বিভিন্ন পেশার মানুষ তারা। কেউ ব্যাংকার, কেউ শিক্ষার্থী অথবা কেউ ব্যবসায়ী। একটা জায়গায় তাদের আবেগ এক। তারা বাইকার। রাতভর বাইক চালিয়ে পাহাড়ি বান্দরবান। থানচি। পাহাড়ি নদী পেরিয়ে রেমাক্রি। তারপর বিভিন্ন পাহাড়ি জাতিসত্তার পাশে শীতবস্ত্র-বইখাতা নিয়ে দাঁড়ানো। এক দু'জন নয় ৫০ জন বাইকার চালিয়েছেন এই বাইক অভিযাত্রা। স্বাধীনতার পঞ্চাশ বছর পালনে তাদের এই অনন্য আয়োজন। 'স্বাধীনতার পঞ্চাশে/পাহাড়ে শীতার্তের পাশে' শীর্ষক স্লোগানে বান্দরবান অভিযাত্রায় ছিল সিআরবিজেডবিডি নামে এই বাইকার গ্রুপ। তারা থানচি এবং রেমাক্রিতে সামাজিক সংগঠন 'সুবাতাস-সুন্দর বাংলাদেশ ও তারুণ্যের সমন্বয়'-এর সহায়তায় শীতবস্ত্র ও শিশুদের বইখাতা বিতরণ করে। ঢাকার সেন্ট্রাল রোড থেকে রাতে যাত্রা শুরু করে দলটি। পরদিন সকালে বান্দরবান সদর হয়ে বিকেলে থানচি পৌঁছায় দলটি।

বাইক রাইডার গ্রুপটি তাদের তিন বছর বয়সে আগের সব স্বাধীনতা দিবসে নানা ধরনের আয়োজন করেছে। রক্তদান কর্মসূচি বা দরিদ্রদের পাশে দাঁড়ানোর মতো আয়োজন করেছে তারা। দলটির অন্যতম উদ্যোক্তা ব্যবসায়ী কাজী শাহেদ বলেন, স্বাধীনতার পঞ্চাশ বছর পূর্তি ও বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন করছি আমরা। বান্দরবান যাত্রা পাহাড়ের মানুষের পাশে দাঁড়ানো তার একটি অংশ। তিনি আরও বলেন, স্বাধীনতার ৫০ বছর আর বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী একটি অনন্যসাধারণ ঘটনা। আমরা বছর জুড়ে বাইক রাইডের নানা আয়োজন করব। এর মধ্যে সাত বীরশ্রেষ্ঠর জন্ম জেলাগুলো আমরা বাইকিং করে স্পর্শ করব। তিনি আরও বলেন, আমরা ৫০ জন দরিদ্র শিক্ষার্থীর পড়াশোনার দায়িত্ব নেওয়ার চেষ্টা করব। বাইক রাইডার সংগঠনে রাইডার হিসেবে অন্যদের মধ্যে আছেন শাহান আলম, মো. আশ্রাফুজ্জামান ইমরান, ফজলে রাব্বী, মাহবুবুল হক, আমিনুল হক রনি প্রমুখ।

মন্তব্য করুন