সুহৃদ সমাবেশ

সুহৃদ সমাবেশ

নোবিপ্রবি ও কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে মানববন্ধন

প্রকাশ: ১৬ জুলাই ২০১৯

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় তোফাজ্জল হোসেন

'ধর্ষকের শাস্তি চাই ধর্ষিতার নয়', 'ধর্ষকের উল্লাস ধর্ষিতার কান্না মেনে নেব আর না' লিখিত প্ল্যাকার্ড নিয়ে সারাদেশে অব্যাহত খুন ও ধর্ষণের প্রতিবাদে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় সুহৃদ সমাবেশ মানববন্ধন করেছে। ১১ জুলাই সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটকে এ মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়।

এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের সুহৃদের সদস্যদের সঙ্গে সাধারণ শিক্ষার্থীরা খুন ও ধর্ষণের বিরুদ্ধে অবস্থান নেওয়ার অঙ্গীকার করেন। শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায় থেকে জনসচেতনতা শুরু করারও কথা বলেন। সমকাল সুহৃদ কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের যুগ্ম আহ্বায়ক মাহাবুবুল আলমের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন সমকালের কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি আবু বকর রায়হান, আহ্বায়ক দ্বীন মোহাম্মদ। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদেও পক্ষে বক্তব্য রাখেন কাউছার হামিদ পিউল ও এরশাদ হোসেন। সমকাল প্রতিনিধি আবু বকর রায়হান তার বক্তব্যে বলেন, 'আমরা বলি মেয়েদের পোশাকে সমস্যা। তাই তাদের ধর্ষিত হতে হয়। কিন্তু অবুঝ শিশুগুলো কেন ধর্ষিত হয়? সমস্যা কি পোশাকে, নাকি আমাদের বিকৃত মনে? আগে নিজেদের মনকে ঠিক করতে হবে।'

সুহৃদ আহ্বায়ক দ্বীন মোহাম্মদ বলেন, আজ দেশের প্রতিটি জনপদে হাহাকার চলছে। মেয়েরা ভয়ে পালিয়ে বাঁচতে চায়। তাদের নিরাপত্তা কে দেবে? প্রধানমন্ত্রীর কাছে অনুরোধ করব, আমাদের মা-বোনদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করুন। সেই সঙ্গে দেশে ধর্ষকদের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ডের আইন পাস করুন। এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীরা বক্তব্য রাখেন। শিক্ষার্থীরা তাদের বক্তব্যে দেশের বর্তমান অবস্থার কথা বিবেচনা করে রাষ্ট্রকে খুন, ধর্ষণের মতো অপরাধের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার আহ্বান জানান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সুহৃদ বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সদস্য বিল্লাল, আনিস, সোহেল, নাহিয়ান, মনিরসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীরা।

হ সুহৃদ, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়

নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

আব্দুর রহিম

ধর্ষণ ও নারী নির্যাতনের প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে নোবিপ্রবি সুহৃদ সমাবেশ। দেশজুড়ে এ নির্যাতন প্রকট আকার ধারণ করেছে। ধর্ষণ, নির্যাতন ও হত্যার মতো ঘৃণ্য অপরাধের প্রতিবাদ জানিয়েছেন নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (নোবিপ্রবি) সুহৃদ সমাবেশ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

১৪ জুলাই রোববার সকাল ১০টায় সাধারণ শিক্ষার্থীদের উদ্যোগে আয়োজিত মানববন্ধনে এ প্রতিবাদ জানানো হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে ওই মানববন্ধনে সমকাল সুহৃদ সমাবেশের সভাপতি আবদুর রহিমের সঞ্চালনায় এতে উপস্থিত ছিলেন ম্যানেজমেন্ট ইনফরমেশন সায়েন্স বিভাগের প্রভাষক আল-আমিন শিকদার, সমকাল সুহৃদ সমাবেশ নোবিপ্রবির সাধারণ সম্পাদক তাহসিন মাহমুদ সাকিব, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নাদিয়া রহমান স্মরণ, দপ্তর সম্পাদক রাজিয়া জান্নাত, প্রচার সম্পাদক মাহমুদুল হাসান আরিফ, নারী বিষয়ক সম্পাদক দিলরুবা জাহান রুমী, সহ-অর্থ সম্পাদক নুসরাত জাহান নিশু, সহ-প্রচার সম্পাদক রফিকুল আমিন সৈকত, সহ-সাংস্কৃতিক সম্পাদক জান্নাতুন নাঈম, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদক এসএম আহম্মেদ ফাহিম, সদস্য তাহমিনা তমা, নঈমুল ইসলাম, সাবিকুন নাহার সাবাসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

মানববন্ধনে ম্যানেজমেন্ট ইনফরমেশন সায়েন্স বিভাগের প্রভাষক আল-আমিন শিকদার বলেন, বর্তমানে ধর্ষণ একটি সামাজিক ব্যাধিতে পরিণত হয়েছে। এর প্রধান কারণ বিচারহীনতার সংস্কৃতি। এখন মা-বাবা তার সন্তান নিয়ে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছেন। আমরা চাই বিচারহীনতার সংস্কৃতি থেকে বেরিয়ে সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে দোষীদের বিচারের আওতায় আনা হোক এবং প্রধানমন্ত্রীর প্রতি আহ্বান জানাই ধর্ষকদের যাতে সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড আইন করে তা কার্যকর করা হয়।

সমকাল সুহৃদ সমাবেশের সাধারণ সম্পাদক তাহসিন মাহমুদ সাকিব বলেন, বিচারের ধীর গতির কারণেই ধর্ষকরা আজ আস্কারা পাচ্ছে। ধর্ষকের সাজার ব্যবস্থা জনসমক্ষে দুই সপ্তাহের মধ্যে করতে পারলে এ ঘৃণ্য অপরাধীদের দেখে অন্যরাও শিক্ষা পেত। শুধু সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সীমাবদ্ধ না থেকে মানববন্ধন ও সচেতনতা সৃষ্টির মাধ্যমে আমাদের ধর্ষণের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে। ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করতে হবে।

সহ-সাংস্কৃতিক সম্পাদক জান্নাতুন নাঈম বলেন, দু'লাখ মা-বোনের ইজ্জতের বিনিময়ে যে স্বাধীনতা আমরা পেয়েছি তা সমাজের কিছু কীটের হাতে তুলে দিতে পারি না। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে আকুল আবেদন, দেশ ও জাতির এই সংকট নিরসনে বিচার বিভাগের নিরপেক্ষতা নিশ্চিত করে, আমাদের নিরাপত্তা জোরদার করে ধর্ষকের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করতে হবে।

মানববন্ধনে বিশ্ববিদ্যালয়ের শতাধিক শিক্ষক-শিক্ষার্থী উপস্থিত হয়ে সামাজিক প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহ্বান জানান।

হ সভাপতি সুহৃদ সমাবেশ নোবিপ্রবি