ঢাকা রবিবার, ১৯ মে ২০২৪

বাড়িঘরে পানি, গাছ পড়ে চলাচল ব্যাহত

বাড়িঘরে পানি, গাছ পড়ে চলাচল ব্যাহত

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের শুভাঢ্যা উত্তরপাড়া হাজিনগর এলাকায় হেলে পড়া দুটি বহুতল ভবন সমকাল

নারায়ণগঞ্জ সংবাদদাতা

প্রকাশ: ২৫ অক্টোবর ২০২২ | ১২:০০ | আপডেট: ২৬ অক্টোবর ২০২২ | ০২:১২

ঘূর্ণিঝড় সিত্রাংয়ের প্রভাবে বৃষ্টিতে নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন এলাকার বাড়িঘরে পানি ঢুকেছে। ডুবে গেছে রাস্তা। গাছ পড়ে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সোনারগাঁয়ে দেড় ঘণ্টা যান চলাচল বন্ধ ছিল।

সোমবার সারাদিন ও রাতের শেষভাগ পর্যন্ত ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে বৃষ্টি হয়। বিকেল থেকে সকাল ৭টা পর্যন্ত অধিকাংশ এলাকায় বিদ্যুৎ ছিল না। বিদ্যুৎ মাঝে আধঘণ্টার জন্য এলেও চলে যায়।

নগরীর আল্লামা ইকবাল রোডের বাসিন্দা আমিনুল হক জানান, টানা বৃষ্টিতে তাদের বাড়িতে পানি জমে গেছে। রাতে সবাই যখন ঘুমিয়ে ছিল, তখন পানি একতলায় ঢুকে যায়। রিজার্ভ ট্যাঙ্কের ওপরে উঠে যায়। সকালে উঠে তাঁরা দেখতে পান, রিজর্ভ ট্যাঙ্কের ভেতরে বৃষ্টির পানি। পানি শুকালে রিজার্ভ ট্যাঙ্ক পরিস্কার করতে হবে।

মাসদাইর গুদারাঘাট এলাকার ভাড়াটিয়া মুক্ত জানান, সকালে উঠে দেখেন বাসার ভেতর হাঁটু পানি। তিনি ও তাঁর মা দু'জনই অসুস্থ। ফলে পানি ভেঙে কাজে যেতে পারেননি।

নগরীর প্রধান সড়ক বঙ্গবন্ধু সড়কে পানি জমেছিল। তবে সকালে সিটি করপোরেশনের কর্মচারীরা বিভিন্ন ড্রেনের মুখের পলিথিন সরিয়ে নেন। স্ল্যাব তুলে ড্রেনের আবর্জনা পরিস্কার করে দিলে বঙ্গবন্ধু সড়কের পানি সকাল ১১টার মধ্যে নেমে যায়। কিন্তু সন্ধ্যায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত নগরীর আল্লামা ইকবাল রোড, জামতলা, মাসদাইর, ইসদাইর, দেওভোগ, গলাচিপা, তল্লা, সিদ্ধিরগঞ্জের কদমতলী, জালকুড়িসহ বিভিন্ন স্থানে রাস্তার ওপর ও বাড়িঘরে পানি ছিল। নগরীর বিভিন্ন স্থানে গাছের ডাল ভেঙে পড়ে থাকতে দেখা যায়। দেওভোগ হাজী উজির আলী স্কুলের দুটি বিশাল গাছ উপড়ে গেছে।

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের পরিচ্ছন্নতা কর্মকর্তা আলমগীর হিরণ জানান, সিটি করপোরেশনের কয়েকশ কর্মচারী সকাল ৭টা থেকে সারাদিন উপড়ে যাওয়া গাছ ও পানি সরানোর কাজ করেছেন। তবে অনেক জায়গায় ড্রেনের মুখে প্রচুর ময়লা ফেলে রাখায় এমনকি ড্রেনের ভেতরে তোশকের মতো আবর্জনা ফেলে রাখায় ড্রেন বন্ধ হয়ে ছিল। অধিকাংশ এলাকার ময়লা তাঁরা পরিস্কার করতে সক্ষম হয়েছেন। আশা করছেন, বুধবার সকালের মধ্যে সিটি করপোরেশনের উল্লেখযোগ্য এলাকার পানি সরে যাবে। যেসব এলাকার পানি সরবে না, তাঁদের জানালে তাঁরা সেখানে গিয়ে ব্যবস্থা নেবেন।

এদিকে ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে সোমবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে সোনারগাঁ উপজেলার দড়িকান্দি এলাকায় দুটি গাছ ভেঙে মহাসড়কের ওপর পড়ে। ফলে মহাসড়কে দেড় ঘণ্টা যান চলাচল বন্ধ ছিল। উপড়ে যাওয়া গাছের দু'পাশে প্রায় এক কিলোমিটার করে যানজট তৈরি হয়।

কাঁচপুর হাইওয়ে থানা পুলিশের ওসি নবীর হোসেন বলেন, গাছ কেটে সরানোর পর রাতেই যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

আরও পড়ুন

×