অত্যন্ত আনন্দের সঙ্গে জানাচ্ছি, ২৭ এপ্রিল '৫০০ টাকায় ঈদের খুশি' প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে কর্মহীন ও সুবিধাবঞ্চিত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান করা হলে অনেক সহৃদয় ব্যক্তি এগিয়ে আসেন। সহায়তা আসে মোট ৩ লাখ ৫৫ হাজার ৯৬০ টাকা। আপনাদের সবার সহায়তা ও অংশগ্রহণে গত ৯, ১০ ও ১১ মে ঈশ্বরদী, ময়মনসিংহ, সিলেট, রংপুর, নওগাঁ, জামালপুর, পঞ্চগড় ও ঢাকার তেজগাঁও এবং মিরপুরে কর্মহীন ও সুবিধাবঞ্চিত ৫৪৪টি পরিবারের মাঝে ঈদসামগ্রী দেওয়া হয়। উপহারের প্রতিটি প্যাকেটে ছিল চিনিগুঁড়া চাল দুই কেজি, সয়াবিন তেল এক লিটার, চিনি এক কেজি, চিকন সেমাই এক প্যাকেট, লাচ্ছা সেমাই এক প্যাকেট, গুঁড়ো দুধ এক প্যাকেট, নুডলস দুই প্যাকেট। প্রতি প্যাকেটের খরচ হয়েছে ৭০০ টাকা। বাড়তি টাকা সমন্বয় করা হয়। বিভিন্নভাবে যারা এই শুভ উদ্যোগের সঙ্গে যুক্ত হয়েছেন সবার প্রতি সমকাল সুহৃদ সমাবেশের পক্ষ থেকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা

তেজগাঁও
সমকাল প্রতিবেদক

করোনাকালে এলো আরেকটি ঈদ। সংকটময় এই পরিস্থিতিতে করোনায় কর্মহীন ও সুবিধাবঞ্চিত পরিবারের কথা ভেবে, বিশেষ করে পরিবারের শিশুদের জন্য কিছু করার চেষ্টায় সমকাল সুহৃদ সমাবেশের উদ্যোগে '৫০০ টাকায় ঈদের খুশি' কর্মসূচির আওতায় দু'দফায় রাজধানীর তেজগাঁওয়ে করোনার কারণে কর্মহীন ও সুবিধাবঞ্চিত ১৩৫ জনের হাতে তুলে দেওয়া হয় '৫০০ টাকায় ঈদের খুশি'র ঈদ উপহার। ১০ মে টাইমস মিডিয়া প্রেস প্রাঙ্গণে কর্মসূচির সূচনা করেন সমকালের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মুস্তাফিজ শফি। তিনি বলেন, সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে সমকালের পাঠক সংগঠন সুহৃদ সমাবেশ যে কোনো দুর্যোগ-দুর্বিপাকে সুবিধাবঞ্চিতদের পাশে থেকেছে, আগামীতেও থাকবে। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সমকালের প্রধান প্রতিবেদক লোটন একরাম, সহকারী সম্পাদক ও সমকাল সুহৃদ সমাবেশের প্রধান সিরাজুল ইসলাম আবেদ, সহ-সম্পাদক আসাদুজ্জামান প্রমুখ।

'করোনার কারণে কাজ-কাম আর আগের মতো নাই। কাম না করলে পয়সা পামু কই? কয় দিন বাদে ঈদ। তাই দুশ্চিন্তায় আছিলাম- ঈদ করমু কেমনে? এখন এইসব উপহার পাইয়া খুব উপকার হইল'- বলছিলেন বেগুনবাড়ী থেকে ঈদ উপহার নিতে আসা দিনমজুর রাজীব। একই রকম কথা শোনা গেল ষাটোর্ধ্ব মনসুর আহমেদের কাছে। রোগাক্রান্ত মনসুর অশ্রুসিক্ত কণ্ঠে বলেন, 'এবার ঈদে পোলাও খাইতে পারমু- চিন্তাই করি নাই।' উপহারের প্রতিটি প্যাকেটে ছিল দুই কেজি চাল, এক লিটার তেল, এক কেজি চিনি, দুই প্যাকেট সেমাই, এক প্যাকেট গুঁড়া দুধ, দুই প্যাকেট নুডলস ও সাবান।


মিরপুর
তরিকুল ইসলাম

মিরপুরের ইব্রাহীমপুর প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে ১০ মে দুপুর থেকেই সুহৃদরা প্রস্তুত ছিলেন। তেজগাঁওয়ে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ শেষে মিরপুরে পৌঁছায় সুহৃদের গাড়ি। আগে থেকেই কর্মহীন ও সুবিধাবঞ্চিত পরিবারের তালিকা করা হয়েছিল। বিকেল ৪টার মধ্যেই সবাই উপস্থিত হন বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে। সুহৃদ সমাবেশ মিরপুরের উপদেষ্টা অধ্যাপক মশিউর রহমানের ব্যবস্থাপনায় সুহৃদরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে এলাকার দরিদ্র ও কর্মহীন ৫০টি পরিবারের প্রতিনিধির কাছে ঈদ উপহার হস্তান্তর করেন '৫০০ টাকায় ঈদের খুশি'র উপহার। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সমকালের সহ-সম্পাদক আসাদুজ্জামান, মিরপুর সুহৃদ উপদেষ্টা আনিসুর রহমান, সভাপতি তরিকুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক তানভির রহমান ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মির্জা জীম। খাদ্যসামগ্রী বিতরণ কার্যক্রমে অংশ নেন মিরপুরের সুহৃদ সদস্যরা।

সভাপতি সুহৃদ সমাবেশ, মিরপুর



সিলেট
সুব্রত বসু

সিলেটে '৫০০ টাকায় ঈদের খুশি' কর্মসূচির আওতায় ৫০টি পরিবারের সদস্যদের হাতে ঈদ উপহার তুলে দেওয়া হয়। নগরীর আখালিয়া মোহাম্মদি আবাসিক এলাকা থেকে উপহার নিতে আসা সাকির আলী বলেন, 'দুঃসময়ে যা পেয়েছি তা লাখ টাকার চেয়েও বেশি। ঈদের আগে জিনিসপত্র পাওয়ায় ঈদের দিন খেতে আর অন্যকিছু কেনা লাগবে না।' একই কথা বলেন নগরীর মুন্সিপাড়ার বাসিন্দা নারী শ্রমিক নার্গিস। দুপুরে সমকাল সিলেট ব্যুরো কার্যালয়ে এসব ঈদ উপহার তুলে দেন ব্যুরোপ্রধান চয়ন চৌধুরী, স্টাফ রিপোর্টার মুকিত রহমানী, স্টাফ ফটোসাংবাদিক ইউসুফ আলী, সমকাল সুহৃদ সমাবেশ সিলেটের সভাপতি সুব্রত বসু, সাধারণ সম্পাদক সজীব চৌধুরী, সিনিয়র সহ-সভাপতি সুজিত দাস, দপ্তর সম্পাদক শহীদ আহমদ সাকিব প্রমুখ।

সভাপতি সুহৃদ সমাবেশ, সিলেট



রংপুর
এহসানুল হক সুমন

রংপুর নগরীর সেন্ট্রাল রোডে আলমনগর, বাহার কাছনা, সেন্ট্রাল রোডসহ বিভিন্ন এলাকার অসচ্ছল, কর্মহীন ও সুবিধাবঞ্চিত ৫০টি পরিবারের মধ্যে ঈদ উপহার বিতরণ করা হয়। ১০ মে '৫০০ টাকায় ঈদের খুশি' কর্মসূচির আওতায় ঈদ উপহার বিতরণের সময় উপস্থিত ছিলেন নর্দান প্রাইভেট মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. খলিলুর রহমান, সমকালের রংপুরের স্টাফ রিপোর্টার মেরিনা লাভলী, রংপুর মেট্রোপলিটন চেম্বারের পরিচালক সাব্বির আহমেদ, সমাজসেবক হিমু চৌধুরী, বাবু চৌধুরী, রংপুর সুহৃদ সমাবেশের সভাপতি আজহারুল ইসলাম দুলাল, শিক্ষক হাসেম আলী, রংপুর সুহৃদের সাধারণ সম্পাদক এহসানুল হক সুমন, সুহৃদ সাব্বির পারভেজ সজীব, হাসনাইন আহমেদ নয়ন, আরমান হোসেন, অর্জুন রায়, নভেল চৌধুরী প্রমুখ।

সাধারণ সম্পাদক সুহৃদ সমাবেশ, রংপুর



ময়মনসিংহ
আবুল কালাম আজাদ

বৃদ্ধা আমেনা খাতুনের স্বামী মারা গেছেন ২২ বছর আগে। স্বামীর মৃত্যুর পর তিন মেয়ে ও এক ছেলেকে নিয়ে পড়েন অথৈ সাগরে। মেয়েদের বিয়ে হয়ে গেলেও ছেলে শারীরিকভাবে অসুস্থ। তাই মানুষের বাড়িতে কাজ করে চলছিল তার জীবন। নিজের শরীরের নানা ব্যাধির কারণে ৫টি অস্ত্রোপচার হয়েছে। কয়েক মাস আগেও এনজিও থেকে ৩০ হাজার টাকা ঋণ নিয়ে অস্ত্রোপচার করান। মানুষের বাড়িতে কাজ করে ও হাত পেতে সংগ্রহের ৩ হাজার ৩৬০ টাকা ঈদের আগেই দিয়েছেন ঋণের কিস্তি। সব টাকা কিস্তি দিয়ে দিশাহীন অবস্থায় ঘুরছিলেন। ওই অবস্থায় ঘরে একটু সেমাই নেওয়ার উপায় ছিল না তার। সমকাল সুহৃদ সমাবেশের আয়োজন থেকে ঈদসামগ্রী পেয়ে আপ্লুত হয়ে পড়েন আমেনা।

আমেনার বাড়ি ময়মনসিংহ সদরের গোপিনাথপুর এলাকায়। তার স্বামী ছিলেন মিরাস উদ্দিন। আমেনা আক্ষেপ করে জানান, কষ্টের জীবন তার। ঋণের কিস্তি দিয়েও ২ হাজার টাকা হাতে থাকার কথা ছিল। একটি বাসায় গৃহপরিচারিকার কাজ করতেন ২ হাজার টাকায়। করোনার কারণে বাসায় যেতে দেওয়া হয় না।

সোমবার ময়মনসিংহের সোনালী ব্যাংক চত্বরে করোনায় কর্মহীন ও সুবিধাবঞ্চিতদের জন্য উপহার হিসেবে ৫০ পরিবারের হাতে ঈদে উপহার তুলে দিয়েছেন সমকাল সুহৃদ সমাবেশের সদস্যরা। সুহৃদ সমাবেশের এবারের ঈদ সহায়তার স্লোগান '৫০০ টাকায় ঈদের খুশি' কর্মসূচির অংশ হিসেবে এই ঈদ উপহার দেওয়া হয়। শুধু আমেনা নয়, কর্মহীন অসহায় মানুষগুলো সমকাল সুহৃদের পক্ষ থেকে ঈদসামগ্রী পেয়ে খুব খুশি হয়েছেন। ঈদসামগ্রী বিতরণের সময় উপস্থিত ছিলেন- সোনালী ব্যাংকের সিনিয়র প্রিন্সিপাল অফিসার মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন, প্রিন্সিপাল অফিসার আবদুল হান্নান, তারিকুল ইসলাম, সংগঠক আলী ইউসুফ, সমকাল প্রতিনিধি মোস্তাফিজুর রহমান, সুহৃদ সমাবেশের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ, সাধারণ সম্পাদক আরফি আহমেদ ফকির প্রমুখ।

হবিগঞ্জের বালিগাঁও গ্রামের আলফু মিয়ার স্ত্রী বেদেনা আক্তার। শারীরিক অসুস্থতায় কাজ করতে পারেন না। এর মধ্যে তাদের ছেলে সাত বছর বয়সী রাজ্জাক হার্নিয়া রোগে আক্রান্ত হয়ে ভুগছে। তারা গত ৩ মাস আগে ময়মনসিংহ শহরে আসেন ছেলের চিকিৎসা করানোর জন্য। ঈদ উপহার হিসেবে তাদের ঘরেও যাচ্ছে বলেন তিনি। বেদেনা বলেন, 'আপনারার উপহার দিয়া পোলাপান লইয়া বালা কইরা ঈদ করাম।'

সভাপতি সুহৃদ সমাবেশ, ময়মনসিংহ


নওগাঁ
আব্দুল্লাহ আল রাজি সরোজ

সংকটময় এই পরিস্থিতিতে করোনায় কর্মহীন ও সুবিধাবঞ্চিত পরিবারের মাঝে '৫০০ টাকায় ঈদের খুশি'র ঈদ উপহার বিতরণ করা হয়েছে। নওগাঁ সরকারি কেডি উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে প্রধান অতিথি থেকে উপহারসামগ্রী বিতরণ করেন সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মির্জা ইমাম উদ্দিন। এ উপলক্ষে সুহৃদ সমাবেশ-নওগাঁ জেলা সভাপতি গুলশান আরা মনির সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন- নওগাঁ সড়ক ও জনপথের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. সাজেদুর রহমান, সাবেক অধ্যক্ষ অধ্যাপক শরিফুল ইসলাম খান, জেলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি বিশ্বজিৎ সরকার মনি, সমকালের নওগাঁ প্রতিনিধি এমআর ইসলাম রতন, জেলা সুহৃদের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল রাজি সরোজ, যুগ্ম সম্পাদক কাজী নাজমুন নাহার নীলা প্রমুখ। খাদ্যসামগ্রী বিতরণ কর্মসূচির সার্বিক সহায়তায় ছিলেন নওগাঁর সুহৃদরা।

সাধারণ সম্পাদক সুহৃদ সমাবেশ, নওগাঁ

পঞ্চগড়
রফিকুল ইসলাম

গত বছর থেকে ঈদের সেই খুশিতে ভাটা পড়েছে। চলমান কঠোর লকডাউনের কারণে দুর্ভোগে নিম্ন আয়ের মানুষ। করোনা মহামারির বর্তমান অবস্থায় তারা দৈনন্দিন খাবারের টাকা জোগাড় করতেই হিমশিম খাচ্ছেন। বিশেষ করে পরিবহন শ্রমিক, হোটেল শ্রমিকসহ খেটে খাওয়া মানুষের মাঝে এবারও ঈদে খুশি নেই। এমন সংকটকালে সুবিধাবঞ্চিত কিছু মানুষের মুখে একটুখানি খুশি আনতে এগিয়ে এসেছে সমকাল সুহৃদ সমাবেশ। কিছু মানুষের মুখে হাসি ফোটানোর অংশ হিসেবে পঞ্চগড়েও ৫০ কর্মহীন-সুবিধাবঞ্চিত পরিবারের মাঝে '৫০০ টাকায় ঈদের খুশি' ঈদ উপহার প্রদান করা হয়। জেলা শহরের মসজিদপাড়া মহল্লার কেন্দ্রীয় গোরস্তান জামে মসজিদ মাঠে আশপাশ এলাকার ৫০ জনের মাঝে এই ঈদ উপহার দেওয়া হয়। কেন্দ্রীয় সমকাল সুহৃদ সমাবেশের সহযোগিতা এবং পঞ্চগড় সুহৃদ সমাবেশের আয়োজনে বিতরণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন পঞ্চগড় সরকারি মহিলা কলেজের প্রাক্তন উপাধ্যক্ষ মো. মিজানুর রহমান চৌধুরী, ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার কলেজিয়েট স্কুল অ্যান্ড কলেজের সহকারী শিক্ষক ও সুহৃদ সমাবেশের উপদেষ্টা আজহারুল ইসলাম জুয়েল, পঞ্চগড় সমকাল সুহৃদ সমাবেশের সভাপতি মো. রফিকুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান হাবিব, সমকালের স্থানীয় প্রতিনিধি সফিকুল আলমসহ স্থানীয় সুহৃদরা।

জামালপুর
নূরে আলম খান সুজন

জামালপুর সদর উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে সুহৃদ সমাবেশের উদ্যোগে আয়োজিত ঈদ উপহার ৫০টি পরিবারের সদস্যদের হাতে তুলে দেওয়া হয়। ঈদ উপহারের খাদ্যসামগ্রী তুলে দেওয়ার আগে সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সুহৃদ সমাবেশ-জামালপুর জেলা সভাপতি জাহিদুল আলম সোহেলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় অতিথি ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান মো. আবুল হোসেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা লিটুস লরেন্স চিরান, সুহৃদ সমাবেশের উপদেষ্টা সমকালের নওগাঁ জেলা প্রতিনিধি আনোয়ার হোসেন মিন্টু, এশিয়ান টিভির জেলা প্রতিনিধি মোস্তাফিজুর রহমান প্রমুখ। সঞ্চালনা করেন সুহৃদ সমাবেশ জামালপুর জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক নূরে আলম খান সুজন। খাদ্যসামগ্রী বিতরণ কর্মসূচির সার্বিক সহায়তায় ছিলেন জামালপুর সুহৃদ সদস্যরা।

সাধারণ সম্পাদক সুহৃদ সমাবেশ, জামালপুর



ঈশ্বরদী
সেলিম সরদার

গত ৯ মে '৫০০ টাকায় ঈদের খুশি' কর্মসূচির সূচনা হয় পাবনার ঈশ্বরদীতে করোনায় কর্মহীন ও সুবিধাবঞ্চিতদের জন্য উপহার হিসেবে ৫০টি পরিবারের হাতে ঈদের বাজার তুলে দেওয়ার মধ্য দিয়ে। সুহৃদ সমাবেশের এবারের ঈদ সহায়তার স্লোগান '৫০০ টাকায় ঈদের খুশি'। এ উপলক্ষে সাপ্তাহিক ঈশ্বরদী চত্বরে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ঈশ্বরদীর ইউএনও পিএম ইমরুল কায়েস। তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে এসব পরিবারের সদস্যদের হাতে ঈদ উপহারের ব্যাগ তুলে দেন। ইউএনও বলেন, সমকাল শুধু সংবাদ প্রকাশ করেই তাদের দায়িত্ব পালন শেষ করে না; সামাজিক দায়িত্ববোধ থেকে অসহায় ও কর্মহীন মানুষের পাশে যেভাবে দাঁড়িয়েছে তা অনুকরণীয়।

'ঈদের আগে ব্যাগভর্তি ঈদের বাজার এভাবে পাব, তা কখনও কল্পনা করিনি।' সমকাল সুহৃদ সমাবেশের দেওয়া ঈদের উপহার পেয়ে আনন্দে এ কথা বলছিলেন ঈশ্বরদীর সাঁড়া গোপালপুর গ্রামের হতদরিদ্র মনোয়ারা বেগম। শহরের বস্তিপাড়ার বাসিন্দা দিনমজুর মনিরুল ইসলাম বলেন, করোনায় কাজ হারিয়ে যখন ঈদের বাজার নিয়ে মহা দুশ্চিন্তায় ছিলাম, তখন এ উপহার পেয়ে মনে হচ্ছে, ঈদের চাঁদ হাতে পেয়েছি।

সুহৃদ সভাপতি আর. কে. বাবুর সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক মাসুদুল ইসলাম মাসুদের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা ফজলুর রহমান ফান্টু, স্বর্ণকলি বিদ্যাসদনের প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালক মনিরুল ইসলাম বাবু, সুহৃদ সহ-সাধারণ সম্পাদক আলমাস হোসেন হিটু খন্দকার, সুহৃদ পিয়ারুল ইসলাম প্রমুখ।

ঈশ্বরদী (পাবনা) প্রতিনিধি

মন্তব্য করুন