে নেই। সময় অনুযায়ী এর ডিজাইনে পরিবর্তন আসে প্রতিনিয়ত। ডিজাইনাররা টি-শার্টের ক্যানভাসে নানা রকম নকশা তুলে ধরেন। সময়োপযোগী এ পোশাকও ক্রেতার আগ্রহের জায়গা তৈরি করেছে। টি-শার্টের ক্যানভাসে বাংলার সংস্কৃতি থেকে শুরু করে উঠে আসে বর্ণছটাও, যা শিশু থেকে তরুণ প্রাণ সবাই অঙ্গে জড়িয়ে নেন সাদরে।

ফ্যাশন হাউসগুলো এখন ছোট্ট শিশুদের জন্যও একুশের আয়োজনে পোশাক নিয়ে এসেছে। একুশ সামনে রেখে বিভিন্ন মোটিফ আর ডিজাইনের জামা পাওয়া যাচ্ছে বিপণিগুলোতে। ছোট মেয়েশিশুর জন্য রয়েছে একুশের মোটিফ এবং মনকাড়া ডিজাইনের সাদা-কালো জমিনের শাড়ি, জামা, টি-শার্ট। ছেলেশিশুর জন্যও রয়েছে পাঞ্জাবি, টি-শার্ট। ইচ্ছা করলেই আপনার ছোট্ট সোনামণির জন্য কিনে নিতে পারেন পছন্দের পোশাকটি। ছেলেমেয়ে উভয় শিশুর জন্যই রয়েছে এ আয়োজন। ফলে পরিবারের বড়দের সঙ্গে ছোট সদস্যও গায়ে জড়িয়ে নিতে পারবে সাদা কালোর একুশ।

পরিবারের সঙ্গে ছোট সদস্যটিও যেন একুশের চেতনায় দিনটি উদযাপন করতে পারে তাই এই আয়োজন। সর্বজনীন জাতীয় উৎসব একুশ যেমন ভাবগাম্ভীর্যতায় পরিপূর্ণ, তেমন ফ্যাশন জগতেও অনেকখানি স্থান দখল করে রেখেছে। তাই একুশের চেতনাকে মাথায় রেখে ডিজাইনাররা পোশাকে এনেছে সাদা-কালো রংয়ের ছোঁয়া।

এবারের মাতৃভাষা দিবসকে কেন্দ্র করে নিত্যউপহার শ্রদ্ধা জানাচ্ছে একজন বরণীয় মানুষকে। বাংলা সাহিত্যের ইতিহাসে যিনি বিশেষ অবদান রেখে গেছেন, তিনি হলেন ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর।

তার জন্মের দুইশত বছর উপলক্ষে নিত্যউপহার প্রকাশ করেছে দুটি টি-শার্ট। শিল্পী মোস্তাফিজ কারিগর ডিজাইন করেছেন 'বিদ্যার সাগর' এবং আমিনুল ইসলাম তুহিন ডিজাইন করেছেন 'দ্বিশত বিদ্যাসাগর'। এই দুটি নামের টি-শার্ট পাওয়া যাবে নিত্যউপহারের সব শাখায়।

এ ছাড়াও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস সামনে রেখে নিত্যউপহারে এসেছে বাহার রহমানের ডিজাইনে 'বঙ্গভাষা' ও 'একে বলতে পারো' নামে আরও দুটি টি-শার্ট।

বাংলা ভাষায় সনেট ও অমিত্রাক্ষর ছন্দের প্রবর্তক মাইকেল মধুসূদন দত্তের কথা বাঙালির অজানা নয়। তারই কবিতা 'বঙ্গভাষা' থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে ডিজাইন করা হয়েছে 'বঙ্গভাষা' টি-শার্টটি।

এ টি-শার্টটির জমিনে রয়েছে কবিতার পঙ্‌ক্তি, 'হে বঙ্গ, ভাণ্ডারে তব বিবিধ রতন' এবং অন্য টি-শার্টটির জমিনে বাংলা ভাষার একজন গুরুত্বপূর্ণ কবি শহীদ কাদরীর 'একে বলতে পারো' একুশের কবিতার পঙ্‌ক্তি।

নতুন এই চারটি টি-শার্ট ছাড়াও রয়েছে নিত্যউপহার এনেছে অন্যান্য একুশের পোশাক। এই টি-শার্টগুলো আপনি চাইলেই কিনতে পারেন নিত্যউপহারের শাহবাগ ও মোহাম্মদপুর বিক্রয়কেন্দ্র থেকে। অনেকেই এখন কাজের চাপে সময় করে উঠতে পারেন না। তাই পছন্দের পোশাকটির জন্য ঘরে বসেই অনলাইনে অর্ডার করতে পারেন। িি.িহরঃুধঁঢ়ধযধৎ.ংযড়ঢ় থেকে অনলাইনে অর্ডার করা যাবে সহজেই। আর দামও সাধ্যের মধ্যে। বড়দের টি-শার্টের মূল্য ৩৯০ এবং ছোটদের টি-শার্টের মূল্য ২৫০ টাকা।



মডেল: আযান, রহমান বাবু, রঙ্গন ও রিদ্ধ পোশাক :নিত্যউপহার

ছবি: হোসাইন আতাহার