চ্যাম্পিয়নস লিগের কোয়ার্টার ফাইনালেই এবার প্রতিশোধ নেওয়ার সুযোগ পেয়ে গেছেন নেইমার-এমবাপ্পেরা। গত মৌসুমে চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালে বায়ার্ন মিউনিখের কাছে হেরে স্বপ্ন ভঙ্গ হয়েছিল পিএসজির। এবার কোয়ার্টার ফাইনালেই একে অপরের মুখোমুখি হচ্ছে তারা।

ওদিকে লিগে সময়টা খুবই খারাপ যাচ্ছে লিভারপুলের। শেষ চারে থেকে শেষ করাই বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে জার্গেন ক্লপের দলের জন্য। লিগ শিরোপার আশা শেষ হওয়ায় চ্যাম্পিয়নস লিগে তাই বাজি ধরেছেন অল রেডসরা। শুক্রবার হওয়া ড্রতে সেটাও ধাক্কার মতো হয়ে এসেছে তাদের জন্য। কারণ শেষ আটের লড়াইয়ে রিয়াল মাদ্রিদকে পেয়েছে তারা।

চ্যাম্পিয়নস লিগ ড্র; কোয়ার্টার ফাইনাল

রিয়াল মাদ্রিদ-লিভারপুল

চেলসি-পোর্ত

পিএসজি-বায়ার্ন মিউনিখ

ম্যানসিটি-বরুশিয়া ডর্টমুন্ড

সেমিফাইনাল

রিয়াল মাদ্রিদ-লিভারপুল জয়ী বনাম চেলসি-পোর্তর জয়ী

পিএসজি-বায়ার্ন মিউনিখ জয়ী বনাম ম্যানসিটি-বরুশিয়া ডর্টমুন্ড জয়ী

মৌসুমের শুরুটা ভালো না হলেও পেপ গার্দিওয়ালার ম্যানসিটি ঠিকই ঘুরে দাঁড়িয়েছে। লিগে তারা রাজত্ব করছে। তবে পেপের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে চ্যাম্পিয়নস লিগে সাফল্য পাওয়া। পিএসজি, জুভেন্টাসের মতো ম্যানসিটিও ইউরোপ সেরার শিরোপার চ্যালেঞ্জ নিয়েছে। সেই লড়াই টিকিয়ে রাখতে হলে ম্যানসিটিকে শেষ আটে পরীক্ষা দিতে হবে আর্লিং হ্যালন্ড-জাদন সানকোদের বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের বিপক্ষে। 

খানিকটা সহজ প্রতিপক্ষ পেয়েছে চেলসি। ব্লুজদের দায়িত্ব নিয়ে টমাস টুলেখ দারুণ কাজ শুরু করেছেন। লিগে তাদের সেরা চারে ফিরিয়েছেন। চ্যাম্পিয়নস লিগে অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদের বিপক্ষে দুই লেগেই জিতে কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করেছেন। সেমিফাইনালে যাওয়ার লড়াইয়ে তাদের পরীক্ষা দিতে হবে পর্তুগিজ ক্লাব পোর্তর বিপক্ষে। কাজটা একেবারে সহজ নয়। ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোদের জুভেন্টাসকে বিদায় করে শেষ আটে এসেছে পোর্ত।

আগামী ৭ এপ্রিল চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ আটের প্রথম লেগ মাঠে গড়াবে। দ্বিতীয় লেগ ঠিক এক সপ্তাহ পরে ১৪ এপ্রিল অনুষ্ঠিত হবে। হোম-অ্যাওয়ে ভিত্তিতে হবে এবারের কোয়ার্টার ফাইনালের লড়াই। রিয়াল মাদ্রিদের জন্য চ্যালেঞ্জ হলো ৭ ও ১৪ এপ্রিলের ম্যাচের মাঝেই ১১ এপ্রিল তাদের খেলতে হবে মৌসুমের দ্বিতীয় এল ক্লাসিকো। যে ক্লাসিকো দিয়েই হয়ে যেতে পারে চলতি মৌসুমের লা লিগার শিরোপার সুরাহা।