ফেব্রুয়ারি মাসের শুরুতে একসঙ্গে অনেক দিবস উদযাপিত হয়। এর মধ্যে আছে রোজ ডে, টেডি ডে, হাগ ডে, ফাল্গুন, ভালোবাসা দিবস। একসঙ্গে এতগুলো বিশেষ দিন, স্বাভাবিকভাবেই আপনার পকেট তো ফাঁকা হবারই কথা। 

বাকি দিনগুলোর কথা মনে না থাকলেও 'ভালোবাসা দিবস' তো আর ভুলে গেলে চলবে না! তাই তার জন্য আগে থেকেই দিনটির নানা চমক পরিকল্পনা করে রাখতে হবে।

এদিন রোমান্টিক পরিকল্পনার পাশাপাশি উপহার দেওয়ার সময় প্রেমিকা বা প্রেমিককে কী দেবেন, তা নিঃসন্দেহে একটি বড় চিন্তার বিষয় হয় দাঁড়ায়। আবার উপহারের খরচের দিকটাও পকেটকে নিয়ে খানিকটা ভাবায়! 

রয়েছে এই সমস্যা সমাধানের উপায়ও।

১) কথায় আছে, 'দ্য মর্নিং শোজ দ্য ডে'! তাই সকাল থেকেই শুরু করুন আপনার সঙ্গীকে 'স্পেশাল ফিল' করানোর চেষ্টা। তবে দামি ফুলের তোড়াতে নয়; তাকে ফোন করে মিষ্টি কথায় ঘুম ভাঙান। 

২) যতই বাজেট আপনার চাহিদামতো থাকুক না কেনো, সময় কিন্তু কম হলে একেবারেই চলবে না। প্রয়োজনে ওই পুরোদিনটি প্রিয় মানুষটির জন্য দিয়ে দিন। আর কোনো কফি শপে নয়, চলে যান আপনাদের দুজনের স্পেশ্যাল কোনো জায়গায় যেখানে দুজন-দুজনকে দেখেছিলেন কিংবা প্রপোজ করেছিলেন।

৩) যাই বলুন, 'ভি-ডে-এর উপহারের দিকে সবারই নজর থাকে। তবে উপহার মানেই যে দামি হতে হবে এমনটা নয়। এমন কিছু দিন যা স্পেশাল হয়ে থাকবে। যেমন, একজোড়া পাওয়া যায় এমন কিছু, কিংবা নিজের বানানো কিছু। এখন তো অনেক সফ্টওয়্যার রয়েছে আপনার স্মার্টফোনেই। ছবি কিংবা ভিডিও কোলাজ করে উপহার দিতে পারেন। তবে অবশ্যই সঙ্গে রাখবেন ফুল, সেটা বাড়ির বাগানেরও হতে পারে।

৪) দামি রেঁস্তোরার আলো-আঁধারিতে নয়, এবার ভালোবাসা দিবসে পেটপুজোটা সেরে নিতে পারেন নিজেদের তৈরি করা রান্না দিয়েই। একসঙ্গে রান্না করলে দুজনে অনেকটা সময়ও একসঙ্গে কাটাতে পারবেন। তবে একান্তই যদি রান্নায় উৎসাহ না থাকে, তাহলে বিশেষ কোনো কোনো স্ট্রিট ফুড কিন্তু সস্তায় প্রেম জমাতে ওস্তাদ। তাই এই অপশনটাও আপনার জন্য খোলা রয়েছে।

৫) কথায় আছে, ‘সব ভালো যার শেষ ভালো তার!’ তাই দিনটা যখন শেষের পথে এমন কিছু লাভ ডোজ দিয়ে তাকে চমকে দিন। যেমন, প্রমিস করতে পারেন পরের পাঁচটা উইকেন্ড একসঙ্গে কাটাবেন।

এই কয়েকটা বিষয় মাথায় রাখলে রথ দেখাও আর কলা বেঁচাও হবে। সূত্র: জিনিউজ

মন্তব্য করুন