ধামরাইয়ে অপহৃত শিশুর মাটিচাপা দেওয়া লাশ উদ্ধার, গ্রেফতার ২

প্রকাশ: ২৯ জানুয়ারি ২০১৯     আপডেট: ২৯ জানুয়ারি ২০১৯      

ধামরাই (ঢাকা) প্রতিনিধি

নিহত শিশু মনির হোসেন

ঢাকার ধামরাইয়ে মুক্তিপণের দাবিতে পাঁচ বছরের শিশু মনির হোসেনকে অপহরণের চারদিন পর তার মাটিচাপা দেওয়া লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোমবার রাতে গ্রেফতার দুই অপহরণকারীর স্বীকারোক্তি অনুযায়ী মঙ্গলবার সকালে ধামরাইয়ের আশুলিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশ থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। মনির ধামরাইয়ের আশুলিয়া গ্রামের ব্যবসায়ী সোনা মিয়া ওরফে কালা মিয়ার ছেলে।

সোনা মিয়া জানান, গত শনিবার বিকেল ৫টায় বাড়ির পাশে সালাম মেম্বারের ধানের চাতালে খেলতে যায় মনির। সন্ধ্যার পরও সে বাড়ি না ফিরলে বিভিন্ন স্থানে খোঁজ করেন তারা। কোথাও না পেয়ে পরেরদিন রোববার ধামরাই থানায় একটি জিডি করেন সোনা মিয়া। এরপর সোমবার বিকেলে তার মোবাইলে ফোন করে ১০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে অপহরণকারীরা। বিষয়টি তাৎক্ষণিকভাবে ধামরাই থানা পুলিশকে জানানো হয়। এরপর প্রযুক্তির সহায়তায় সোমবার রাতেই পুলিশ সোনা মিয়ার বাড়ির পাশের মাজেদুল ইসলাম (২৭) ও মানছুর রহমান (২৫) নামের দুই অপহরণকারীকে গ্রেফতার করে। রাতভর ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে তারা মনির হোসেনকে শ্বাসরোধে হত্যার পর মাটিচাপা দেওয়ার কথা স্বীকার করে। পরে মঙ্গলবার সকালে গ্রেফতার দুই খুনিকে সঙ্গে নিয়ে ধামরাইয়ের আশুলিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশ থেকে মাটি খুঁড়ে শিশু মনিরের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। 

ধামরাই থানার ওসি দীপক চন্দ্র সাহা বলেন, ঘটনার দিনই শিশু মনিরকে অপহরণের পর হত্যা করে লাশ মাটিচাপা দেওয়া হয়। পরে মোবাইল ফোনে ১০ লাখ টাকা মুক্তিপণ চায় অপহরণকারীরা। ওই মোবাইল ফোন ট্র্যাকিং করে তাদের গ্রেফতারের পর স্বীকারোক্তি অনুযায়ী লাশ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় আরও একজন জড়িত রয়েছে। তাকেও গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। এ হত্যার পেছনে অন্য কোনো কারণ রয়েছে কিনা তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।