শিশু রাইফার মৃত্যু: প্রধানমন্ত্রীর সহযোগিতা চায় তার পরিবার

প্রকাশ: ০৮ জানুয়ারি ২০১৯     আপডেট: ০৮ জানুয়ারি ২০১৯      

চট্টগ্রাম ব্যুরো

রাইফার মৃত্যুর ঘটনা তদন্তে হাইকোর্টের নির্দেশে গঠিত স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের চার সদস্যের উচ্চ পর্যায়ের তদন্ত কমিটির সদস্যরা মঙ্গলবার চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসে আসেন। এ সময় সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন তারা -সমকাল

চট্টগ্রামে ভুল চিকিৎসায় শিশুকন্যা রাইফার মৃত্যুর ঘটনায় হাইকোর্টের নির্দেশে গত ১৫ অক্টোবর গঠিত স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের চার সদস্যের উচ্চ পর্যায়ের তদন্ত কমিটি কাজ শুরু করেছে। 

মঙ্গলবার স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের যুগ্ম সচিব সাইফুল্লাহিল আজমের নেতৃত্বে ওই তদন্ত কমিটিতে থাকা বিএমডিসির একজন প্রতিনিধি, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের একজন প্রতিনিধি ও চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসে আসেন। এরপর তারা সেখানে শিশু রাইফার বাবা সাংবাদিক রুবেল খান এবং অভিযুক্ত চার চিকিৎসক ম্যাপ হাসপাতালের এমডি ডা. লিয়াকত আলী খান, ডা. বিধান রায় চৌধুরী, ডা. দেবাশীষ সেনগুপ্ত ও ডা. শুভ্র দেবের বক্তব্য শোনেন। 

ওই তদন্ত কমিটির সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসে উপস্থিত সাংবাদিকদের সামনে নিজ বক্তব্য তুলে ধরে রাইফার মৃত্যুর ঘটনায় ন্যায়বিচার এবং নিজের ও তার পরিবারের নিরাপত্তার জন্য প্রধানমন্ত্রীর সহযোগিতা চেয়েছেন সাংবাদিক রুবেল খান।

এ প্রসঙ্গে রাইফার বাবা বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (বিএফইউজে) নির্বাহী পরিষদ সদস্য রুবেল খান বলেন, চট্টগ্রামের বেসরকারি ম্যাপ হাসপাতালের গাফিলতি, চিকিৎসকদের অবহেলা ও ভুল চিকিৎসার কারণে গত ২৯ জুন রাতে আমার দুই বছর চার মাস বয়সী একমাত্র শিশুকন্যা রাফিদা খান রাইফার অকালমৃত্যু হয়। আমি মনে করি, এটি মেডিকেল মার্ডার ছাড়া আর কিছুই নয়। তাই এই নির্মম ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের আমি দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই। এখন আমাকে নানাভাবে হুমকি-ধমকি দেওয়া হচ্ছে। এ কারণে আমি ও আমার পরিবারের সদস্যরা বর্তমানে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। এ ব্যাপারে চারবারের নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী ও জননেত্রী শেখ হাসিনার সহযোগিতা কামনা করছি।

স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের চার সদস্যের এ তদন্ত কমিটির আহ্বায়ক স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের যুগ্ম সচিব সাইফুল্লাহিল আজম সাংবাদিকদের বলেন, 'আমরা অভিযোগকারী ও অভিযুক্ত সবার সঙ্গে কথা বলেছি। তাদের বক্তব্য শুনেছি। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করব। তদন্ত শেষ করে শিগগিই রিপোর্ট দেওয়া হবে।'

এদিকে, দেশের হাসপাতালগুলোতে বারবার চিকিৎসায় অবহেলা ও ভুল চিকিৎসায় রোগীর মৃত্যুর ঘটনা প্রতিরোধ এবং দেশের চিকিৎসা ব্যবস্থায় আমূল পরিবর্তন এবং চিকিৎসক ও চিকিৎসা ব্যবস্থার প্রতি সাধারণ মানুষের আস্থা অর্জনের স্বার্থে রাইফার মৃত্যুর ঘটনায় হাইকোর্টেও একটি রিট পিটিশন দায়ের করেন রাইফার বাবা রুবেল খান। গত বছরের ১৪ আগস্ট করা ওই পিটিশনের পরিপ্রেক্ষিতে স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সচিবসহ সাতজনের ওপর রুল নিশিসহ কারণ দর্শানোর নোটিশ জারি করেন হাইকোর্ট।

বিষয় : রাইফার মৃত্যু শিশু রাইফা চট্টগ্রাম