ঢাকা সোমবার, ২০ মে ২০২৪

একে একে ছেড়ে গেছে ৪ স্ত্রী, পঞ্চম স্ত্রীকে হত্যার অভিযোগ

একে একে ছেড়ে গেছে ৪ স্ত্রী, পঞ্চম স্ত্রীকে হত্যার অভিযোগ

প্রতিবেশীদের ভিড়/ ছবি- সমকাল।

মেহেরপুর প্রতিনিধি

প্রকাশ: ২৫ অক্টোবর ২০২২ | ২২:১৮ | আপডেট: ২৫ অক্টোবর ২০২২ | ২২:৩০

মেহেরপুরের গাংনীতে সাবিনা খাতুন (৩৩) নামের এক গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগ উঠছে তার স্বামী বিদ্যুৎ হোসেনের বিরুদ্ধে। মঙ্গলবার (২৫ অক্টোবর) রাতে উপজেলার ষোলটাকা ইউনিয়নের কুঞ্জনগর গ্রামের হুদাপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত সাবিনা খাতুন কুমারীডাঙ্গা গ্রামের আব্দুস সাত্তারের মেয়ে। তাঁর স্বামী বিদ্যুৎ হোসেন কুঞ্জনগর গ্রামের ওলি বিশ্বাসের ছেলে। 

সাবিনার বড় বোন শারমিন খাতুন বলেন, দুই মাস আগে বিদ্যুতের সঙ্গে সাবিনার বিয়ে হয়। এর আগে বিদ্যুৎ চারটি বিয়ে করেছিল। শারীরিক সমস্যার কারণে স্ত্রীরা চলে গেছে। এরপর বিদ্যুৎ প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে আমার বোনকে বিয়ে করে। বিয়ের পর থেকে বিদুৎ ও তার পরিবারের লোকেরা সাবিনার ওপর শারীরিক-মানসিক নির্যাতন করে আসছিল। মঙ্গলবার সন্ধ্যার পর সাবিনাকে আনতে যায় আমার ভাই মাকুলসহ কয়েকজন। সাবিনাকে না পাঠিয়ে তাদের মারধর করে তাড়িয়ে দেয় বিদ্যুৎরা। এরপর রাতে সাবিনার মাথায় পাথর দিয়ে আঘাত করে হত্যা করে। হত্যার পরপরই বিদ্যুৎ ও তার পরিবারের লোকেরা পালিয়ে গেছে। আমি এই হত্যাকাণ্ডের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি।

বিদ্যুৎ ও তার পরিবারের সদস্যরা পলাতক থাকায় এ বিষয়ে তাদের বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

গাংনী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুর রাজ্জাক বলেন, মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। নিহতের পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে এই ঘটনার আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। অভিযুক্তদের ধরতে পুলিশ কাজ করছে।

আরও পড়ুন

×