চট্টগ্রামে প্রাণহানি ঠেকাতে পাহাড়ে উচ্ছেদ অভিযান

প্রকাশ: ১২ অক্টোবর ২০১৮      

চট্টগ্রাম ব্যুরো

ফাইল ছবি

ঘূর্ণিঝড় তিতলির প্রভাবে বৃষ্টিপাত হওয়ায় পাহাড় ধসে প্রাণহানি ঠেকাতে অভিযান চালিয়েছে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন।

শুক্রবার সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত নগরের লালখান বাজারের মতিঝর্ণা, মিয়ার পাহাড়সহ বিভিন্ন ঝুঁকিপূর্ণ পাহাড়ে বসবাসকারীদের সতর্ক করে মাইকিংও করা হয়। এদিকে ঘূূর্ণিঝড় তিতলির প্রভাবে শুক্রবার সকাল থেকে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টিপাত অব্যাহত ছিল চট্টগ্রামে। পতেঙ্গা আবহাওয়া অফিস গত ২৪ ঘণ্টায় ৬৪ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করেছে।

উচ্ছেদ অভিযানে নেতৃত্ব দেওয়া নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তাহমিলুর রহমান জানান, ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে যাতে কোনো ধরনের প্রাণহানির ঘটনা না ঘটে তার জন্য সব ধরনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। এ লক্ষ্যে পাহাড়ের পাদদেশে ঝুঁকিপূর্ণভাবে বসবাস করা লোকজনকে সরে যেতে অভিযান চালানো হয়েছে। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে মাইকিংও করা হয়েছে। ঝুঁকি জেনেও অনেকে পাহাড়ের পাদদেশ থেকে সরছেন না। তাদের বুঝিয়ে নিরাপদ স্থানে নিয়ে যাচ্ছে প্রশাসন। পাহাড় সংলগ্ন স্কুলের পাশে বেশ কয়েকটি আশ্রয় কেন্দ্র খোলা হয়েছে।

পতেঙ্গা আবহাওয়া অফিসের সহকারী আবহাওয়াবিদ মেঘনাদ তঞ্চঙ্গ্যা জানান, ঘূর্ণিঝড়টি শুক্রবার ভোরে ভারতের উড়িষ্যা ও তৎসংলগ্ন উপকূলীয় এলাকায় অবস্থান করছিল। দুপুরের দিকে ঘূর্ণিঝড়টি উত্তর-পূর্ব দিকে অগ্রসর হয়ে ক্রমশ দুর্বল হতে থাকে। চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখানো হয়েছে। একই সঙ্গে উত্তর বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে অবস্থানরত সব মাছ ধরা নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত নিরাপদ আশ্রয়ে থাকতে বলা হয়েছে।

এদিকে সাগর উত্তাল থাকায় চট্টগ্রাম বন্দরের বহির্নোঙরে বড় জাহাজ থেকে খোলা পণ্য ছোট জাহাজে খালাস বন্ধ রয়েছে বলে জানিয়েছে বন্দর ও নৌ-বাণিজ্য দপ্তর। তবে বন্দরের মূল জেটিতে কনটেইনার লোড-আনলোড প্রক্রিয়া অব্যাহত রয়েছে। বৃষ্টি ও জোয়ারের পানির কারণে গতকাল চট্টগ্রাম নগরের নিচু এলাকায় জলজটের সৃষ্টি হয়। এতে এসব এলাকার বাসিন্দাদের সাময়িকভাবে ভোগান্তিতে পড়তে হয়।

আরও পড়ুন

অনন্য ভূমিকায় ভারত

অনন্য ভূমিকায় ভারত

একাত্তরের ২৫ মার্চ মধ্যরাতে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় নিরস্ত্র বাঙালির ...

পাঁচ আসনে বশ মানেননি ৭ বিদ্রোহী

পাঁচ আসনে বশ মানেননি ৭ বিদ্রোহী

বিদ্রোহী হলেই আজীবন বহিস্কার- এমন কঠোর হুঁশিয়ারির পরও চট্টগ্রামে বশ ...

প্রার্থিতা প্রত্যাহার করলেন যারা

প্রার্থিতা প্রত্যাহার করলেন যারা

ঢাকার বাইরে দেশের সাত বিভাগ- চট্টগ্রাম, সিলেট, রাজশাহী, বরিশাল, রংপুর, ...

বোনের পক্ষে ভোট চাইলেন সোহেল তাজ

বোনের পক্ষে ভোট চাইলেন সোহেল তাজ

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে গাজীপুর-৪ (কাপাসিয়া) আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ...

ড. কামালের কর ফাঁকি খতিয়ে দেখা হচ্ছে: এনবিআর চেয়ারম্যান

ড. কামালের কর ফাঁকি খতিয়ে দেখা হচ্ছে: এনবিআর চেয়ারম্যান

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন ...

বিএনপি, ঐক্যফ্রন্ট ও ২০ দলের প্রার্থী যারা

বিএনপি, ঐক্যফ্রন্ট ও ২০ দলের প্রার্থী যারা

আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে নির্বাচন কমিশনে (ইসি) চূড়ান্ত ...

আ'লীগ আবার ক্ষমতায় এলে বাড়িতে বাড়িতে কান্নার রোল উঠবে: রিজভী

আ'লীগ আবার ক্ষমতায় এলে বাড়িতে বাড়িতে কান্নার রোল উঠবে: রিজভী

আবারও আওয়ামী লীগ রাষ্ট্রক্ষমতায় এলে ভিন্নমত ও বিশ্বাস চিরদিনের জন্য ...

টেকনোক্র্যাট ৪ মন্ত্রীকে অব্যাহতি

টেকনোক্র্যাট ৪ মন্ত্রীকে অব্যাহতি

চার টেকনোক্র্যাট মন্ত্রীকে অব্যাহতি দেওয়া হলো। রাষ্ট্রপতির স্বাক্ষরের পর মন্ত্রিপরিষদ ...