সুহৃদ সমাবেশ

সুহৃদ সমাবেশ

নয়নের মাঝখানে নিয়েছ যে ঠাঁই

'আবার দেখা হবে'

প্রকাশ: ০৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮

মুনশী তারিকুল আলম ডলার

সেই ২০১২ সাল থেকে সমকাল সুহৃদ সমাবেশের সঙ্গে কাজ করে আসছি। কিন্তু সমকাল সম্পাদক প্রয়াত গোলাম সারওয়ার ভাইয়ের সঙ্গে সামনাসামনি কথা বলার সুযোগ হয়েছে মাত্র একবার। দেখা হওয়ার দিন শেষ কথা ছিল- 'আবার দেখা হবে', সেই আশা যে ভেঙে যাবে কল্পনাও করতে পারিনি। এভাবে এত তাড়াতাড়ি প্রিয় ভাইকে হারিয়ে ফেলব মানতে পারছি না। যেটুকু সময় তার সান্নিধ্যে থেকে সময় কেটেছে সেই অনুভূতি সুহৃদদের জানাতেই এই লেখা-

গত ১৯ জুন ২০১৮ সমকালের সার্বিক সহযোগিতায় আমরা বগুড়ার চারজন সুহৃদ 'মাদককে না বলুন, বাল্যবিয়ে রুখে দিন' স্লোগানে সোনা মসজিদ থেকে বাইসাইকেল যাত্রা শুরু করি। আমাদের লক্ষ্য, এগারো দিনের মধ্যে সিলেটের তামাবিল পর্যন্ত যাওয়া এবং সবার মাঝে সচেতনতা বৃদ্ধি করা। সময় অনুযায়ী আমাদের সাইকেলযাত্রা শেষ করি ২৯ জুন দুপুরে। সাইকেলযাত্রা শেষ করে আমরা সিদ্ধান্ত নিই, ঢাকায় সমকাল অফিসে সাক্ষাৎ করে বগুড়া ফিরব। ৩০ জুন আমরা সিলেটে শাহজালাল (র.) মাজার জিয়ারত করে সন্ধ্যায় ঢাকার উদ্দেশে রওনা হই। ১ জুলাই সকাল ১১টায় আমাদের অভিযাত্রী দল সমকালের তেজগাঁও অফিসে পৌঁছাই। সেখানে প্রয়াত সারওয়ার ভাইসহ সমকালের বিভিন্ন কর্মকর্তা এবং সুহৃদ সমাবেশ কেন্দ্রীয় কমিটির সুহৃদরা মিলে আমাদের শুভেচ্ছা জানান। তখন সারওয়ার ভাই আমাদের পরম স্নেহে ফুলের তোড়া দিয়ে কাছে ডেকে নেন। বেশ কিছুক্ষণ তার সঙ্গে সমকাল অফিস ঘুরলাম এবং আমাদের গল্প চলতে থাকল। পরে নিজের অফিস কক্ষে নিয়ে বসালেন। আমাদের শারীরিক অবস্থার খোঁজ নিলেন। অভিযাত্রার অভিজ্ঞতা ও সাইকেল নিয়ে ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা বিষয়ে খুঁটিনাটি জানতে চাইলেন। আমরা আমাদের সাইকেলযাত্রার অভিজ্ঞতা এবং ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার ব্যাপারে জানালে তিনি আমাদের উৎসাহিত করে বলেন- 'সমকাল আপনাদের সমাজ বিনির্মাণের কাজে সর্বদা পাশে থাকার চেষ্টা করবে।' তিনি গল্পের মাঝেই আমাদের আপ্যায়নের ব্যবস্থা করলেন এবং দুপুরের খাবারের ব্যাপারে খোঁজ নিলেন।

সবশেষে 'ভালো কাজ করতে আবার দেখা হবে' এই আশা ব্যক্ত করে আমরা ভাইয়ের কক্ষ থেকে বিদায় নিই। কিন্তু সে দেখাই যে তার সঙ্গে শেষ দেখা হবে, এটা কল্পনাও করিনি। প্রত্যেককেই মৃত্যুর স্বাদ নিতে হবে- এই কথা ভেবে নিজেকে সান্ত্বনা দেওয়া ছাড়া আর উপায় নেই। তিনি যেখানেই থাকুন না কেন ভালো থাকুন, আমরা সবাই তার বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করি। আমি মনেপ্রাণে বিশ্বাস করি যতদিন সুহৃদ সমাবেশ থাকবে, ততদিন তিনি সুহৃদদের মাঝে চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবেন।

সভাপতি সুহৃদ সমাবেশ, বগুড়া