খুলনায় 'বন্দুকযুদ্ধ' ৩ বনদস্যু নিহত

প্রকাশ: ০৬ জুন ২০১৮      

খুলনা ব্যুরো

খুলনায় পুলিশের সঙ্গে বনদস্যুদের 'বন্দুকযুদ্ধে' সুন্দরবনের কালু বাহিনীর প্রধান আবু সাইদ ওরফে কালুসহ তিন বনদস্যু নিহত হয়েছেন।

নিহত অপর দুইজন হলেন মো. আকবর আলী গাজী ও শহীদুল মল্লিক।

বুধবার সকাল ১১টার দিকে জেলার কয়রা উপজেলা সুন্দরবনের ভেতর কয়রা নদীর ময়দাফ্যাসা এলাকায় এই বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।

এ সময় পুলিশের আট সদস্য আহত হন। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে একটি ডাবল ব্যারেল বন্দুক ও ৩ রাউন্ড কার্তুজ, দুটি দেশে তৈরি পিস্তল ও এক রাউন্ড পিস্তলের গুলি, পাঁচ রাউন্ড গুলির খোসা, একটি কুড়াল, একটি চাপাতি ও ১০-১২টি গরানের লাঠি এবং ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত একটি নৌকা উদ্ধার করে।

কয়রা থানার ওসি এনামুল হক জানান, তিন দিন আগে কয়রা উপজেলা সদর এলাকার বীণাপাণি ও তেঁতুলতলা গ্রামের বাসিন্দা সুন্দরবনের জেলে হাবিবুর ফকির, রাজু, সাবিদুল গাজী ও মজিবুর গাজীকে মুক্তিপণের দাবিতে সুন্দরবন থেকে অপহরণ করে বনদস্যু কালু বাহিনী। অপহৃত জেলেদের নিয়ে কালু বাহিনী কয়রা নদীর ময়দাফ্যাসা এলাকায় অবস্থান করছে এমন খবর পেয়ে কয়রা থানা পুলিশ সকাল ১১টার দিকে সেখানে অভিযান চালায়।

তিনি জানান, পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে বনদস্যুরা পুলিশের দিকে গুলি ছুড়তে থাকে। তখন পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। দুপুর ১২ টার দিকে বনদুস্যদের গুলি ছোড়া বন্ধ হলে সেখানে তল্লাশি অভিযান শুরু করে পুলিশ। এ সময় গুরুতর আহত তিন বনদস্যুকে উদ্ধার করে জায়গীরমহল হাসপাতালে নিয়ে যায়। কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন।

নিহত কালু কয়রার অর্জুনপুর এলাকার শামসুর রহমান, আকবর গিলাবাড়ির জলিল গাজী ও শহীদুল রামপালের হোগলাডাঙ্গার জব্বার মল্লিকের ছেলে। নিহত ডাকাত আবু সাইদ কালু, আকবর ও শহীদুলের বিরুদ্ধে একাধিক ডাকাতি ও অস্ত্র মামলা রয়েছে। তাদের মধ্যে ২০১৬ সালে শহীদুল বনদস্যু হিসেবে আত্মসমর্পণ করেছিল। পরে সে কালু বাহিনীতে যোগ দিয়ে আবারও ডাকাতিতে জড়িয়ে পড়ে।

ওসি জানান, বন্দুকযুদ্ধ চলাকালে কয়রা থানার এসআই রাজিউল আমিন, কিশোর কুমার, গোলাম আজম, এএসআই মোস্তাফিজুর রহমান, পুলিশ সদস্য শওকত হোসেন, হারিজ মোল্লা, সামাদ ও মোকলেছুর রহমান আহত হয়। তাদের স্থানীয় স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আরও পড়ুন

আরএফএল-ইউনিলিভারসহ বিভিন্ন কোম্পানির গুদামে ভয়াবহ আগুন

আরএফএল-ইউনিলিভারসহ বিভিন্ন কোম্পানির গুদামে ভয়াবহ আগুন

চট্টগ্রামে আরএফএল ও ইউনিলিভারসহ কয়েকটি কোম্পানির গুদামে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড ঘটেছে। শুক্রবার ...

সিসিটিভি ক্যামেরায় ধরা পড়ল ভদ্রবেশী ২ চোর

সিসিটিভি ক্যামেরায় ধরা পড়ল ভদ্রবেশী ২ চোর

সন্ধ্যা ৬টার মধ্যে প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে চলে যান গ্রেটওয়াল সিরামিকসের ...

'বিপিএলের প্রশংসা শুনেই খেলতে আসা'

'বিপিএলের প্রশংসা শুনেই খেলতে আসা'

বিপিএলের ষষ্ঠ আসরে রং চড়াতে এসেছেন ওয়ার্নার-গেইল, ডি ভিলিয়ার্সরা। রং ...

ঐক্যফ্রন্টের 'জাতীয় সংলাপ' তাদের মুখ রক্ষার প্রচেষ্টা: হাছান মাহমুদ

ঐক্যফ্রন্টের 'জাতীয় সংলাপ' তাদের মুখ রক্ষার প্রচেষ্টা: হাছান মাহমুদ

আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ও তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ...

সুন্দরবন এক্সপ্রেস লাইনচ্যুত, খুলনার সঙ্গে রেল যোগাযোগ বন্ধ

সুন্দরবন এক্সপ্রেস লাইনচ্যুত, খুলনার সঙ্গে রেল যোগাযোগ বন্ধ

ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুরে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা আন্তঃনগর সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনটি ...

শতভাগ স্বচ্ছতায় সারা দেশে শিক্ষক নিয়োগ হবে: শিক্ষামন্ত্রী

শতভাগ স্বচ্ছতায় সারা দেশে শিক্ষক নিয়োগ হবে: শিক্ষামন্ত্রী

শতভাগ স্বচ্ছতার মধ্য দিয়ে সারা দেশে শিক্ষক নিয়োগ করা হয়ে ...

বিপিএল দিয়ে নিউজিল্যান্ডের প্রস্তুতি হবে না: রোডস

বিপিএল দিয়ে নিউজিল্যান্ডের প্রস্তুতি হবে না: রোডস

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের মাথার ওপর নিউজিল্যান্ডের কঠিন পরিক্ষা ঝুলছে। বিপিএলে ...

খাবার কিনতে রেস্তোরাঁর লাইনে বিল গেটস

খাবার কিনতে রেস্তোরাঁর লাইনে বিল গেটস

বিশ্বের অন্যতম ধনী ব্যক্তি মাইক্রোসফটের প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস। তারপরও তার ...