সুহৃদ সমাবেশ

সুহৃদ সমাবেশ

আসুন, হাদিকে বাঁচাতে পাশে দাঁড়াই

প্রকাশ: ১৬ জুলাই ২০১৯

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে কারও রক্তের প্রয়োজন, কারও পড়াশোনা টাকার অভাবে হচ্ছে না কিংবা কারও টিউশনি দরকার- হাসিমুখে সবার আগে যিনি এগিয়ে আসতেন, তিনি গাজী হাদিউজ্জামান। সর্বদা তার মুখ থাকত হাসিখুশি। যে কোনো প্রয়োজনে, সবার সাহায্যে সবার আগে ঝাঁপিয়ে পড়তেন তিনি। গত বছর বন্যার্তদের সাহায্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল শিক্ষার্থী নিয়ে উত্তরবঙ্গে দুর্গত মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন হাদিউজ্জামান। নিয়মিত রক্তদান ও মুমূর্ষুদের জন্য রক্ত সংগ্রহ করে দেওয়ার মধ্যে আনন্দ খুঁজে পেতেন তিনি।

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সবচেয়ে প্রাণবন্ত মুখগুলোর অন্যতম গাজী হাদিউজ্জামান। বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের ষষ্ঠ সেমিস্টারের এ ছাত্রটি সমকাল সুহৃদ সমাবেশের বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় শাখার প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে কাজ করছেন। বর্তমান কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক তিনি। এর আগে অর্থ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছেন। এ ছাড়া ক্যাম্পাসে একাধিক সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের সঙ্গে জড়িত তিনি।

সদা হাস্যোজ্জ্বল এ ছাত্রটি এখন দুরারোগ্য ব্যাধি জিবিএস (এইঝ) ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ঢাকা নিউরোসায়েন্স হাসপাতালে শয্যাশয়ী। তার শরীরের আংশিক প্যারালাইজড হয়ে গেছে এবং ধীরে ধীরে পুরো শরীরে ছড়িয়ে পড়ছে। কিডনি সমস্যা, অ্যাজমা ও উচ্চ রক্তচাপের কারণে ডায়ালাইসিস করা সম্ভব হচ্ছে না। বিকল্প চিকিৎসার জন্য চিকিৎসকরা ভ্যাকসিন দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন। যার প্রতিটির মূল্য ১ লাখ ৪৮ হাজার ৩০০ টাকা। পাঁচটি ভ্যাকসিন নিতে মোট ব্যয় হবে প্রায় ৯ লাখ টাকা। নিম্ন-মধ্যবিত্ত পরিবারের সন্তান হাদিউজ্জামানের এ চিকিৎসা ব্যয় বহন করা তার পরিবারের পক্ষে অসম্ভব হয়ে পড়েছে।

ছোটবেলায় বাবা হারানো হাদিউজ্জামান কর্মঠ এবং জীবন সংগ্রাম করে বেড়ে ওঠা একজন মানুষ। আজ তিনি টাকার অভাবে জীবনযুদ্ধের কাছে হারতে বসেছেন। মেধাবী এ ছাত্রটির প্রাণ বাঁচাতে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় পরিবার উদ্যোগ নিয়েছে। যে যার মতো অর্থ সাহায্যে করছে। তাকে বাঁচাতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ঝঃধহফ ঋড়ৎ ঐধফর নামক ইভেন্ট খোলা হয়েছে এবং সাহায্যের জন্য সমাজের সবস্তরের মানুষের কাছে অনুরোধ জানানো হয়েছে।

আর্থিক সাহায্যের জন্য বিকাশ করতে পারেন

০১৯৮০৭৫২১০৬, ০১৬২২৪২৫৬০৬

যোগাযোগ-

০১৭১৬-৯৭১০৫৩, ০১৭০৬৯৪৪৬৭৭

অথবা সমকাল সুহৃদ সমাবেশ কেন্দ্রীয় কার্যালয়-

৩৮৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা। ফোন :৫৫০২৯৮৩২