অনার্স পড়ুয়া স্ত্রীকে গলা কেটে হত্যা, আঙুল কাটলো সন্তানেরও

প্রকাশ: ২১ মার্চ ২০১৯     আপডেট: ২১ মার্চ ২০১৯      

কিশোরগঞ্জ অফিস

নিহত প্রজ্ঞা মোস্তফা

করিমগঞ্জে যৌতুকের দাবিতে অনার্স পড়ুয়া স্ত্রীকে ছুরি দিয়ে গলা কেটে হত্যা করেছে পাষণ্ড স্বামী। নিহতের নাম প্রজ্ঞা মোস্তফা (২৬)। এ সময় ছুরির আঘাতে তার তিন মাস বয়সী শিশু সন্তানের হাতের একটি আঙুল কেটে যায়। 

বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে উপজেলার কাদিরজঙ্গল ইউনিয়নের উত্তর চান্দপুর গ্রামে নৃশংস এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর অভিযান চালিয়ে ঘাতক দেলোয়ার হোসেন মাহতাবকে আটক করেছে পুলিশ।

নিহত প্রজ্ঞা জেলার ইটনা উপজেলার মৃগা ইউনিয়নের লাইমপাশা গ্রামের আহসান মোস্তফার মেয়ে। তিনি কিশোরগঞ্জ সরকারি মহিলা কলেজে সমাজকর্ম বিষয়ে অনার্স চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন।

ঘাতক দেলোয়ার হোসেন মাহতাব করিমগঞ্জ উপজেলার কাদিরজঙ্গল ইউনিয়নের উত্তর চান্দপুর গ্রামের মো. ইমাম উদ্দিনের ছেলে।

পুলিশ ও পারিবারিক সূত্র জানায়, কিছুদিন আগে প্রজ্ঞাকে তার বাবার বাড়ি থেকে দুই লাখ টাকা এনে দেওয়ার জন্য চাপ দেয় মাহতাব। এ নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে কলহ চলছিল। বৃহস্পতিবার সকালে এ নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে মাহতাব ক্ষিপ্ত হয়ে প্রজ্ঞাকে ঘরের মধ্যে ফেলে ছুরি দিয়ে গলা কেটে হত্যা করে পালিয়ে যায়। পরে এলাকাবাসীর খবরের ভিত্তিতে পুলিশ গিয়ে প্রজ্ঞার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কিশোরগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

করিমগঞ্জ থানার ওসি মো. মুজিবুর রহমান জানান, ঘাতক স্বামীকে আটক করা হয়েছে। সেই সঙ্গে হত্যাকাণ্ডে ব্যবহূত ছুরিটি উদ্ধার করা হয়েছে। নিহতের বাবা মো. আহসান মোস্তফা বাদী হয়ে থানায় মামলা করেছেন।