ঢাকা শনিবার, ২৫ মে ২০২৪

তিন জেলায় ৩৪ জনকে জেল-জরিমানা

তিন জেলায় ৩৪ জনকে জেল-জরিমানা

অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০১ এপ্রিল ২০২০ | ০৯:৫০

করোনা পরিস্থিতি নিয়ে গুজব সৃষ্টির দায়ে বরিশালের গৌরনদীতে ছয়জনকে, সামাজিক দূরত্ব না মানায় কিশোরগঞ্জের ভৈরবে ২৬ জনকে এবং বগুড়ার শিবগঞ্জে ভেজাল মসলা তৈরি করায় দু'জনসহ ৩৪ জনকে জেল-জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ ছাড়া ভেজাল মসলার কারখানাটিও সিলগালা করা হয়েছে। ব্যুরো, অফিস ও প্রতিনিধির পাঠানো খবর-

বরিশাল ও গৌরনদী : বরিশালের গৌরনদীতে করোনাভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে অপপ্রচার ও গুজব ছড়ানোর অভিযোগে মসজিদের ইমাম, শিক্ষকসহ ছয়জনকে ২৫ হাজার টাকা করে অর্থদণ্ড, অনাদায়ে এক মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। দণ্ডিতদের মধ্যে দু'জন নারী ও চারজন পুরুষ। গৌরনদী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইসরাত জাহান বুধবার দুপুরে ছয়জনকে উল্লিখিত দণ্ড দেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেন বরিশাল জেলা প্রশাসক এস এম অজিয়র রহমান।

দণ্ডিতরা হচ্ছেন- গৌরনদী উপজেলার পৌর এলাকার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক রফিকুল ইসলাম, উত্তর বিজয়পুর মসজিদের ইমাম হাসান আল মামুন, অবসরপ্রাপ্ত সার্জেন্ট সিরাজুল ইসলাম, অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষিকা দীপালি দেবনাথ, বার্থী কলেজের শিক্ষক সালমা আক্তার ও বানিয়াশুড়ি মসজিদের ইমাম আবদুল কাদের মোল্লা। তাদের মধ্যে দু'জন ইমাম ও অবসরপ্রাপ্ত সার্জেন্টকে মসজিদের মাইকে করোনা সম্পর্কে গুজব সৃষ্টির অভিযোগে এবং অপর তিনজনকে ফেসবুকে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে আটক করা হয়।

জানা গেছে, গত মঙ্গলবার রাত ১০টার পর আটকরা মাইকিং করে এবং ফেসবুকে করোনা সম্পর্কে গুজব ছড়িয়ে অস্থিরতা সৃষ্টির চেষ্টা করেন। মসজিদের মাইকে এবং ফেসবুকে তারা উল্লেখ করেন, 'মঙ্গলবার রাত ১১টা থেকে ৩টা পর্যন্ত কেউ ঘরের বাইরে যাবেন না, করোনাভাইরাস নির্মূলে হেলিকপ্টারযোগে স্প্রে করা হবে। এ সময়ে ঘরের বাইরে কোনো কাপড়চোপড় থাকলে তাও দ্রুত ঘরে নিয়ে যান।' বিষয়টি স্থানীয় প্রশাসনের নজরে এলে রাতেই অভিযানে নামে তারা। মঙ্গলবার রাত থেকে বুধবার সকাল পর্যন্ত অভিযুক্ত ছয়জনকে আটক করে ভ্রাম্যমাণ আদালতে সোপর্দ করা হয়। পরে তারা জরিমানা দিয়ে মুক্তি পান।

কিশোরগঞ্জ : কিশোরগঞ্জের ভৈরবে সামাজিক দূরত্ব না মানায় ২৬ জনকে জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হিমাদ্রী খীসা পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালত এ জরিমানা করেন। বুধবার তিনি পৌরশহরসহ উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করেন। সহকারী কমিশনার জানান, করোনাভাইরাসের মহামারি ঠেকাতে দেশব্যাপী সরকারি সিদ্ধান্তের সামাজিক বিচ্ছিন্নতা অবস্থা ভেঙে এসব ব্যক্তি বাড়ির বাইরে বের হয়ে রাস্তাঘাটে অবাধে চলাচল করায় ২৬ ব্যক্তিকে ৩২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

বগুড়া : করোনার সুযোগে বগুড়ার শিবগঞ্জে ভেজাল হলুদ-মরিচের গুঁড়া তৈরি করায় একটি মিল সিলগালা করা হয়েছে। সেইসঙ্গে মিলের দুই কর্মচারীকে আটক করে ভ্রাম্যমাণ আদালতে দু'জনের ছয় মাসের কারাদণ্ড প্রদান করা হয়েছে। 

বুধবার জেলার শিবগঞ্জ শহরতলি বাজারে এ ঘটনা ঘটে। প্রশাসনের উপস্থিতি টের পেয়ে মিল মালিক আকন্দপাড়া গ্রামের মোজাম্মেলের ছেলে শুকুর আলী পালিয়ে যায়। এ সময় মিলের কর্মচারীসহ দু'জনকে আটক করা হয়। আটকরা হলো আকন্দপাড়া গ্রামের রবে প্রামাণিকের ছেলে পুটু মিয়া ও গণেশপুর গ্রামের রেজাউল ইসলামের ছেলে মামুন। সেখান থেকে বেশ কিছু ভেজাল হলুদ ও মরিচের গুঁড়া জব্দ করা হয় এবং মিলটি সিলগালা করা হয়।

পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও প্রথম শ্রেণির ম্যাজিস্ট্রেট আলমগীর কবির ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে আটকদের ছয় মাসের কারাদণ্ড প্রদান করেন।

আরও পড়ুন

×