ঢাকা রবিবার, ১৯ মে ২০২৪

ওসমানীনগর উপজেলা

ইভিএমে কারচুপির অভিযোগ

ইভিএমে কারচুপির অভিযোগ

ওসমানীনগর (সিলেট) প্রতিনিধি

প্রকাশ: ০৩ নভেম্বর ২০২২ | ১২:০০ | আপডেট: ০৩ নভেম্বর ২০২২ | ২৩:৫০

সিলেটের ওসমানীনগর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে পরাজিত হয়েছেন স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী উপজেলা বিএনপির বহিস্কৃত যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কামরুল ইসলাম। আওয়ামী লীগের প্রার্থী সিলেট জেলা যুবলীগের সভাপতি মো. শামীম আহমদ ১৪ হাজার ৩৮০ ভোটের ব্যবধানে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। হারার পর কারচুপির অভিযোগ তুলেছেন কামরুল ইসলাম। নির্বাচনে পাঁচ প্রার্থী জামানত হারাচ্ছেন বলে জানা গেছে।

নির্বাচনে পরাজিত কামরুল ইসলাম অভিযোগ করেছেন, ইভিএম মেশিনে জালিয়াতির কারণে তাঁর পরাজয় হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে সাংবাদিকদের কাছে এ অভিযোগ করেন। তিনি বলেন, প্রতিটি কেন্দ্রে ভোটারের উপস্থিতি কম থাকলেও ৪৮ হাজারের বেশি ভোট কাস্টিং অস্বাভাবিক। ভোটের আগের দিন তাঁর এজেন্টদের হুমকি দেওয়া হয়েছে। ভোটের দিন অনেক কেন্দ্রে ভয়ে কোনো এজেন্ট ছিল না।

এ বিষয়ে রিটার্নিং অফিসার ও সুনামগঞ্জ জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ মুরাদ উদ্দিন হাওলাদার বলেন, ইভিএম এমন একটি মেশিন, যা দিয়ে জালিয়াতির সুযোগ নেই। পরাজিত প্রার্থীর এমন অভিযোগ ভিত্তিহীন।

জানা গেছে, নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে টিয়া পাখি প্রতীক নিয়ে বিজয়ী হয়েছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আনা মিয়া। নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে কলস প্রতীকে বিজয়ী হয়েছেন জাহানারা বেগম। নবগঠিত ওসমানীনগর উপজেলা পরিষদের দ্বিতীয় নির্বাচনে চেয়রম্যান পদে তিনজন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে আটজন এবং নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে তিনজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।

প্রয়োজনীয় সংখ্যক ভোট না পাওয়ায় চেয়ারম্যান এবং ভাইস চেয়ারম্যান পদের পাঁচ প্রার্থী জামানত হারাচ্ছেন। বিধি অনুযায়ী, প্রদত্ত ভোটের আট ভাগের এক ভাগ না পেলে প্রার্থীর জামানত বাতিল হয়। নির্বাচনে এক লাখ ৪৭ হাজার ৯৭১ জন ভোটারের মধ্যে ৪৮ হাজার ৪৬১ জন ভোট দিয়েছেন।

চেয়ারম্যান প্রার্থী খেলাফত মজলিসের মো. ছইদুর রহমান চৌধুরী, ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী আলী হোসেন রানা, খন্দকার মাসুম আহমদ, মো. আব্দুল বাছিত ও আখতার আহমদ আট ভাগের এক ভাগ ভোট পাননি। রিটার্নিং কর্মকর্তা মুরাদ উদ্দিন বিধি অনুযায়ী জামানত বাজেয়াপ্তের তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আতাউর রহমান বলেন, দলে কোনো বিদ্রোহী প্রার্থী না থাকা ও তৃণমূলের ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টায় দলীয় প্রার্থী বড় জয় পেয়েছেন। নির্বাচিত প্রার্থী শামীম আহমদ তাঁর জয়ের জন্য সাধারণ ভোটার এবং দলের নেতাকর্মীদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান। সবাইকে সঙ্গে নিয়ে সুন্দর উপজেলা গড়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন তিনি।

আরও পড়ুন

×