এত শোক কেমনে সইবেন রিগেন দেওয়ান!

প্রকাশ: ১২ জুন ২০১৮     আপডেট: ১২ জুন ২০১৮      

বিশেষ প্রতিনিধি, চট্টগ্রাম ও রাঙামাটি অফিস

রাঙামাটি-খাগড়াছড়ি সড়কে যাওয়ার পথে বুড়িঘাট ইউপি কার্যালয়। সেখান থেকে প্রায় তিন কিলোমিটার দূরে অবস্থিত ধর্মচরণপাড়া। এখানেই থাকতেন রিগেন দেওয়ান। অভাব নিত্যসঙ্গী হওয়ায় এখানকার পাহাড়ের কোলেই গড়েছিলেন তিনি মাথা গোঁজার ঠাঁই। 

এতদিন যে পাহাড় ছিল তার আশ্রয়স্থল, মঙ্গলবার ভোররাতে সেই পাহাড়ই নিঃস্ব করল তাকে। মাটিচাপায় শেষ হয়ে গেছে রিগেন দেওয়ানের সংসার। 

মধ্যরাতের পাহাড় ট্র্যাজেডিতে তিনি হারিয়েছেন বৃদ্ধ মা ফুল দেবী চাকমা, ছোট বোন ইতি চাকমা, স্ত্রী স্মৃতি চাকমা ও ছেলে আয়ুব দেওয়ানকে। একসঙ্গে পরিবারের চারজনকে হারিয়ে এখন শোকে মুহ্যমান রিগেন দেওয়ান।

প্রিয়জনদের নানা স্মৃতি স্মরণে এনে করছেন তিনি আহাজারি। বলছেন, 'আমি এখন কারে নিয়ে বেঁচে থাকব। আমারে রেখে কেন চলে গেলে তোমরা সবাই।'

স্ত্রী-সন্তানের সঙ্গে এক ঘরেই ছিলেন রিগেন। তাই পাহাড় ট্র্যাজেডিতে লাশ হওয়ার কথা ছিল তারও। কিন্তু মাটি চাপার শব্দ কানে আসতেই ঘর ছেড়ে দৌড় দিতে পেরেছিলেন তিনি। এ কারণে প্রাণে বেঁচে গিয়েছেন তিনি। 

ঘটনার স্মৃতিচারণ করে রিগেন দেওয়ান বলেন, 'সোমবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে অদ্ভুত ধরনের একটা আওয়াজ হয়। এরপর আমরা কে কোথায় রয়েছি জানি না। তবে আমি দৌড়ে যাওয়ার পরপর ছোট ভাই ইমন চিৎকার করে বলছিল, দাদা আমাকে বাঁচাও। এরপর দৌড়ে গিয়ে দেখি তার গলা পর্যন্ত মাটি এসে গেছে। অনেক কষ্টে তাকে উদ্ধার করি। কিন্তু উদ্ধার করতে পারলাম না মা, বোন, স্ত্রী ও ছেলেকে।' 

পাহাড় ট্র্যাজেডিতে প্রাণে বেঁচে যাওয়া রিগেন দেওয়ানের ভাই ইমন দেওয়ান জানান, ধর্মচরণপাড়ার একটি পাহাড়ের পাদদেশে মা, বোন, ভাইসহ থাকতেন তারা। মাটির ঘরে থাকলেও তাদের ছিল সুখের সংসার। চাষাবাদ করে সংসার চালাতেন তারা দুই ভাই। টানা বৃষ্টির কারণে তাদের মনে ভয় ছিল। কিন্তু এভাবে পাহাড় তাদের চাপা দেবে তা ভাবতে পারেননি কেউ। সোমবার মধ্যরাতে যখন পাহাড় মাটি চাপা দিয়েছিল, তখন তাকে উদ্ধার করেন ভাই রিগেন দেওয়ান। মাটির নিচে মা, বোন, ভাবি ও ভাতিজা আছে জানলেও তাদের উদ্ধারের কোনো সুযোগ পাননি দুই ভাই। ভোররাতে আশপাশের মানুষ এসে মাটির নিচ থেকে একে একে বের করে তাদের চারজনকে। 

আরএফএল-ইউনিলিভারসহ বিভিন্ন কোম্পানির গুদামে ভয়াবহ আগুন

আরএফএল-ইউনিলিভারসহ বিভিন্ন কোম্পানির গুদামে ভয়াবহ আগুন

চট্টগ্রামে আরএফএল ও ইউনিলিভারসহ কয়েকটি কোম্পানির গুদামে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড ঘটেছে। শুক্রবার ...

সিসিটিভি ক্যামেরায় ধরা পড়ল ভদ্রবেশী ২ চোর

সিসিটিভি ক্যামেরায় ধরা পড়ল ভদ্রবেশী ২ চোর

সন্ধ্যা ৬টার মধ্যে প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে চলে যান গ্রেটওয়াল সিরামিকসের ...

'বিপিএলের প্রশংসা শুনেই খেলতে আসা'

'বিপিএলের প্রশংসা শুনেই খেলতে আসা'

বিপিএলের ষষ্ঠ আসরে রং চড়াতে এসেছেন ওয়ার্নার-গেইল, ডি ভিলিয়ার্সরা। রং ...

ঐক্যফ্রন্টের 'জাতীয় সংলাপ' তাদের মুখ রক্ষার প্রচেষ্টা: হাছান মাহমুদ

ঐক্যফ্রন্টের 'জাতীয় সংলাপ' তাদের মুখ রক্ষার প্রচেষ্টা: হাছান মাহমুদ

আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ও তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ...

সুন্দরবন এক্সপ্রেস লাইনচ্যুত, খুলনার সঙ্গে রেল যোগাযোগ বন্ধ

সুন্দরবন এক্সপ্রেস লাইনচ্যুত, খুলনার সঙ্গে রেল যোগাযোগ বন্ধ

ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুরে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা আন্তঃনগর সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনটি ...

শতভাগ স্বচ্ছতায় সারা দেশে শিক্ষক নিয়োগ হবে: শিক্ষামন্ত্রী

শতভাগ স্বচ্ছতায় সারা দেশে শিক্ষক নিয়োগ হবে: শিক্ষামন্ত্রী

শতভাগ স্বচ্ছতার মধ্য দিয়ে সারা দেশে শিক্ষক নিয়োগ করা হয়ে ...

বিপিএল দিয়ে নিউজিল্যান্ডের প্রস্তুতি হবে না: রোডস

বিপিএল দিয়ে নিউজিল্যান্ডের প্রস্তুতি হবে না: রোডস

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের মাথার ওপর নিউজিল্যান্ডের কঠিন পরিক্ষা ঝুলছে। বিপিএলে ...

খাবার কিনতে রেস্তোরাঁর লাইনে বিল গেটস

খাবার কিনতে রেস্তোরাঁর লাইনে বিল গেটস

বিশ্বের অন্যতম ধনী ব্যক্তি মাইক্রোসফটের প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস। তারপরও তার ...