সুহৃদ সমাবেশ

সুহৃদ সমাবেশ


আপন ভুবন

প্রকাশ: ১৬ জুলাই ২০১৯      

আবুল কালাম আজাদ

পথ চলছি আমি পৃথিবীর পথে। সবাই যেমন ছুটছে। তেমনি আমিও। সবার চেহারাতেই ক্লান্তির ছাপ। পাওয়ার নেশা। তাকে এটা পেতে হবে অথবা ওটা। আবার যেটা পেল সেটি তার চাওয়ার ছিল না। এই চাওয়া-পাওয়ার নেশায় মানুষ শুধুই ছুটছে আর ছুটছে। মানুষ ছুটছে গ্রহ থেকে গ্রহান্তরে। একজন অন্যজনেরটা ছিনিয়ে নিচ্ছে। লাগছে বিরোধ, হট্টগোল, কোথায়ও ফাটছে বোমা, মরছে মানুষ। আরও কত কী!

এবার একটু ভিন্নভাবে বলি। ওই যে ব্রহ্মপুত্রের ও-পাড়ের ওইপাশে গ্রামের ঠিক পেছনেই দিগন্ত দেখা যাচ্ছে, ওখানেই আকাশ মাটির সঙ্গে মিশেছে। চলো যাই। আকাশ ছুঁয়ে আসি। মিতালি করি আকাশের সঙ্গে। গেলাম। কই! আকাশ যে ওখানে নেই! আমরা তবে ভুল দেখেছি। আকাশটা আসলে ওই যে দূরে অন্য একটি গ্রাম দেখা যাচ্ছে, ওখানে। আবারও আকাশ ছোঁয়ার আশায় ছুটে চলা। ওতটুকু যখন এসেই গেছি, আকাশটা তবে ছুঁয়েই যাব। পৌঁছলাম। কিন্তু কই! আকাশটা তো ওখানেও নেই। তবে কি আকাশটা আরও দূরে যে গ্রামটা, পাহাড়টা, নদীটা, সাগরটা... ওখানে!

আরও ভিন্নভাবে বলি। আব্বাস আলী প্রতিদিন হেঁটে বেড়ান; কাজ করেন এখানে-ওখানে। তার মনে ইচ্ছা জাগল তিনি একটি বাইসাইকেল কিনবেন। কিনলেন। বেড়ালেন। কিছুদিন পর তার মনে ইচ্ছে জাগল তিনি একটি মোটরসাইকেল কিনবেন। কিনলেন। আরও পরে মনে সাধ জন্মাল তার একটি গাড়ি থাকলে ভালো হয়। কিনলেন। চালালেন। ভালো লাগছে না। এর চেয়ে বরং তার একটি লম্বা ট্রেন হলে ভালো লাগত। অনেকদিন প্রতীক্ষার পর অনেক টাকা খরচ করে আব্বাস আলী একদিন একটি লম্বা ট্রেন কিনলেন। সেই ট্রেনে করে তিনি অনেক জায়গায় ঘুরলেন। মনের আনন্দে বেশ কিছুদিন কাটালেন। তবে ট্রেনেও তার ইচ্ছার পুরোটা মিটছে না। অন্য কিছু হলে ভালো হয়। কী করা যায় এ রকম ভাবতে ভাবতে তিনি একটি হেলিকপ্টার কিনলেন। দেশ-বিদেশ ঘুরে বেড়িয়ে তিনি দেখলেন, এটাতেও তার সাধ পূরণ হওয়ার নয়। ভালো লাগছে না। একটি বড় বিমান হলে কেমন হয়! কিনলেন। বিমানে চড়ে দেশ-বিদেশ-সীমান্ত-দিগন্ত বেড়িয়ে তার সাধ শতভাগ পূরণ হলো না। তার মনের আকুতি কিছুতেই কিছু হচ্ছে না। কিছুই ভালো লাগছে না। ভালো লাগে না। কিচ্ছু না! আর চলছে না। কোনো কিছুতেই শান্তি নেই- নেই স্বস্তি। একদিকে চাওয়া-পাওয়ার নেশা, অন্যদিকে আকাশচুম্বী অর্জন কোনো কিছুতেই জীবন পূর্ণ নয়। তার চেয়ে বরং আপনার মস্তিস্কে-মননে-মগজে একটি আলাদা জগৎ তৈরি করুন এবং অস্বস্তির মুখোমুখি হলেই সেই ভুবনে ডুব দিন। হারিয়ে যান কিছুক্ষণের জন্য, বেড়িয়ে আসুন আপনার ভাবনার জগতে। যাতনা-যন্ত্রণা থেকে রেহাই পাওয়া যাবে কিছুক্ষণের জন্য হলেও। এই যে দেখুন, বিশাল বিস্তৃত তারা ভরা আকাশ। আকাশ থেকে তারা ঝরছে। ভয় নেই! হাজার বছর ঝরলেও ভয় নেই। আকাশ কখনও তারাহীন ছিল না, আকাশ কখনও তারাহীন হবেও না। তাই আসুন, আমারা যে যার কাছে, যে যার যুগের কাছে সত্য হয়ে প্রতিভাত হয়ে উঠি। একটি নতুন পৃথিবী পেতে সময় এসেছে আজ।

হ সভাপতি সুহৃদ সমাবেশ, ময়মনসিংহ