৬ দফা দাবিতে খুলনার রাষ্ট্রায়ত্ত সাতটি পাটকলের শ্রমিকরা লাঠি মিছিল করেছেন। বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় মহানগরীর খালিশপুর ও আটরা শিল্পাঞ্চলে লাঠি মিছিল করেন শ্রমিকরা। 

এতে খালিশপুর শিল্পাঞ্চলের ক্রিসেন্ট, প্লাটিনাম, খালিশপুর, স্টার, দৌলতপুর জুট মিল এবং আটরা শিল্পাঞ্চলের ইস্টার্ন ও আলিম জুট মিলের শ্রমিকরা অংশ নেন।

মজুরি কমিশন বাস্তবায়ন, পাট কেনার জন্য প্রয়োজনীয় অর্থ বরাদ্দ, শ্রমিক-কর্মচারীদের বকেয়া মজুরি প্রদান, বদলি শ্রমিকদের স্থায়ীকরণ, অবসরে যাওয়া ও চাকরিচ্যুত শ্রমিক কর্মচারীদের পাওনা প্রভিডেন্ট ফান্ড ও গ্রাচ্যুইটির টাকা পরিশোধসহ ছয় দফা দাবিতে এ কর্মসূচি পালন করা হয়। বাংলাদেশ রাষ্ট্রায়ত্ত জুট মিল সিবিএ-নন-সিবিএ পরিষদের ডাকে এ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।

খালিশপুর শিল্পাঞ্চলের লাঠি মিছিলটি বিআইডিসি রোড হয়ে নতুন রাস্তা ঘুরে নিজ নিজ মিলে গিয়ে শেষ হয়। মিছিলের আগে বিক্ষোভ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় শ্রমিক নেতারা অবিলম্বে ছয় দফা দাবি বাস্তবায়নে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান। একই সঙ্গে দাবি বাস্তবায়ন না হওয়া পর্যন্ত রাজপথে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন। 

মিছিলে উপস্থিত ছিলেন পরিষদের কার্যকরী আহ্বায়ক ও ক্রিসেন্ট জুট মিল সিবিএর সাধারণ সম্পাদক সোহরাব হোসেন, শ্রমিক নেতা পান্নু মিয়া, প্লাটিনাম জুট মিলের সাবেক সভাপতি খলিলুর রহমান, কাওসার আলী মৃধা, নুরুল হক, খালিশপুর জুট মিলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মিজানুর রহমান মানিক, স্টার জুট মিলের সভাপতি বেল্লাল মল্লিক, সাধারণ সম্পাদক আবদুল মান্নান, দৌলতপুর জুট মিলের আহ্বায়ক আক্তার হোসেন, সদস্য সচিব হেমায়েত হোসেন, শ্রমিক নেতা মনির হোসেন, লুৎফর রহমান প্রমুখ।

এ ছাড়া আটরা শিল্পাঞ্চলের খুলনা-যশোর মহাসড়কে লাঠি হাতে মিছিল করেন শ্রমিকরা। মিছিলে উপস্থিত ছিলেন আলিম জুট মিল সিবিএ সভাপতি সাইফুল ইসলাম লিটু, সাধারণ সম্পাদক আবদুল হামিদ সরদার, ইস্টার্ন জুট মিলের সভাপতি আলাউদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক এসএম জাকির হোসেন, শ্রমিক নেতা মুজিবর রহমান, মকবুল হোসেন, মোসলেম উদ্দিন, আনোয়ার হোসেন, আবুল কালাম, ইউসুফ আলী, আলম হোসেন, নজরুল ইসলাম, বদিয়ার রহমান, আলতাফ প্রমুখ।