সিলেটে ছাত্রদলের ছয় নেতাকর্মী অস্ত্রসহ গ্রেফতার

প্রকাশ: ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯      

সিলেট ব্যুরো

সিলেটে অস্ত্রসহ নগরীর চিহ্নিত সন্ত্রাসী ছাত্রদলের ৬ নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তাদের বিরুদ্ধে দুইটি খুন, ছিনতাই, বিস্ফোরক ও অস্ত্র আইনে অর্ধশতাধিক মামলা রয়েছে।সোমবার রাতে নগরীর বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়। ওই সময় তাদের কাছ থেকে একটি পিস্তল, ১৬টি চাকু, দুটি চাপাতি ও দুটি মোটরসাইকেল জব্দ করা হয়।

গ্রেফতারকৃত ব্যক্তিরা হলেন, সিলেট মহানগর ছাত্রদলের সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক নাবিল রাজা চৌধুরী, ছাত্রদল কর্মী ফাহিম আহমদ তোহা, জামিল বপ, ইসতিয়াক রহমান রাজু, আব্দুল্লাহ আল মামুন ও খায়রুল আহমদ।

পুলিশ জানায়, গ্রেফতার ছাত্রদল নেতা নাবিল নিজের সংগঠনের আরেক নেতা আবুল হাসনাত শিমু হত্যা মামলার প্রধান আসামি। গত বছরের ১ জানুয়ারি ছাত্রদলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর র‌্যালিতে প্রকাশ্যে মহানগর ছাত্রদলের সাবেক সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক শিমুকে ছুরিকাঘাতে খুন করা হয়। 

ওই মামলায় গত ২৩ অক্টোবর নাবিলকে প্রধান আসামি করে ১০ জনের নামে আদালতে অভিযোগপত্র দেয় পুলিশ। এছাড়া গ্রেফতার ছাত্রদল কর্মী ফাহিমও নিজ সংগঠনের আরেক কর্মীকে খুনের মামলার আসামি। গত বছরের ১১ আগস্ট নগরীর কুমারপাড়ায় ছাত্রদল কর্মী ফয়জুল হক রাজুকে কুপিয়ে খুন করা হয়। ওই মামলার ১৫ নম্বর আসামি ছিলেন ফাহিম ওরফে তোহা। নাবিল ও ফাহিম ছাড়া অন্যদের বিরুদ্ধে নগরীর বিভিন্ন থানায় চুরি, ছিনতাইসহ বিভিন্ন অভিযোগে মামলা রয়েছে।

আম্বরখানা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই আব্দুল বাতেন জানান, সোমবার রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নগরীর খাসদবীর এলাকা থেকে নাবিলকে গ্রেফতার করা হয়। একই রাতে নগরীর বিভিন্ন এলাকা থেকে অস্ত্র ও মোটরসাইকেলসহ বাকিদের গ্রেফতার করা হয়।

বিমানবন্দর থানার ওসি এসএম শাহদাত হোসেন সমকালকে বলেন, নগরীর বেশিরভাগ ছিনতাইয়ের ক্ষেত্রে গ্রেফতার সিন্ডিকেট জড়িত থাকে। তারা সবাই ছাত্রদলের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। তাদের বিরুদ্ধে নগরীর বিভিন্ন থানায় অর্ধশতাধিক মামলা রয়েছে। গ্রেফতারের সময় তাদের কাছ থেকে উদ্ধার হওয়া অস্ত্রগুলো ছিনতাইয়ের কাজে ব্যবহার করা হতো। এ ঘটনায় মঙ্গলবার তাদের বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে আরেকটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

রাষ্ট্র্রবিরোধী গুজব ছড়ানোয় গ্রেফতার: এদিকে ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, একাধিক মন্ত্রী, সংসদ সদস্য, প্রধান নির্বাচন কমিশনার সম্পর্কে কুরুচিপূর্ণ, অশ্নীল-সম্মানহানিকর ছবি ও পোস্ট শেয়ারে মাধ্যমে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে একজনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৯। 

গ্রেফতার ব্যক্তির নাম মাসুম আহমেদ, তিনি দক্ষিণ সুরমার শেখেরগাও গ্রামের আবদুল মহিতের ছেলে। সোমবার রাত ৯টার দিকে নগরীর ভার্তখলা এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। মঙ্গলবার দক্ষিণ সুরমা থানায় হস্তান্তরে পর আদালতের মাধ্যমে তাকে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।